০৯ ডিসেম্বর ২০২১
`

ইরানকে পরমাণু অস্ত্র অর্জন করতে দেবে না ইসরাইল : বেনেত

নাফতালি বেনেত - ছবি : এএফপি

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেত বলেছেন, ইরান তার পরমাণু প্রকল্পের সব সীমারেখা লঙ্ঘন করেছে। তথাপি ইরানকে পরমাণু অস্ত্র অর্জন করতে দেবে না ইসরাইল।

সোমবার জাতিসঙ্ঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বক্তব্যে এমন কথাই বললেন নাফতালি বেনেত।

এদিকে বেনেতের এই বক্তব্যকে 'মিথ্যায় পরিপূর্ণ' বলে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন জাতিসঙ্ঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী দূত মজিদ তাখত রাভানচি।

জাতিসঙ্ঘের সাধারণ পরিষদে দেয়া প্রথম ভাষণে বেনেত বলেন, 'পরমাণু অস্ত্রের ছত্রছায়ায়' ইরান মধ্যপ্রাচ্যে নিয়ন্ত্রণ পেতে চায়।

ইরানের পরমাণু তৎপরতা বন্ধে আন্তর্জাতিক প্রচেষ্টার জন্য আহ্বান জানান বেনেত।

বক্তব্যে ইরানের পরমাণু তৎপরতায় ইসরাইলের এককভাবে পদক্ষেপ নেয়ার হুমকি দেন নাফতালি বেনেত।

তিনি বলেন, 'ইরানের পরমাণু প্রকল্প এক পটপরিবর্তনমূলক অবস্থায় এসে দাঁড়িয়েছে এবং একইসাথে আমাদের ধৈর্য্যও ফুরিয়ে এসেছে।'

বেনেত বলেন, 'ইসরাইল পরমাণু অস্ত্র অর্জনে ইরানকে অনুমতি দেবে না।'

এদিকে জাতিসঙ্ঘে নিযুক্ত ইরানের স্থায়ী দূত মাজিদ তাখত রাভানচি ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর ব্ক্তবের জেরে এক টুইট বার্তায় বলেন, 'জাতিসঙ্ঘে অবাধে ইরানভীতি ছড়ানো হয়েছে।'

তিনি বলেন, ইসরাইলি 'সরকারের কোনো অধিকার নেই আমাদের শান্তিপূর্ণ প্রকল্প নিয়ে কথা বলার যখন তাদের কাছেই শত শত পরমাণু অস্ত্র রয়েছে।'

এদিকে ইরান নিয়ে বিপুল আলোচনা করলেও ফিলিস্তিন প্রসঙ্গ বক্তব্য থেকে এড়িয়ে গেছেন বেনেত। শুধু ইরান ইসরাইলিবিরোধী সংগঠনগুলোকে অর্থায়ন করছে বলে অভিযোগ তোলেন তিনি।

এই প্রসঙ্গে ফিলিস্তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রী রিয়াদ আল-মালিকি বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, 'ফিলিস্তিনিকে আলোচনা থেকে স্বেচ্ছায় বাদ রাখা থেকে বরং তার এই বিষয়ে ভীতিকেই প্রতিফলিত করেছে। একইসাথে আবার আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে প্রমাণ হয়েছে, তিনি ফিলিস্তিনিদের সাথে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও আলোচনার জন্য উপযুক্ত ব্যক্তি নন।'

এর আগে শুক্রবার ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস জাতিসঙ্ঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে ভাষন দেন। ভাষণে তিনি ইসরাইলকে দুই রাষ্ট্রভিত্তিক সমাধানের প্রক্রিয়া ধ্বংস করার জন্য অভিযুক্ত করেন।

এছাড়া জেরুসালেমসহ অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড পশ্চিম তীর থেকে ইসরাইলকে সরে যেতে এক বছরের সময় দেন মাহমুদ আব্বাস

ইসরাইলে দুই বছরে চার নির্বাচনের পরও দীর্ঘ রাজনৈতিক জটিলতা শেষে চলতি বছরের জুনে জোট সরকারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন নাফতালি বেনেত। ১২ বছর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করা বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে ভিন্ন ভিন্ন ধারার ইসরাইলি রাজনৈতিক দলগুলো একত্রিত হয়ে জোট গঠনের মাধ্যমে তাকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর, নেতানিয়াহুর এক সময়কার সহযোগী নাফতালি বেনেতকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনয়ন দেয় ইসরাইলি আইন পরিষদ নেসেট।

সূত্র : টিআরটি ওয়ার্ল্ড


আরো সংবাদ


সবই গেল মুরাদের (১৪৮৫৮)আবরার হত্যা মামলায় ২০ আসামির মৃত্যুদণ্ড (১৪৩৪৭)কীভাবে ফাঁস হলো ফোনালাপ? (১৪০৪১)হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত : রাওয়াত অগ্নিদগ্ধ হলেও জীবিত, প্রাণ বিপন্ন স্ত্রী মধুলিকার (১৩০৭০)রাওয়াতকে বহনকারী কপ্টারটি এত আধুনিক হলেও ভেঙ্গে পড়লো কেন? (১১৭৬৫)আফগানিস্তানকে সাহায্য করার মতো সক্ষমতা একমাত্র ইরানের আছে (৮৮৯৭)ভারতে জেনারেল বিপিন রাওয়াতসহ সেনাকর্তাদের নিয়ে কপ্টার বিধ্বস্ত (৮৩৯৬)মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত ১ নম্বর আসামি রাসেলের বাড়ি সালথায় (৮০৯৭)ভারতের প্রতিরক্ষাপ্রধানকে নিয়ে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত : ১৪ আরোহীর ১৩ জনই নিহত (৬২৪১)ভারতের প্রতিরক্ষা প্রধান বিমান দুর্ঘটনায় সস্ত্রীক নিহত (৬১৮৫)