২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭ আশ্বিন ১৪২৮, ১৪ সফর ১৪৪৩ হিজরি
`

ক্ষমতায় টিকে থাকতে গান্টজকে প্রধানমন্ত্রী পদ দেয়ার প্রস্তাব নেতানিয়াহুর

নেসেটে আলোচনা করছেন বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ও বেনি গান্টজ - ছবি : জেরুসালেম পোস্ট

ক্ষমতায় টিকে থাকতে ইসরাইলের বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর ক্ষমতাসীন সরকারে তার অংশীদার ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গান্টজকে প্রধানমন্ত্রী পদ দেয়ার প্রস্তাব করেছেন। শুক্রবার ইসরাইলি সংবাদমাধ্যম এন টুয়েলভে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

তবে ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট পার্টি প্রধান প্রধানমন্ত্রিত্বের এই লোভনীয় প্রস্তাব উপেক্ষা করে মধ্যপন্থী ইয়েশ আতিদ প্রধান ইয়ায়ির লাপিদ ও রক্ষণশীল ইয়ামিনা প্রধান নাফতালি বেনেতের জোটেই পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে যোগ দিতে যাচ্ছেন বলে খবরে জানানো হয়। নেতানিয়াহুকে ক্ষমতাচ্যুত করার লক্ষ্যে গঠিত হতে যাওয়া জোট সরকারে আগের সমঝোতা অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নাফতালি বেনেত দায়িত্ব গ্রহণ করবেন। অপরদিকে বেনি গান্টজ তার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব ইয়ায়ির লাপিদের হাতে ছেড়ে দিচ্ছেন।

খবরে জানানো হয়, নেতানিয়াহুর একাধিক ঘনিষ্ঠ সূত্র গান্টজকে প্রস্তাবে প্রথম তিন বছর প্রধানমন্ত্রিত্বের দায়িত্বের কথা জানায়। এই সময় নেতানিয়াহু সাধারণ নেসেট সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার রাতে সর্বশেষ পাঠানো প্রস্তাবে নেতানিয়াহু গান্টজকে জানান, গান্টজ রাজি হলে তিনি পরদিন সকালেই পদত্যাগ করতে প্রস্তুত আছেন।

২০০৯ থেকে টানা ১২ বছর ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে রক্ষণশীল লিকুদ দলের প্রধান বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। নেতানিয়াহু তাকে ক্ষমতাচ্যুত করে লাপিদ-বেনেতের জোট সরকার গঠনের প্রচেষ্টার বিরোধিতা করে আসছেন। তিনি একে নির্বাচনী জালিয়াতি হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

ইসরাইলে সরকার গঠনের নাটকিয়তার মধ্যেই ১২ বছরের ক্ষমতাসীন বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগে মামলার শুনানি চলছে। মার্চে নির্বাচনের কারণে স্থগিত থাকার পর এপ্রিলে এই শুনানি আবার শুরু হয়।

২০১৯ সালে গঠিত নেতানিয়াহুর বিরুদ্ধে করা দুর্নীতির এই মামলার অভিযোগে বলা হয়, সম্পদশালী বন্ধুদের কাছ থেকে উপহার ও মিডিয়া টাইকুনদের কাছে প্রশংসামূলক কভারেজের বিনিময়ে তিনি তাদের অনৈতিক সুবিধা দিয়েছেন। নেতানিয়াহু এই অভিযোগ অস্বীকার করছেন।

ইসরাইলে চলমান রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতায় গত ২৩ মার্চ দুই বছরের মধ্যে চতুর্থ সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু এই নির্বাচনেও কোনো দল বা জোট নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে ব্যর্থ হয়।

দেশটিতে সরকার গঠনের জন্য ১২০ আসনবিশিষ্ট আইন পরিষদ নেসেটের ৬১ সদস্যের সমর্থনের প্রয়োজন হয়।

প্রথম দফা আলোচনার পর নেসেটের ৫২ সদস্য প্রধানমন্ত্রী পদে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সুপারিশ করায় এপ্রিলের শুরুতে তাকে সরকার গঠনের জন্য প্রথম মনোনয়ন দেন রিভলিন। সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জিত না হলেও ওই সময় এটিই ছিল সর্বোচ্চ মনোনয়ন।

কিন্তু সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে নেতানিয়াহুকে সমর্থন করা জিউনিস্ট পার্টি কোনো আরব দলের সাথে সরকার গঠনের অস্বীকৃতি জানানোয় তিনি সরকার গঠনে ব্যর্থ হন।

নেতানিয়াহুর ব্যর্থতার পর ৫ মে নতুন করে নেসেট সদস্যদের সাথে আলোচনা করেন প্রেসিডেন্ট রিভলিন। নতুন আলোচনায় রক্ষণশীল ইয়ামিনা পার্টির প্রধান নাফতালি বেনেতের সাথে ক্ষমতা ভাগাভাগির এক প্রস্তাবনার পরিপ্রেক্ষিতে মোট ৫৬ সদস্যের সুপারিশ পান ইয়েশ আতিদ দলের প্রধান ইয়ায়ির লাপিদ।

২ জুন সরকার গঠনে নির্ধারিত সময়সীমা শেষ হওয়ার সামান্য আগে ইয়ায়ির লাপিদ সরকার গঠনের ঘোষণা দেন। নাফতালি বেনেত ছাড়া অন্য আরো ছয়টি দলের প্রধানের সাথে সমঝোতার ভিত্তিতে নতুন সরকার গঠনের এই ঘোষণা দেন তিনি।

সমঝোতা অনুসারে ইসরাইলের নতুন গঠিত হতে যাওয়া সরকারের প্রথম দফায় বেনেত প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন। পরে ইয়ায়ির লাপিদ তার কাছ থেকে সরকারের নেতৃত্বের দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।

সূত্র : জেরুসালেম পোস্ট



আরো সংবাদ


হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টির পূর্বাভাস বঙ্গবন্ধুর খুনী রাশেদ চৌধুরীকে যুক্তরাষ্ট্র ফেরত দিবে বলে আশাবাদী বাংলাদেশ : পররাষ্ট্রমন্ত্রী আফগান ইস্যুতে বাতিল সার্ক বৈঠক প্রধানমন্ত্রীর সাথে দ্বি-পক্ষীয় সহযোগিতা নিয়ে রোডম্যাপ তৈরির প্রস্তাব কুয়েতের বাউল শিল্পীকে মাথা ন্যাড়া, স্কুল শিক্ষকসহ আটক ৩ সিনহা হত্যা : তৃতীয় দফায় তৃতীয় দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ চলছে কুষ্টিয়ার আড়ুয়াপাড়া এলাকায় নির্মাণাধীন মণ্ডপে প্রতীমা ভাঙচুর সুদানে অভ্যুত্থান প্রচেষ্টার নিন্দা জাতিসঙ্ঘ মহাসচিবের সিলেটে করোনায় আরো ২ জনের মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৩৯ পাথরঘাটায় পারিবারিক কলহের জেরে যুবকের আত্মহত্যা দ্বিতীয় দিনের মতো বেনাপোল থেকে সব ধরণের পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ

সকল