০৮ মে ২০২১
`

ইরানের সাথে পরমাণু আলোচনায় অগ্রগতি হচ্ছে : জার্মানি

ভিয়েনায় দ্বিতীয় দিনের আলোচনা শেষে ভেন্যু ছাড়ছেন ইরানি পররাষ্ট্র উপমন্ত্রী আব্বাস আরাগচি - ছবি : মিডল ইস্ট মনিটর/ আনাদোলু এজেন্সি

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় ইরানের সাথে বিশ্বশক্তির চলমান আলোচনায় অগ্রগতি হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন জার্মানির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র এক কর্মকর্তা। সোমবার বার্লিনে এক সংবাদ সম্মেলনে ওই কর্মকর্তার মন্তব্যের বরাত দিয়ে খবর জানায় আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

সংবাদ সম্মেলনে জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া অ্যাডেবার বলেন, 'আলোচনার কোনো গোপন তথ্য আমি আপনাদের জানাতে পারছি না, তবে এতটুকু বলতে পারি আমাদের অগ্রগতি হচ্ছে।'

পরমাণু বিরোধ নিয়ে আলোচনায় দুই পক্ষই 'মিমাংসার পথে' থাকবে বলে প্রত্যাশা জানান মারিয়া অ্যাডেবার।

শনিবার থেকে অস্ট্রিয়ার ভিয়েনায় নতুন করে জয়েন্ট কমপ্রেহেনসিভ প্লান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) শীর্ষক চুক্তি চালু করতে ইরানের সাথে দ্বিতীয় দফায় আলোচনা শুরু হয়েছে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) মধ্যস্থতায় ইরানের সাথে এই আলোচনায় চীন, রাশিয়া, জার্মানি, ফ্রান্স ও ব্রিটেন অংশ নিয়েছে।

২০১৫ সালে ইউরোপীয় ইউনিয়নের মধ্যস্থতায় ভিয়েনায় ইরানের সাথে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স ও জার্মানি পরমাণু চুক্তি স্বাক্ষর করে। জয়েন্ট কম্প্রেহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন বা সংক্ষেপে জেসিপিওএ নামে পরিচিত এই চুক্তির অধীনে যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ওপর থেকে সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়। এর বিনিময়ে ইরান তার পরমাণু কর্মসূচি সীমিত করতে সম্মত হয়।

সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮ সালে চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে বের করে নিয়ে ইরানের ওপর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা দেন। যুক্তরাষ্ট্রের কঠোর নিষেধাজ্ঞার পরিপ্রেক্ষিতে ইরান চুক্তি থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়ে সীমিত পরমাণু কর্মসূচি জোরদার করে।

বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন চুক্তি পুনরুজ্জীবিত করার ইচ্ছা প্রকাশ করলেও তিনি জানিয়েছেন, ইরানকে আগে তার পরমাণু কর্মসূচি থেকে সরে আসতে হবে। অপরদিকে ইরান আগে দেশটির ওপর থেকে সব নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের দাবি করছে।

সূত্র : মিডল ইস্ট মনিটর



আরো সংবাদ