০৩ মার্চ ২০২১
`

ইসরাইলি কারাগারে বন্দি ফিলিস্তিনিদের ভ্যাকসিন দিতে নারাজ কর্তৃপক্ষ

ইসরাইলি কারাগারে বন্দি ফিলিস্তিনিদের ভ্যাকসিন দিতে নারাজ কর্তৃপক্ষ - সংগৃহীত

ইসরাইলি কারাগারে আরো সাতজন ফিলিস্তিনি বন্দি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিন প্রিজনার সোসাইটি (পিপিএস)। এনজিওটি বৃহস্পতিবার তথ্যটি নিশ্চিত করেছে।

একটি বিবৃতিতে তারা জানিয়েছে, দক্ষিণ ইসরাইলের রিমন কারাগারের ৪র্থ সেকশনে নতুন করে সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। যেখানে কমপক্ষে ৯০ জন বন্দি রয়েছেন। মোট ২১ জনের কোভিড-১৯ পরীক্ষা করা হয়েছে যাদের মধ্যে সাতজন বন্দির রিপোর্টের ফলাফল পজিটিভ এসেছে। বাকি বন্দিরা তাদের ফলাফলের অপেক্ষায় আছেন।

পিপিএসের গবেষক ফিদা নাজাদা আনাদোলু এজেন্সিকে জানিয়েছেন, ২০২০ সালের মার্চ থেকে এখন পর্যন্ত ফিলিস্তিনি বন্দিদের মধ্যে সংক্রমণের সংখ্যা বেড়ে ১৯৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

পিপিএস জানিয়েছে, ওই কারাগারে ৪৩ জন বন্দি ইতোমধ্যে বিভিন্ন রোগে ভুগছেন এবং তাদের মধ্যে কমপক্ষে চারজনের বয়স ৬০ বছরের বেশি। বন্দিদের এই জীবনদশার জন্য ইসরাইলি দখলদারদের দায়ী করেছে এনজিওটি।

এদিকে ইসরাইলের জন নিরাপত্তামন্ত্রী আমির ওহানা ফিলিস্তিনি বন্দিদের করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। ফিলিস্তিনি সংগঠনগুলো একে 'বর্ণবাদ' বলে অভিহিত করেছে।

সংস্থাটির ধারণা অনুযায়ী, ইসরাইলের কারাগারে চার হাজার ৪০০ জন ফিলিস্তিনি রয়েছেন। যার মধ্যে ৪১ জন নারী, ১৭০ জন শিশু। অথচ ইসরাইল প্রশাসনের আটক নীতিমালা অনুযায়ী ৩৮০ জন বন্দি রাখার অনুমতি রয়েছে।
সূত্র : ইয়েনি সাফাক



আরো সংবাদ