০৯ আগস্ট ২০২০

করোনায় ইরানের অর্থনীতি বন্ধ রাখা আর সম্ভব নয় : রুহানি

24tkt

করোনাভাইরাসে মধ্যপ্রাচ্যের মধ্যে সবচেয়ে মারাত্মক প্রভাব ও ক্রমবর্ধমান সংক্রমণের পরও ইরান তার অর্থনৈতিক কার্যক্রম আর বন্ধ রাখতে পারবে না বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

টেলিভিশনে ভাইরাস টাস্কফোর্সের এক বৈঠককালে বলেছেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই ইরানে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে।

তিনি আরো বলেন, এ অবস্থায় সব থেকে সহজ সমাধান হলো সমস্ত কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া। কিন্তু এতে পরের দিনই, মানুষ ক্ষুধা, কষ্ট ও চাপে প্রতিবাদ ও বিশৃঙ্খলা শুরু করবে।
ফেব্রুয়ারির শেষের দিকে থেকেই দেশটি করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে।

করোনা মহামারিতে ইরানে এখন পর্যন্ত ১২ হাজার ৪০০ জনেরও বেশি মানুষ মারা গেছে ও দুই লাখ ৫২ হাজারের বেশি আক্রান্ত হয়েছে। গত বৃহস্পতিবারও করোনায় ২২১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এই মহামারি ঠেকাতে দেশটি মার্চ মাসে স্কুল বন্ধ করে দেয়াসহ সকল জনসমাগম অনুষ্ঠান বাতিল করে দিয়েছিল।

এছাড়াও ৩১ টি প্রদেশের মধ্যে চলাচল নিষিদ্ধ করে দেয়। তবে রুহানি সরকার এপ্রিল থেকে নিষেধাজ্ঞাগুলো প্রত্যাহার করে পুনরায় ধীরে ধীরে সব খোলার সিদ্ধান্ত নেয়।

এদিকে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্থ প্রদেশগুলোতে নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা নিয়ে পুনরায় সব খোলার অনুমতি দেয়া হবে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৮ সালে ইরানের সাথে পারমাণবিক চুক্তি থেকে সরে আসায় ও নিষেধাজ্ঞা জারি করায় ইরানকে তীব্র অর্থনৈতিক মন্দার শিকার হতে হয়েছে।

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল মতে, এ বছর ইরানের অর্থনীতি ছয় শতাংশ নীচে নেমে যাবে।

এ অবস্থায় রুহানি জোর দিয়ে বলেন, দীর্ঘমেয়াদে ব্যবসা ও অর্থনৈতিক কার্যক্রম বন্ধ রাখা সম্ভব নয়। জনগণ এটি মেনেও নেবে না।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী সাইদ নামাকী বুধবার সম্ভাব্য দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ সম্পর্কে সতর্ক করেছেন। একইসাথে সরকারি অর্থ সঙ্কটের জন্য মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে দায়ী করেছেন।

সূত্রঃ আল আরাবিয়া


আরো সংবাদ