২২ অক্টোবর ২০২০, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর ১৪৩৯

জাতীয় সরকার

-

বাংলাদেশসহ সমগ্র পৃথিবী করোনার ছোবলে পড়ার কারণে গত দেড় মাস ধরে যে আমাদের দেশে লকডাউন চলছে। এতে অসহায় দিনমজুর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা তাদের ঘরে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন। সারা দেশে অসহায় মানুষগুলোর আয় উপার্জন বন্ধ হওয়ায় সরকার ১০ টাকা কেজি চাল বিতরণ আর ৫০ লাখ মানুষের জন্য রেশন বিতরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। এই চাল আর ত্রাণ বিতরণেও চলছে দুর্নীতি।
সঙ্কটজনক পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকার ব্যর্থ হয়েছে বলে অনেকে অভিযোগ করেছেন। তাই বিশিষ্ট প্রকৌশলী, সর্বজন বিপ্লবী দলের আহ্বায়ক, পানি ও নগর বিশেষজ্ঞ ম. ইনামুল হক আমাদের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা সরকারকে সব রাজনৈতিক দল, বিশেষজ্ঞ আর পেশাজীবীদের নিয়ে জাতীয় সরকার গঠনের দাবি জানিয়েছেন।
ম. ইনামুল হকের জাতীয় সরকার গঠনের প্রস্তাবটি অত্যন্ত যুক্তিসঙ্গত ও সময়ের দাবি। তিনি মনে করেন, জাতীয় সরকার হবে ২১ সদস্যবিশিষ্ট।
বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণসহ করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে একা কাজ করা সম্ভব নয় বলে অনেকেই মনে করছেন।
সম্প্রতি বিএনপি মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর করোনা মোকাবেলায় সব রাজনৈতিক দল, বিশেষজ্ঞ, সেনাবাহিনী, আইনশৃঙ্খলাবাহিনী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি নিয়ে জাতীয় টাস্কফোর্স, সেন্ট্রাল ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য নাগরিকদের নিয়ে নাগরিক কমিটি গঠন এবং বাম নেতারা সমন্বিত কমিটি গঠন করার কথা বলেছেন। তারা বলেছেন, একলা চলো নীতি পরিহার করে সমন্বিত কমিটি করতে। বিষয়টি একই।
তাই দুর্নীতি ও অনিয়ম বন্ধ আর করোনার প্রাদুর্ভাব থেকে দেশকে রক্ষা করতে এই মুহূর্তে জাতীয় সরকার গঠন করা একান্ত প্রয়োজন। জাতীয় সরকার পারবে ভয়াবহ এই দুর্যোগ থেকে জাতিকে কার্যকর সহযোগিতা করতে আশা করা যায়। তাই প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাকে জাতীয় সরকার গঠনের বিষয়টি এখনই বিবেচনা করা উচিত।
মোহাম্মদ ইয়ামিন খান
শ্যামলী, ঢাকা


আরো সংবাদ