১৬ মে ২০২২
`
হজরত আলীর সাথে ইহুদির দ্বন্দ্ব

বিচারকের যে রায়ে মুগ্ধ হয়ে মুসলিম হন ইহুদি


 হজরত আলী রা. নিজের শাসনামলে দারুল খিলাফাহ কুফায় সরিয়ে আনেন। সে সময় একটি ঘটনা ঘটে। একবার তার একটি পাত্র হারিয়ে যায়। কয়েকদিন পর দেখা গেল একজন ইহুদির হাতে সেই পাত্র। ইহুদিকে বলা হলো, পাত্র ফেরত দিতে, কিন্তু সে দাবি করে এই পাত্রের মালিক সে নিজে। বাধ্য হয়ে হজরত আলী রা. কাযী (বিচারক) শুরাইহ বিন হারিস রহ.- এর আদালতে মামলা করেন।

আদলতে ইহুদি ও হজরত আলী রা. উপস্থিত হন। কাযী শুরাইহ ইহুদিকে জিজ্ঞেস করেন, ‘এই পাত্র কার?’ ‘আমার’ ইহুদি জবাব দেয়।

কাযী শুরাইহ এবার হজরত আলী র.-কে বললেন, আপনার কাছে কী প্রমাণ আছে যে, এটি আপনার?

হজরত আলী বললেন, আমার ছেলে হাসান জানে এটি আমার। আমার একজন দাসও এর ব্যাপারে জানে। কাযী শুরাইহ বললেন, দাসের সাক্ষ্য গ্রহণযোগ্য তবে আপনার ছেলে হাসানের সাক্ষ্য নেয়া হবে না।

হজরত আলী বললেন, আপনি কি হাদীস শোনেননি, নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, হাসান ও হুসাইন জান্নাতি পুরুষদের সর্দার! কাযী শুরাইহ বললেন, হাদীসটি জানি। তবে আপনার জন্য আপনার ছেলের সাক্ষ্য গ্রহণযোগ্য হবে না।

সাক্ষ্য-প্রমাণের জন্য দুজন সাক্ষী দরকার, কিন্তু হজরত আলী রা. নিজের দাস ছাড়া আর কারো সাক্ষী জোগাড় করতে পারলেন না। কাযী শুরাইহ ইহুদির পক্ষে রায় দিলেন।

কাযী শুরাইহর রায় শুনে ইহুদি অত্যন্ত অবাক হলো। সে বলল, আসলে এই পাত্রের মালিক হজরত আলী রা.। আমি পথে কুড়িয়ে পেয়েছি। তবে আপনাদের বিচার দেখে আমি অবাক হয়েছি। যে ধর্মে একজন শাসকের বিরুদ্ধে রায় দেয়া হয় এবং একজন বিধর্মীর পক্ষে রায় দেয়া হয়, ইনসাফ প্রতিষ্ঠার স্বার্থে সেই ধর্মই সত্য ধর্ম। এই কথা বলে সে তখনই কালিমা পড়ে ইসলাম গ্রহণ করে। হজরত আলী রা. খুশি হয়ে তাকে সেই পাত্রটি উপহার দেন।

শিক্ষা-
একজন কাযীর শুধু বিধান জানলেই হয় না। তার বিচক্ষণতাও থাকতে হয়। অনেক সময় এমন সব মামলা আসে যেখানে শুধু বিধানের ওপর নির্ভর করার সুযোগ থাকে না। নিজের বুদ্ধিমত্তাও খাটাতে হয় সেখানে। কাযী শুরাইহর মাঝে এই গুণ শতভাগ ছিল। বিভিন্ন মামলায় তিনি নিজের অসাধারণ বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দেন।

সূত্র : ইমরান রাইহান রচিত ‘সালাফের জীবন থেকে’, পৃষ্ঠা: ৩৭


আরো সংবাদ


premium cement
রাশিয়ার হামলা ঠেকাতেই নদীর বাঁধ কাটলেন গ্রামবাসী শিগগিরই একটি কার্যকর যুদ্ধের ঘোষণা আসবে : ছাত্রদল সম্পাদক বাজার নিয়ন্ত্রণ নয়, স্থিতিশীল রাখতে চায় সরকার : বাণিজ্যমন্ত্রী আল-জাজিরার সাংবাদিক শিরিন আকলেহকে হত্যার নিন্দা বাংলাদেশের দেশ দ্রুতগতিতে দেউলিয়াত্বের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে : রিজভী সম্রাটের উন্নত চিকিৎসা দরকার : বিএসএমএমইউ টিটিই শফিকুল নির্দোষ : তদন্ত কমিটি ৪৯ ডিগ্রি তাপমাত্রায় পুড়ছে দিল্লি এসডিজি বাস্তবায়নে অর্থের সর্বোত্তম ব্যবহার করুন : প্রধানমন্ত্রী নাঈমের পর সাকিবের জোড়া আঘাত, স্বস্তি টাইগার শিবিরে এশিয়া-আফ্রিকার পার্লামেন্টে বলতে চান জেলেনস্কি

সকল