০৯ মে ২০২১
`
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠক

আলেম-উলামাদের মুক্তি ও মাদরাসা খুলে দেয়ার দাবি হেফাজতের

আলেম-উলামাদের মুক্তি ও মাদরাসা খুলে দেয়ার দাবি হেফাজতের - ছবি - সংগৃহীত

নেতা-কর্মীদের অব্যাহত গ্রেপ্তারের মধ্যে তৃতীয়বারের মতো স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সাথে তার বাসায় বৈঠক করে আলেম-উলামাদের মুক্তি ও মাদরাসা খুলে দেয়াসহ চার দফা দাবি করেছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ।

হেফাজতের সদ্য সাবেক কমিটির মহাসচিব নূরুল ইসলাম জিহাদীর নেতৃত্বে ১০ সদস্যের প্রতিনিধি দলটি মঙ্গলবার রাত সোয়া ৯টার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমন্ডির বাসভবনে প্রবেশ করে।

প্রায় তিন ঘণ্টা বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসা থেকে বেরিয়ে আসেন নেতারা। এর পর গণমাধ্যমকর্মীদের সাথে কথা বলেন নূরুল ইসলাম জিহাদী। তিনি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠককালে তাদের দাবি উত্থানের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, মন্ত্রীর কাছে হেফাজতের পক্ষ থেকে চার দফা দাবি জানানো হয়েছে। এগুলো হলো:

১. হেফাজতের গত আন্দোলনকে কেন্দ্র করে সারা দেশে গ্রেপ্তার আলেম-উলামা ও ধর্মপ্রাণ সাধারণ মুসলিমদের দ্রুত মুক্তি ব্যবস্থা করা।

২. দেশব্যাপী গ্রেফতার অভিযান এখনো অব্যাহত আছে, ফলে পবিত্র রমজান মাসে ইবাদত বন্দেগি করতে না পেরে আজনা আতঙ্কে দিন পার করছেন আলেম-উলামা ও সাধারণ ধর্মপ্রাণ মানুষ। আপনার কাছে আবেদন গ্রেফতার আতঙ্ক ও হয়রানি থেকে তাদের মুক্তি দেয়া। বিশেষ করে চট্টগ্রামের হাটহাজারী ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গণগ্রেফতার চলছে, এতে সাধারণ মানুষ আতঙ্কে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। পবিত্র রমজান মাসে আলেম-উলামা ও সাধারণ ধর্মপ্রাণ মানুষের হয়রানি বন্ধ করতে আপনার নিকট বিশেষ অনুরোধ জানাচ্ছি।

৩. ২০১৩ সালে হেফাজতের নেতা-কর্মীদের নামে যেসব মামলা হয়েছিল, সেগুলো প্রত্যাহতার করা।

৪. বর্তমান পরিস্থিতিতে কোরআন হাদিসের শিক্ষাকেন্দ্র কওমি মাদরাসা গুলো সরকারি নির্দেশে বন্ধ রয়েছে। আল্লাহর রহমত পাওয়ার জন্য সেগুলো খুলে দেয়ার ব্যবস্থা করা।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নূরুল ইসলাম জিহাদী আরো বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাদের আশ্বস্ত করেছেন। তবে এ বিষয়ে বিস্তারিত আর কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি।

এর আগে ১৯ এপ্রিল ও ২৬ এপ্রিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করে হেফাজতের প্রতিনিধি দল।



আরো সংবাদ