০৪ মার্চ ২০২১
`

রাজধানীতে বৃদ্ধাকে নির্যাতন : সেই গৃহকর্মী স্বামীসহ রিমান্ডে

সত্তরোর্ধ্ব গৃহকর্ত্রীকে নির্যাতনের ঘটনায় গৃহকর্মী রেখাকে রিমান্ডে দিয়েছে আদালত - ছবি : সংগৃহীত

রাজধানীর মালিবাগে সত্তরোর্ধ্ব গৃহকর্ত্রীকে নির্যাতনের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গৃহকর্মী রেখা আক্তার ও তার স্বামী ফরহাদ এরশাদের আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শুক্রবার তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম মাসুদ উর রহমান প্রত্যেকের আট দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ড আবেদনে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলেন, ‘আসামি রেখা মামলার বাদি মেহেবুবার বাসায় দীর্ঘ দিন যাবৎ কাজের মেয়ে হিসেবে কাজ করে আসছেন। আসামি রেখা ও তার স্বামী পরিকল্পনা করে বাসা ফাঁকা থাকার সুবাদে গত ১৮ জানুয়ারি সকালে বাদির মা বিলকিস বেগমকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর করে গুরুতর জখম করে। এ সময় ২৪ ভরি স্বর্ণালংকার, নগদ দুই লাখ টাকা এবং একটি টেলিভিশন চুরি করে নিয়ে যায়। এ মামলার ঘটনা অত্যন্ত লোমহর্ষক ও চাঞ্চল্যকর। মামলার ভিকটিম বিলকিস বেগম (৭৫) গুরুতর মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন।’

তিনি আবেদনে আরো বলেন, ‘‌আসামিদের কাছ থেকে আংশিক চোরাই মালামাল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ ইলেট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় ব্যাপকভাবে আলোচিত ও ভাইরাল হয়। মামলার সুষ্ঠু তদন্ত, অবশিষ্ট চোরাই মালামাল উদ্ধার এবং মামলার মূল রহস্য উদঘাটন ও সংঘবদ্ধ চক্রের অপরাপর চোরদলের সদস্যদের ধরতে অভিযান পরিচালনার জন্য আসামিদের ১০ দিনের পুলিশ রিমান্ডে নিয়ে নিবিড়ভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা একান্ত প্রয়োজন।’

মালিবাগের এক বাড়ির দ্বিতীয় তলার ফ্ল্যাটে গত ১৮ জানুয়ারি বৃদ্ধাকে নির্যাতনের ওই ঘটনা সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়ে। টেলিভিশনে খবর প্রকাশের পর সেই ভিডিও পরে দ্রুত ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে।

ঘটনার পর ২০ জানুয়ারি ভোরে ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল ও বালিয়াডাঙ্গি থানার সীমান্তবর্তী কাশিপুর এলাকা থেকে রেখাকে গ্রেফতার করা হয়।



আরো সংবাদ