০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

মিরসরাইয়ে যুবলীগ কর্মীকে গলা কেটে হত্যা

-

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে শহিদুল ইসলাম আকাশ (২৮) নামে এক যুবলীগ কর্মীকে প্রকাশ্যে জনসম্মুখে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে এলাকায়। গত সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার হিঙ্গুলী ইউনিয়নের চিনকির হাটে নিজ মালিকানাধীন দোকান থেকে টেনে বাইরে এনে প্রকাশ্য কুপিয়ে এবং পরে গলা কেটে তাকে হত্যা করা হয়। সে উপজেলার ২নং হিঙ্গুলী ইউনিয়ন যুবলীগ কর্মী। হামলার পর রাত ৯টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় আকাশ। সে ইসলামপুর গ্রামের মানত মিঝি বাড়ির নুরুল ইসলামের একমাত্র ছেলে। পুলিশের দাবি, স্থানীয় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে মামুন বাহিনীর প্রধান মামুন আকাশকে কুপিয়েছে।
গতকাল মঙ্গলবার নিহত শহিদুল ইসলাম আকাশের বাবা নুরুল ইসলাম জানান, তার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। সন্ত্রাসী মামুনের নেতৃত্বে ইকবাল, মোতালেবসহ কয়েকজন মিলে তার ছেলেকে খুন করেছে।
গতকাল মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত এ ঘটনায় কোনো মামলা হয়নি ও হামলার সাথে জড়িত কাউকে গ্রেফতার করা যায়নি বলে জানান জোরারগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) খায়রুল আলম। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার বিকেলে শহিদুল ইসলাম আকাশের লাশের নামাজে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।
হিঙ্গুলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুল ইসলাম জানান, শহিদুল ইসলাম আকাশ রাজনৈতিক কোনো পদ পদবিতে না থাকলে ও ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি হিঙ্গুলী ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ প্রত্যাশী ছিলেন।
হিঙ্গুলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোনা মিয়া জানান, আমি খুনের ঘটনা সম্পর্কে সঠিক এখনো জানি না। আমার এলাকায় সন্ত্রাসী নেই। বারইয়ারহাটকেন্দ্রিক কিছু ছেলে নানা অপকর্মের সাথে জড়িত। কে জড়িত পুলিশ তদন্ত করে বের করবে।
জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ নূর হোসেন মামুন বলেন, হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় এখনো পরিবারের তরফ থেকে মামলা দায়ের করেনি। কাউকে আটকও করা যায়নি। তবে এ ঘটনার সাথে জড়িত এমন কয়েকজনের পরিচয় চিহ্নিত করা গেছে।
ওসি বলেন, মামুনের বিরুদ্ধে থানায় ডাকাতি, চাঁদাবাজি, নারী-নির্যাতনসহ ১০টি মামলা রয়েছে।

 


আরো সংবাদ


premium cement