০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ৪ জিলহজ ১৪৪৩
`
মতবিনিময় সভায় বায়রার সাবেক নেতা রুহুল আমিন স্বপন

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজের আর সুযোগ নাই

-

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে সব রিক্রুটিং এজেন্সির মালিক মিলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আর সুযোগ নাই। ঐক্য হতে অনেক চেষ্টা করেছি। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। এখন আর মনে হয় হবে না। হয় উনি ব্যবসা করবেন, না হয় আমরা। আমাদের পক্ষে তো ৫০০ রিক্রুটিং এজেন্সি আছেই।
গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ঢাকার হোটেল সোনারগাঁওয়ের বলরুমে বায়রা সম্মিলিত গণতান্ত্রিক জোট আয়োজিত ‘বৈদেশিক কর্মসংস্থান বৃদ্ধি ও বন্ধ শ্রমবাজার উন্মুক্তকরণে করনীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভা শেষে এক প্রশ্নের উত্তরে বায়রার সাবেক মহাসচিব রুহুল আমিন স্বপন এভাবেই নয়া দিগন্তের কাছে তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন।
বায়রার সাবেক সিনিয়র সহসভাপতি শফিকুল আলম ফিরোজের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বায়রার সাবেক সভাপতি ও জাতীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজির আহমেদ, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ, ফেনী জেলার সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী, সংসদ সদস্য ও সাবেক রাষ্ট্রদূত লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব:) মাসুদ উদ্দিন চৌধুরী, সেন্টার ফর এনআরবির চেয়ারপারসন এম এস শাকিল চৌধুরী, হাবের প্রেসিডেন্ট এম শাহাদাৎ হোসেন তসলিম, বায়রার সাবেক মহাসচিব ও সাবেক আটাব সভাপতি মুনসুর আহমেদ কালাম প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বায়রার বেশ কিছু সাধারণ সদস্যও বক্তব্য রাখেন।
বক্তারা মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার দ্রুত খুলে দেয়ার জন্য প্রধান অতিথির হস্তক্ষেপ কামনা করেন। একই সাথে তারা বাজারটি বন্ধ রাখতে নুর আলী গংসহ যারা এখনো নানাভাবে ষড়যন্ত্র করছেন তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণেরও দাবির কথা জানান।
বায়রা সিন্ডিকেটবিরোধী মহাজোটের পক্ষ থেকে রুহুল আমিন স্বপনকে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারে ২৫ সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা হিসেবে দাবি করা হচ্ছে। এর পর থেকে দুইপক্ষই মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার নিয়ে পক্ষ বিপক্ষে সংবাদ সম্মেলন, মতবিনিময় ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছেন।
আগামী ২ জুন মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার খোলার বিষয়ে চূড়ান্ত ফয়সালা হওয়ার কথা রয়েছে। এ দিন ঢাকায় দুই দেশের যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক ডাকা হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত সিন্ডিকেট করে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর বিরুদ্ধেই অবস্থান নিয়ে আছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ। সবাইকে ব্যবসা করার সুযোগ দেয়ার পক্ষে তিনি।
শ্রমবাজার খোলা প্রসঙ্গে রুহুল আমিন স্বপনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আশা করছি ২ জুন মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার খোলার বিষয়ে যৌথ কমিটির বৈঠকে একটা পজিটিভ খবর পাবো আমরা। এর আগে তিনি তার বক্তব্য বলেন, যে প্রক্রিয়ায় হোক মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারটি খোলা দরকার আমাদের।
তবে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি তার বক্তব্য সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে শ্রমবাজার খোলার বিষয়ে মতামত তুলে ধরেন। এ বিষয়ে রুহুল আমিন স্বপনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি নয়া দিগন্তকে শুধু বলেন, এ নিয়ে তো অনেক চেষ্টা করা হয়েছে। হয়নি। এখন আর ঐক্যর কি আছে? হয় উনি (নুর আলী) করবেন, না হয় আমরা করব। এটাই এখন কথা।


আরো সংবাদ


premium cement