২৫ অক্টোবর ২০২১, ৯ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরি
`

অবসরে যাচ্ছেন ৭ সচিব চলছে নানা তদবির

৩ সচিবের পদ শূন্য, চুক্তিভিত্তিক ১০ জন; পদোন্নতিতে মন্ত্রী, এমপিদের তদবির
-

বর্তমানে জনপ্রশাসনে সরকারের সচিব বা সচিব ও তদূর্ধ্ব পদমর্যাদার কর্মকর্তা রয়েছেন ৮১ জন। এর মধ্যে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেয়েছেন ১০ জন। এরই মধ্যে অবসরে চলে যাওয়ায় সচিবের তিন পদে কোনো কর্মকর্তা নেই। আগামী তিন মাসে অবসরে যাবেন আরো সাতজন। বছর শেষে সব মিলিয়ে সচিবের ৯টি পদ ফাঁকা হচ্ছে। কাছাকাছি সময়ে একসাথে এত পদ ফাঁকা হতে যাচ্ছে বলে প্রভাব পড়েছে জনপ্রশাসনে। একই সাথে শূন্য হতে যাওয়া এসব পদ পাওয়া নিয়ে চলছে হিসাব-নিকাশ। অবসরের সময় হওয়া কোনো কোনো সচিব চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেতে চেষ্টা করছেন। তবে একটি পক্ষ এই চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের বিরোধিতা করছে। এই পক্ষের কর্মকর্তারা নিজেরাই সচিব হওয়ার দৌড়ে আছেন। দশম ব্যাচের কর্মকর্তাদের রেখেই ১১তম ব্যাচের কয়েকজন কর্মকর্তা সচিব হতে সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে চেষ্টা করছেন। সচিব পদে পদোন্নতির জন্য অনৈতিকভাবে তদবির করছেন মন্ত্রী-এমপিরা। তারা আধা-সরকারি পত্র (ডিও) দিয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর কাছে তদবির করছেন।
এই বিষয়ে জানতে চাইলে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নীতি অনুযায়ী, যারা যোগ্য, তাদের প্রমোশন নিয়মিত হয় এবং সে অনুযায়ী পদায়ন হয়। চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ কমানো এবং সেই নীতির ওপর আমরা এখনো চলমান আছি। এরপরেও আমাদের দু-একটি ক্ষেত্রে স্পেশালাইজেশন আছে। যে লোকটি ওই ক্ষেত্রে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং তার অনেক অভিজ্ঞতা আছে, যেমন আমাদের ক্যাবিনেট সেক্রেটারি সাহেব, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তাকে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিয়েছেন। চলমান বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণেও চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়ার প্রয়োজনীয়তা ছিল বলে মনে করেন তিনি।
চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ নিয়ে জনপ্রশাসনের নিয়মিত কর্মকর্তাদের মধ্যে ক্ষোভ থাকলেও বারবার তা উপেক্ষা করা হচ্ছে। সব সরকারের সময়ই কম-বেশি চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়া হয়েছে। বর্তমান সরকারের আমলেও এ ধরনের নিয়োগ অব্যাহত রয়েছে। গত ৯ সেপ্টেম্বর তৃতীয়বারের মতো গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেয়েছেন শহীদ উল্লা খন্দকার।
এ ছাড়াও চুক্তিভিত্তিক নিয়োগে কর্মরত রয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম পিএএ, অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব ও এনবিআর চেয়ারম্যান আবু হেনা মো: রহমাতুল মুনিম, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান (সিনিয়র সচিব) শেখ ইউসুফ হারুন, রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়–য়া, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো: নজরুল ইসলাম, রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: সেলিম রেজা, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মোছাম্মাৎ নাজমানারা খানুম এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান (সচিব) নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা এনডিসি।
এসব উদাহরণ সামনে থাকায় সচিব পদে আর যেন চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ না দেয়া হয়, এ জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন নিয়মিত ব্যাচের কর্মকর্তারা। বিশেষ করে যারা পরবর্তী সচিব হওয়ার দৌড়ে রয়েছেন। সচিবদের অবসরে যাওয়ার বিষয়টি সামনে রেখে এই তৎপরতা আরো বেড়েছে। আগামী তিন মাসের মধ্যে যেসব সচিব অবসরে যাচ্ছেন তাদের মধ্যে জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব মো: আনিসুর রহমান ৩০ ডিসেম্বর, বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশনের চেয়ারম্যান (সচিব) মুনশী শাহাবুদ্দীন আহমেদ ৫ নভেম্বর, কৃষি মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো: মেসবাহুল ইসলাম ৩১ ডিসেম্বর, পরিকল্পনা বিভাগের সচিব জয়নুল বারী ১৫ অক্টোবর, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব নুরুল ইসলাম ২৮ সেপ্টেম্বর, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব আব্দুল মান্নান ১৪ নভেম্বর, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব রওনক মাহমুদ ২৫ অক্টোবর অবসরে যাচ্ছেন।
মন্ত্রী, এমপিদের তদবির : শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত সচিব) নাসির উদ্দিন আহমেদকে সচিব পদে পদোন্নতি দিতে আধা-সরকারি পত্র দিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মন্নুজান সুফিয়ান।
তিনি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনকে লিখেছেন, নাসির উদ্দিন আহমেদ বিগত দিনে সচিবালয় ও মাঠ প্রশাসনের বিভিন্ন পদে অত্যন্ত সুনাম ও দক্ষতার সাথে অর্পিত দায়িত্ব পালন করেছেন। তাকে যেকোনো মন্ত্রণালয়ের সচিব পদে নিয়োগ দিলে তার সততা, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা ও কর্মতৎপরতার মাধ্যমে মন্ত্রণালয়ের সার্বিক কাজে অধিকতর গতিশীলতা আসবে বলে বিশ্বাস করি।
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু বকর সিদ্দিককে সচিব পদে নিয়োগের জন্য আধা-সরকারি পত্র দিয়েছেন ওই মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনকে তিনি লিখেছেন, আমার জানা মতে এই কর্মকর্তা সরকারের সচিব হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সব যোগ্যতা অর্জন করেছেন। আমি দৃঢ়ভাবে আশাবাদী তিনি সরকারের সচিব হিসেবে নিয়োগ পেলে উন্নয়নের মহাসড়কে ধাবমান বাংলাদেশের কাক্সিক্ষত লক্ষ্য অর্জনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে সমর্থ হবেন।
সুরক্ষা ও সেবা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. তরুণ কান্তি শিকদারকে সচিব পদে পদোন্নতি দেয়ার জন্য সুপারিশ করেছেন নেত্রকোনা-৩ আসনের সংসদ সদস্য অসীম কুমার উকিল। পিআরএল শুরু হওয়ার আগে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাসুদ আহমদকে সচিব/গ্রেড-১ প্রদান করতে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীকে পত্র দিয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান।
যদিও ১৯৭৯ সালের সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা অনুযায়ী কোনো সরকারি কর্মচারী তার চাকরি-সংক্রান্ত কোনো বিষয়ে প্রভাব খাটাতে পারেন না। ‘সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালা, ১৯৭৯’-এর ৩০ ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো সরকারি কর্মচারী তাহার চাকরি-সংক্রান্ত কোনো দাবির সমর্থনে প্রত্যক্ষ অথবা পরোক্ষভাবে সরকার বা কোনো সরকারি কর্মচারীর উপর রাজনৈতিক বা অন্য কোন বহিঃপ্রভাব খাটাইতে বা খাটাইবার চেষ্টা করিতে পারিবেন না।’ একই আইনে তদবির করার জন্য সংসদ সদস্যদের কাছে যাওয়ার ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। আইনটির ২০ ধারায় বলা হয়েছে, ‘কোনো সরকারি কর্মচারী কোনো ব্যাপারে তাহার পক্ষে হস্তক্ষেপ করার জন্য সংসদ সদস্য বা অন্য কোনো বেসরকারি ব্যক্তিকে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে অনুরোধ জানাইতে পারিবেন না।’
১৯৫৮ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি জারি করা এক স্মারকেও কোনো সরকারি কর্মচারী তার চাকরি-সংক্রান্ত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার জন্য কোনো মন্ত্রী বা সংসদ সদস্যের কাছে তদবির করতে পারবেন না বলে স্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে।
আগামী বছরের প্রথম ৬ মাসে অবসরে যাবেন যারা : স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ২২ মে, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সচিব) সুলতানা আফরোজ ৯ এপ্রিল, জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন ১২ জানুয়ারি, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো: আবু হেনা মোস্তফা কামাল ৭ ফেব্রুয়ারি, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: মোহসীন এবং ৩০ জানুয়ারি এবং বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন সচিবালয়ের সচিব মোছা: আছিয়া খাতুন অবসরে যাচ্ছেন ৩ জানুয়ারি।

 



আরো সংবাদ


বাংলাদেশ দখলের হুমকি দিয়ে লাভ কার (৫৬২৬১)অভাবের তাড়নায় ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করলেন বিজিবি সদস্য! (১৭৫২২)ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন আন্তর্জাতিক তায়কোয়ান্দোর রেফারি ড. পেটেল (১৫৭৭১)গেইলের প্রয়োজন ৯৭ রান, সাকিবের ১ উইকেট (৯১৫৯)প্রতিরক্ষার মতোই যোগাযোগ অন্যের হাতে রাখতে পারি না : এরদোগান (৬৬৫৫)মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে ব্যাপক সৈন্য সমাবেশ, গণহত্যার আশঙ্কা জাতিসঙ্ঘের (৬৬০৪)ভারতের বিরুদ্ধে দলে যাদের রেখেছে পাকিস্তান (৬৩২১)সিরিয়ায় ইসরাইলি বিমান হামলায় বাধা দিবে না রাশিয়া (৬২২৬)আজ থেকে সুপার লিগ : সুপার টুয়েলভের কখন কোন দলের খেলা (৫৮৭৪)পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহারের বিষয়ে চুক্তির দ্বারপ্রান্তে যুক্তরাষ্ট (৫৭৭৯)