২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭ আশ্বিন ১৪২৮, ১৪ সফর ১৪৪৩ হিজরি
`
ডিএসইর ৩ রেকর্ড

সূচক ও বাজার মূলধন নতুন উচ্চতায়

-

কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যেও সোমবার দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) তিনটি রেকর্ড হয়েছে। বাজার মূলধন ও প্রধান দুটি সূচক লেনদেন শেষে রেকর্ড উচ্চতায় উঠেছে। এর আগে সর্বশেষ গত ১৯ জুলাই বাজার মূলধন রেকর্ড উচ্চতায় উঠেছিল। আর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ২৯ জুলাই ও ডিএসই-৩০ সূচক ২৫ জুলাই রেকর্ড উচ্চতায় ছিল। বাজার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, বেশির ভাগ শেয়ারের মূল্যবৃদ্ধির কারণে এ রেকর্ড হয়েছে। সূচকের পাশাপাশি এদিন লেনদেনেও ছিল বেশ ভালো গতি। তার সুফল দিন শেষে পড়েছে বাজার মূলধন ও সূচকে।
ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স গতকাল ৫৬ পয়েন্ট বা প্রায় ১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৬ হাজার ৪৮২ পয়েন্টে। আর তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর মধ্য থেকে বাছাই করা ৩০ কোম্পানির সমন্বয়ে গঠিত ডিএস-৩০ সূচকটি ১৬ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে দুই হাজার ৩৪৪ পয়েন্টে। ২০১৩ সালের ২৭ জানুয়ারি এ দুটি সূচক চালু হয়েছিল। চালু হওয়ার প্রায় সাড়ে আট বছর পর এসে গতকাল সূচক দুটি সর্বোচ্চ উচ্চতায় উঠেছে।
এ ছাড়া ডিএসইর বাজার মূলধন এক দিনেই তিন হাজার ৪৬৬ কোটি টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৩৭ হাজার ৮৩১ কোটি টাকায়। এটিই ঢাকার বাজারের এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ বাজার মূলধন। ডিএসইর দুটি সূচক ও বাজার মূলধন রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছে যাওয়ায় এখন সূচক দুটি সামান্য বাড়লেই প্রতিদিনই রেকর্ড হবে। আর বড় মূলধনীসহ বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ারের দাম বাড়লে রেকর্ড উচ্চতায় উঠবে বাজার মূলধন।
ডিএসইর তথ্যানুযায়ী, ২০১৭ সালের নভেম্বরে ঢাকার বাজারে প্রধান সূচক ডিএসইএক্স একবার সর্বোচ্চ ছয় হাজার ৩৩৭ পয়েন্টের রেকর্ড উচ্চতায় উঠেছিল। সেখান থেকে কমতে কমতে ২০২০ সালের মার্চে করোনার জন্য সাধারণ ছুটি ঘোষণার আগে সূচকটি সর্বনিম্ন ৩ হাজার ৬০০ পয়েন্টে নেমে গিয়েছিল।
এ অবস্থায় পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নেতৃত্বে বদল আসে। বিএসইসিতে নতুন নেতৃত্ব দায়িত্ব নেয়ার পর গত বছরের জুলাই থেকে বাজার ঊর্ধ্বমুখী ধারায় ফিরে আসে। তাতেই এখন প্রতিদিন রেকর্ড হচ্ছে সূচক ও বাজার মূলধনে। পাশাপাশি প্রায় দুই মাস পর আবারো লেনদেন দুই হাজার ১০০ কোটি টাকা ছাড়িয়েছে। গতাকাল ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণ ছিল প্রায় দুই হাজার ১৮৮ কোটি টাকা, যা গত ১০ জুনের পর সর্বোচ্চ। এর আগে ১০ জুন দুই হাজার ৬৬৯ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছিল।
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই গতকাল বেড়েছে ২২৩ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৭৩ কোটি চার লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩২৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২৩১টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৬৯টির এবং ২৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
ব্লক মার্কেট : সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস সোমবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে ৫৬টি কোম্পানির ৬১ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে ১২টির বড় লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর এক কোটি ৩৯ লাখ ৩১ হাজার ৩১টি শেয়ার ১০৯ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ৬১ কোটি ৮০ লাখ ৭৮ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।
কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৬ কোটি ২৯ লাখ ৭০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে রবি আজিয়াটার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫ কোটি ১৬ লাখ ৯৭ হাজার টাকার সাউথইস্ট ব্যাংকের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৪ কোটি ৯২ লাখ ৪৮ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে ফনিক্স ইন্স্যুরেন্সের। এছাড়া গ্রামীণফোনের ৪ কোটি ৯ লাখ ৪৭ হাজার টাকার, ফরচুন সুজের ৪ কোটি ২ লাখ ৯২ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংকের ৩ কোটি ৯২ লাখ ৩৫ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলের ৩ কোটি ৮২ লাখ ৬৬ হাজার টাকার, এসিআইয়ের ৩ কোটি ১৫ লাখ ৬ হাজার টাকার, নিউ লাইন ক্লোথিংসের ১ কোটি ৬১ লাখ ৫০ হাজার টাকার, ম্যারিকোর ১ কোটি ৪০ লাখ ২৫ হাজার টাকার, কাট্টালি টেক্সটাইলের ১ কোটি ৩৯ লাখ ৬৭ হাজার টাকার এবং ফনিক্স ফাইন্যান্সের ১ কোটি ৩১ লাখ ৬০ হাজার টাকার লেনদেন হয়েছে।

 



আরো সংবাদ


খেলাপিদের বিশেষ সুবিধা আরো এক বছর চায় বিজিএমইএ মুস্তাফিজদের দারুণ বোলিংয়ে রোমাঞ্চকর লড়াই জিতল রাজস্থান সাবমেরিন ইস্যু : ‘ক্রুদ্ধ’ ম্যাক্রঁ কি বেশি ঝুঁকি নিয়ে ফেললেন? গাড়িচালক মালেকের বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন দুদকের আফগানিস্তানে আইপিএলের সম্প্রচার নিষিদ্ধ হার এড়ালো বার্সেলোনা অবৈধ সম্পদ অর্জনের মামলায় নিজেকে নির্দোষ দাবি সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর স্বাস্থ্যের ২৮৩৯ পদে নিয়োগপ্রক্রিয়া বাতিল দুয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া নির্বাচন শান্তিপূর্ণ হয়েছে : ওবায়দুল কাদের মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা শিথিল খালেদা জিয়ার মুক্তি ইস্যুতে আপস করা যাবে না: বিএনপি

সকল