১২ মে ২০২১
`

হেফাজত নেতা জুনায়েদ হাবিব ও মামুনুল হক ফের রিমান্ডে

-

হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সভাপতি আল্লামা জুনায়েদ আল হাবিব এবং কেন্দ্রীয় অপর যুগ্ম-মহাসচিব ও ঢাকা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মামুনুল হককে ফের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদার শুনানি শেষে জুনায়েদ আল হাবিবকে চার দিনের এবং মামুনুল হকের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
আল্লামা জুনায়েদ আল হাবিবকে সাত দিনের রিমান্ড শেষে গতকাল ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় পুলিশ পৃথক তিনটি মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে ফের রিমান্ড আবেদন করে। আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৩ সালের পল্টন থানায় দায়ের করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য জুনায়েদ আল হাবিবকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে ওই মামলায় বিচারক দু’দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। অপর দিকে, চলতি বছরের মার্চ মাসে বায়তুল মোকাররমের ঘটনায় পল্টন থানা পুলিশের দায়ের করা মামলায় তার বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে বিচারক এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। এ ছাড়া চলতি বছরের মার্চ মাসে ওই ঘটনায় আরেক মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তার বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ডের আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে বিচারক ওই মামলায় এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ১৭ এপ্রিল রাজধানীর বারিধারা মাদরাসা থেকে জুনায়েদ আল হাবীবকে পুলিশ গ্রেফতার করে।
মামুনুল হক আবান রিমান্ডে: গতকাল বেলা পৌনে ১২টার দিকে মামুনুল হককে ঢাকা মুখ্যমহানগর হাকিম আদালতে (সিএমএম) নেয়া হয়। ১২টা ৫ মিনিটে মামুনুলকে শুনানির জন্য কাঠগড়ায় তোলা হয়। এ সময় আদালতে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী আব্দুল্লাহ আবু শুনানি করেন। রিমান্ড বাতিল ও জামিন চেয়ে শুনানি করেন মামুনুলের আইনজীবী জয়নুল আবেদীন মেসবাহ।
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে গত ২৬, ২৭ ও ২৮ মার্চ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ হয়। এ সময় সহিংসতা ও নাশকতার অভিযোগ পল্টন থানায় মামলাগুলো করে পুলিশ। ১৮ এপ্রিল গ্রেফতারের পর মামুনুলকে তিন মামলায় ১৪ দিনের রিমান্ডে পায় পুলিশ। ১৯ এপ্রিল মামুনুলকে মোহাম্মদপুর থানায় ভাঙচুরের মামলায় সাত দিন রিমান্ডের আদেশ দেন আদালত। প্রথম দফার রিমান্ডে শেষে ২৬ এপ্রিল মামুনুলকে আদালতে নেয় পুলিশ। সেদিন ২০১৩ সালের ৫ মে শাপলা চত্বরের ঘটনায় মতিঝিল থানায় করা মামলায় তিন দিন এবং মোদিবিরোধী আন্দোলনের সময় ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও নাশকতার ঘটনায় পল্টন থানার করা মামলায় আরো চার দিনের হেফাজতে নেয়ার আদেশ দেন আদালত।



আরো সংবাদ


হামাসের কমান্ডার নিহত (৯৭২৫)চীনের মন্তব্যের জবাবে যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী (৯৫৯১)ইসরাইলি পুলিশের হাতে বন্দী মরিয়মের হাসি ভাইরাল (৭২৬০)বিহারের পর এবার উত্তরপ্রদেশেও নদীতে ভাসছে লাশ (৬৫৮১)‘কোয়াডে বাংলাদেশ যোগ দিলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে’ (৫৮১৫)যৌন অপরাধীর সাথে সম্পর্ক বিল গেটসের! এ কারণেই ভাঙল বিয়ে? (৪৮৬১)উত্তরপ্রদেশে হিন্দু অধ্যুষিত গ্রামের প্রধান হলেন আজিম উদ্দিন (৪৩১৪)নন-এমপিও শিক্ষকরা পাবেন ৫ হাজার টাকা, কর্মচারীরা আড়াই হাজার (৪০৯৪)গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি বিমান হামলায় ৯ শিশুসহ ২০ ফিলিস্তিনি নিহত (৩৮১১)কুম্ভমেলার তীর্থযাত্রীরা ভারতজুড়ে যেভাবে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছে (৩৫৬৯)