২৩ এপ্রিল ২০২১
`

সবাই এক ব্যানারে এসে দেশকে রক্ষা করুন : ভিপি নুর

রাজধানীর শাহবাগে বাংলাদেশ শ্রমিক অধিকার পরিষদের বিক্ষোভ : নয়া দিগন্ত -

বর্তমান সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের জন্য দেশের সব রাজনৈতিক দলকে এক ব্যানারে আসার আহ্বান জানিয়েছেন ডাকসুর সাবেক ভিপি ও বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক নুর। তিনি বলেছেন, আমি রাজনৈতিক দলগুলোকে আহ্বান জানাব- আর ভিন্ন ভিন্ন ব্যানারে নয়। সবাই এক ব্যানারে আসুন, বাংলাদেশকে রক্ষা করুন।
গতকাল শুক্রবার বিকেলে জাতীয় জাদুঘরের সামনে বাংলাদেশ শ্রমিক অধিকার পরিষদ আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। শীর্ষনিউজ
শ্রমিক নেতা নুরুল আমিনসহ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেফতার সবার নিঃশর্ত মুক্তি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
নুর বলেন, বাংলাদেশের জনগণকে বলব- সময় থাকতে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আপনারা পত্রিকায় দেখেছেন কার্টুনিস্ট কিশোরকে কিভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। কেন তাদের গ্রেফতার করা হয়েছিল? কারণ তিনি একটি কার্টুন এঁকেছিলেন। জাতিসঙ্ঘসহ উন্নয়ন সহযোগী ১৩টি রাষ্ট্র, বিভিন্ন মানবধিকার সংগঠন নির্যাতন-নিপীড়ন নিয়ে কিন্তু সরব হচ্ছে। এখন জনগণকে জাগতে হবে। প্রশাসন তখনই পাশে দাঁড়াবে যখন দেখবে জনতার ঢল নেমেছে।
সরকারের বিরুদ্ধে কঠোর সমালোচনা করে তিনি আরো বলেন, বিনা ভোটের সরকার বাংলাদেশকে ইরাক, সিরিয়া, মিয়ানমার বানাতে চায়। এই বিনা ভোটের সরকারের কাছে কি আমরা ১৮ কোটি লোক জিম্মি থাকব? আপনাদের সংগ্রাম করতে হবে। এই সংগ্রামে আমি মরি না আপনি মরেন, সেটা উপরওয়ালাই ঠিক করবেন।
ভিপি নুর বলেন, মুশতাক আহমেদের মৃত্যুর ঘটনার প্রতিবাদ করায় বেশ কিছু শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করা হয়। বিভিন্ন স্থানে নির্যাতন-নিপীড়ন চালানো হয়েছে। শ্রমিক নেতা রুহুল আমিনকে একটি পোস্ট দেয়ার কারণে গ্রেফতার করা হয়েছে। আমরা অবিলম্বে সবার মুক্তি চাই এবং ২৬ মার্চের মধ্যে কালো আইন বাতিল করতে হবে। যদি বাতিল করা না হয়, তাহলে ১৮ কোটি মানুষকে ভেতরে ভেতরে লড়াইয়ের প্রস্তুতি নিতে বলেন এই ছাত্রনেতা।
বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মুহাম্মদ রাশেদ খান, যুগ্ম আহ্বায়ক আবু হানিফ, শাকিলুজ্জামান, সোহরাব হোসেন, শ্রমিক অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক আবদুর রহমান, যুগ্ম আহ্বায়ক ইমরান হোসেন, সদস্যসচিব আরিফ হোসেন প্রমুখ সমাবেশে বক্তব্য দেন।



আরো সংবাদ