০২ মার্চ ২০২১
`

সুষ্ঠু ভোট হলে বিপুল ভোটে ধানের শীষ জিতবে : ডা: শাহাদাত

-

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী ও মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা: শাহাদাত হোসেন বলেছেন, চসিক নির্বাচন নিয়ে মানুষের মাঝে এখনো শঙ্কা আছে, আদৌ তারা ভোটকেন্দ্রে যেতে পারবে কি-না। বিগত নির্বাচনগুলোতে ভোটাররা ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেনি। মানুষকে তার গণতান্ত্রিক অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে। তাই এবার পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করার প্রতীক্ষায় আছেন ভোটাররা। নির্বাচনী এলাকায় যেখানেই গণসংযোগে যাচ্ছি, ভোটারদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি। সুষ্ঠু ভোট হলে বিপুল ভোটের ব্যবধানে ধানের শীষ জিতবে। এই ভোটযুদ্ধে যুবদলকে অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকায় অবতীর্ণ হতে হবে।
তিনি রোববার রাতে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ের মাঠে চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা যুবদলের সাথে অনুষ্ঠিত মতবিমিয় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। ডা: শাহাদাত হোসেন বলেন, নির্বাচনী প্রচারণা শুরু হওয়ার পর থেকে সরকারদলীয় নেতাকর্মীরা আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করে আসছে। এ ছাড়া ভয়ভীতি, হুমকি- ধামকি এবং পোস্টার-ব্যানার ছিঁড়ে ফেলার মতো ঘটনাও ঘটেছে। এসব বিষয়ে প্রশাসনকে অভিযোগ দেয়ার পরও তারা কার্যকর কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তিনি ধানের শীষ প্রতীকে ভোট দিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনকে বেগবান করার আহ্বান জানান। এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর।
শুলকবহর ওর্য়াডে গণসংযোগ : এ দিকে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী ডা: শাহাদাত হোসেন গতকাল সোমবার দিনব্যাপী নগরীর ৮নং শুলকবহর ও ৪২নং নাসিরাবাদ সাংগঠনিক ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন।
এ সময় তিনি বলেন, দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে চট্টগ্রামের মানুষের জন্য রাজনীতি করছি। মানুষের সুখ-দুঃখ বুঝি। করোনাকালে মানুষের পাশে থেকেছি, এখনো সাহায্য সহায়তা করে যাচ্ছি। ফ্রি ট্রিটমেন্ট দিচ্ছি। তাই চট্টগ্রামের মানুষ আমাকে পছন্দ করে। মেয়র নির্র্বাচিত হলে চট্টগ্রামকে পরিকল্পিত পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তুলব। পাশাপাশি এই চট্টগ্রামে পর্যটন নগর গড়ে তুলে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দেবো। কারণ চট্টগ্রাম পর্যটননির্ভর একটি বিভাগ। এখানে সি-বিচ আছে, ফয়েজ লেক, কক্সবাজার, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি এবং রাঙ্গামাটি আছে। এগুলোকে কাজে লাগিয়ে খুব সহজে পর্যটন নগর গড়ে তোলা যায়।
তিনি কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক মন্ত্রী রুহুল কুদ্দস তালুকদার দুলুসহ নেতৃবৃন্দ নিয়ে নগরীর কাতালগঞ্জ মোড় থেকে গণসংযোগ শুরু করে শেখ বাহারউল্লাহ মসজিদ, বড় গ্যারেজ, বাদুরতলা, বহদ্দারহাট মোড়, শুলকবহর মাদরাসা রোড়, মির্জাপুল, জলিল বিল্ডিং, ফরেস্ট গেট, মুরাদপুর মোড়, বশর মার্কেট, পিলখানা গলি হয়ে বন গবেষণাগার মাঠে গিয়ে শেষ করেন। পরে নাসিরাবাদ সাংগঠনিক ওয়ার্ডের গণসংযোগ ২নং গেট বিপ্লব উদ্যানের মোড় থেকে শুরু করে নাসিরাবাদ পূর্বকোণ অফিস, লডর্স ইন হোটেলের পাশের সড়ক হয়ে নাসিরাবাদ সরকারি বালিকা বিদ্যালয় রোড়, আল-ফালাহ গলি, দুই নং গেট রেলক্রসিং, মেয়র গলি, বেবি সুপার মার্কেট হয়ে রুবি গেট মোড়ে গিয়ে পথসভায় মিলিত হন।
এ সময় ধানের শীষের প্রার্থী ডা: শাহাদাত হোসেন বলেন, চট্টগ্রাম পর্যটন নগরী হলে দেশের অর্থনীতিতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। দেশের জিডিপি বৃদ্ধি পাবে। উন্নত দেশের কাতারে পৌঁছতে চট্টগ্রামকে বাদ দিয়ে কল্পনাও করা যায় না। মেয়র নির্বাচিত হলে সচেতন নাগরিকদের পরামর্শকে প্রাধান্য দিয়ে শিক্ষাবান্ধব নগরী গড়ে তুলব।
গণসংযোগে অংশ নিয়ে কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক মন্ত্রী রুহুল কুদ্দস তালুকদার দুলু বলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি একজন ভালো মানুষকে মনোনয়ন দিয়েছে। ডা: শাহাদাত হোসেন কিন ইমেজের নেতা। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান তাকে যোগ্য নেতা হিসেবে চট্টগ্রামবাসীকে সেবা করার জন্য মেয়র হিসেবে প্রার্থী দিয়েছেন। তিনি এই করোনা দুর্যোগে সবসময় আপনাদের পাশে ছিল। আপনারা তাকে ভোট দিয়ে মেয়র নির্বাচিত করুন।



আরো সংবাদ