২৫ জানুয়ারি ২০২১
`

চার কার্যদিবস পর পুঁজিবাজারে উত্থান

-

টানা চার কার্যদিবস পতনের পর গতকাল মঙ্গলবার উত্থান হয়েছে দেশের পুঁজিবাজারে। এদিন উভয় পুঁজিবাজারে সব ক’টি সূচক বেড়েছে। একই সাথে বেড়েছে টাকার অঙ্কে লেনদেন এবং বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। গতকাল প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১০ দশমিক ৮৩ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৮৩৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৪ দশমিক ৪৫ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ৩.৫৪ পয়েন্ট এবং সিডিএসইসি ০.৭৭ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ১১২.৮২ পয়েন্ট, ১ হাজার ৬৭৪.৭০ ও ৯৮৩.৬৯ পয়েন্টে।
ডিএসইতে গতকাল ৬৭১ কোটি ৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ৪৯ কোটি ৭৫ লাখ টাকা বেশি। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৬২১ কোটি ২৮ লাখ টাকার । ডিএসইতে গতকাল ৩৪৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৭৭টির বা ৫০.৭১ শতাংশ শেয়ার ও ইউনিটের দর বেড়েছে। দর কমেছে ৭১টির বা ২০.৩৪ শতাংশের এবং ১০১টি বা ২৮.৯৩ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ৬৩ দশমিক ৪৯ পয়েন্ট বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৮৭০.৫৮ পয়েন্টে। এ দিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৩৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ারদর বেড়েছে ১২৯টির, কমেছে ৫২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৫৪টির দর। সিএসইতে ২২ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।
বন্ধ রিং শাইন : শেয়ারবাজারে তালিকাভক্ত রিং শাইন টেক্সটাইলের পরিচালনা পর্ষদ কোম্পানিটির কারখানা বন্ধের মেয়াদ আরো এক দফা বাড়িয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। জানা গেছে, কোম্পানিটির কারখানা আজ ২৫ নভেম্বর থেকে ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। এর আগে প্রথম দফায় ২৭ সেপ্টেম্বর থেকে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত এবং দ্বিতীয় দফায় ২৬ অক্টোবর থেকে ২৪ নভেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটির কারখানা বন্ধ ঘোষণা করা হয়। বিশ্বব্যাপী মহামারী কোভিড-১৯ এর প্রভাবের কারণে বিদেশী ক্রেতাদের কাছ থেকে ক্রমবর্ধমান আদেশ এবং আমদানিকৃত কাঁচামালের অভাবজনিত কারণে কোম্পানিটির কারখানা বন্ধ রয়েছে।
ব্লক মার্কেট : মঙ্গলবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে ২২টি কোম্পানি লেনদেন অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির ১১৯ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। কোম্পানিগুলোর ৯৮ লাখ ৩৫ হাজার ৫১টি শেয়ার ৫০ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ১১৮ কোটি ৮৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১১২ কোটি ৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো ফার্মার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১ কোটি ৫৯ লাখ ৩৫ হাজার টাকার এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৮০ লাখ ৯১ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে ডিবিএইচের।
এ ছাড়া আমান কটনের ৬৬ লাখ ৯১ হাজার টাকার, আমান ফিডের ৬ লাখ ১৮ হাজার টাকার, এপেএসসিএল নন-কনভার্টেবল ফুল্লি রিডেম্বল কুপন বিয়ারিং বন্ডের ৫ লাখ ৫১ হাজার টাকার, বিডি থাইয়ের ২৫ লাখ ৩০ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংকের ১৩ লাখ ৪৪ হাজার টাকার, সেন্ট্রাল ইন্স্যুরেন্সের ৫৪ লাখ ৫০ হাজার টাকার, কপারটেকের ৬ লাখ ৭২ হাজার টাকার, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ২২ লাখ ৮০ হাজার টাকার, এক্সিম ব্যাংকের ৩৫ লাখ ৩০ হাজার টাকার, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের ১৪ লাখ ৩৫ হাজার টাকার, আইডিএলসির ১১ লাখ ১৪ হাজার টাকার, কোহিনূর কেমিক্যালের ১৮ লাখ ৪০ হাজার টাকার, নাহি অ্যালুমিনিয়ামের ৫ লাখ ৪০ হাজার টাকার, নিটল ইন্স্যুরেন্সের ৩১ লাখ ৫০ হাজার টাকার, নর্দার্ন ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ২৫ হাজার টাকার, ন্যাশনাল পলিমারের ৫ লাখ ২৫ হাজার টাকার, নুরানী ডাইংয়ের ৫ লাখ ৭ হাজার টাকার, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের ৮ লাখ ৫০ হাজার টাকার এবং এসকে ট্রিমসের ৭৫ লাখ ৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।



আরো সংবাদ