২৪ জানুয়ারি ২০২১
`

শেখ হাসিনার গাড়ি বহরে হামলা : মামলা চলতে বাধা নেই

-

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ২০০২ সালে তৎকালীন বিরোধীদলীয় নেতা ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় করা এক মামলায় আসামি রাকিবুর রহমানের ক্ষেত্রে মামলা বাতিলের আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টের আদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ। এর ফলে বিচারিক আদালতে এই মামলা চলতে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। গতকাল মঙ্গলবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ এ আদেশ দেন।
আসামিপক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এস এম মুনীর। এর আগে মামলা বাতিলে আসামি রকিবের আবেদনে জারি করা রুল গত ৮ অক্টোবর খারিজ করেছিলেন হাইকোর্ট। একই সাথে তিন মাসের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত।
ধর্ষণের শিকার এক মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রীকে দেখতে ২০০২ সালের ৩০ আগস্ট সাতক্ষীরার কলারোয়ায় যান আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। সড়ক পথে ঢাকায় ফেরার পথে সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলা বিএনপি অফিসের সামনে শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার ঘটনা ঘটে। শেখ হাসিনাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়। বোমা বিস্ফোরণ ও গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে।
২০১৫ সালে এ ঘটনায় আদালতে চার্জশিট দেয়া হয়। এর মধ্যে হত্যাচেষ্টা মামলায় এক আসামি রকিব ওরফে রাকিবুর রহমানের বয়স ঘটনার সময় ১০ বছর ছিল উল্লেখ করে হাইকোর্টে মামলা বাতিলের আবেদন করা হয়। ২০১৭ সালের ওই আবেদনের ওপর একই সালের ২৩ আগস্ট হাইকোর্ট স্থগিতাদেশ দিয়ে রুল জারি করেন। গত ৬ অক্টোবর এ রুলের ওপর শুনানি শেষে ৮ অক্টোবর রায় দেন হাইকোর্ট। বর্তমানে মামলাটি সাতক্ষীরার আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো মামলার অভিযোগ গঠনের শুনানি ৫ জানুয়ারি
ষ নিজস্ব প্রতিবেদক
বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন বিষয়ে শুনানির তারিখ পিছিয়ে আগামী ৫ জানুয়ারি তারিখ ধার্য করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার কেরানীগঞ্জে কেন্দ্রীয় কারাগারে নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার নবম বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমানের আদালত খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের সময় আবেদন মঞ্জুর করে এই দিন নির্ধারণ করেন।
গতকাল মঙ্গলবার এ মামলার অভিযোগ গঠনের বিষয়ে শুনানির জন্য ছিল। তবে বেগম খালেদা জিয়া অসুস্থ থাকায় আদালতে হাজির হননি। তার পক্ষে আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া সময় আবেদন করেন।
এর আগে রাজধানীর নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে এ মামলার অন্য সব আসামির পক্ষে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদনের শুনানি হয়েছে। খালেদা জিয়ার পক্ষেও অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করা হয়েছে। তবে ওই আবেদনের শুনানির অপেক্ষায় রয়েছে।
এ মামলার অন্য আসামিরা হলেনÑ চারদলীয় জোট সরকারের সাবেক আইনমন্ত্রী মওদুদ আহমদ, সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন মৃত, তখনকার প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রাক্তন ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলাম, সাবেক সিনিয়র সহকারী সচিব সি এম ইউছুফ হোসাইন, বাপেক্সের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মীর ময়নুল হক, বাপেক্সের সাবেক সচিব মো: শফিউর রহমান, ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুন, ঢাকা ক্লাবের সাবেক সভাপতি সেলিম ভূঁইয়া (সিলভার সেলিম) এবং নাইকোর দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট কাশেম শরীফ।
২০০৭ সালের ৯ ডিসেম্বর খালেদা জিয়াসহ অন্যদের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় এ মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। ২০০৮ সালের ৫ মে খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে এ মামলায় অভিযোগপত্র দেয়। মামলায় অভিযোগ করা হয়, ক্ষমতার অপব্যবহার করে তিনটি গ্যাসক্ষেত্র পরিত্যক্ত দেখিয়ে কানাডীয় কোম্পানি নাইকোর হাতে তুলে দেয়ার মাধ্যমে আসামিরা রাষ্ট্রের প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার ক্ষতি করেছেন।



আরো সংবাদ


অচিরেই এদেশের চলচ্চিত্র বিশ্ববাজারে প্রতিযোগিতা করবে : তথ্যমন্ত্রী ধন্যবাদ পশ্চিমবঙ্গ, টুইটে মোদি শিক্ষা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে কাজ করছে সরকার : শিক্ষামন্ত্রী হাইকোর্টে ক্ষমা চেয়ে যা বললেন কুষ্টিয়ার সেই এসপি চসিক নির্বাচনে নৌকার পক্ষে নায়ক-নায়িকাদের প্রচারণা সাধারণ শিক্ষার পাশাপাশি গবেষণায়ও মনোনিবেশের আহ্বান রাষ্ট্রপতির দেশে টিকা দেয়ার পরিকল্পনা প্রকাশ সরাসরি ভোটের মাধ্যমে সুপ্রিমকোর্ট বারে আইনজীবী ফোরামের কমিটির দাবিতে প্রতিবাদ মান্দার পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিশু নিহত বাংলাদেশে টিকার দাম কত হবে, জানালেন পাপন বিএনপির মেয়রপ্রার্থীর প্রচরণায় ছাত্রলীগের হামলা

সকল