২১ অক্টোবর ২০২০

সূচক কমলেও বেড়েছে লেনদেন

-

সপ্তাহের প্রথম দিন সূচক কমলেও লেনদেন বেড়েছে দেশের পুঁজিবাজারে। এ দিন উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। একই সাথে কমেছে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর। তবে টাকার পরিমাণে লেনদেন আগের কার্যদিবস থেকে বেড়েছে।
বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ১৫.৭৮ পয়েন্ট কমে ৫ হাজার ৮৮.৮৭ পয়েন্টে অবস্থান করছে। গতকাল ডিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৯.৬৭ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ৮.৭৩ পয়েন্ট এবং নতুন চালু হওয়া সিডিএসইটি সূচক ৪.৪২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১১৫৩.৩৮, ১৭৫২.৮৬ ও ১০২৮ পয়েন্টে।
ডিএসইতে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ১০৩ কোটি ৮৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। যা আগের দিন থেকে ৯০ কোটি ৯ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ১৩ কোটি ৭৯ লাখ টাকার।
ডিএসইতে এ দিন ৩৫৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১২৪টির বা ৩৪.৮৩ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ১৯৪টির বা ৫৪.৫০ শতাংশের এবং ৩৮টি বা ১০.৬৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এ দিন ৩৬.১৪ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৫৩৭.৫৫ পয়েন্টে। এ দিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৮৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ১০৯টির, কমেছে ১৪৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৩টির দর। সিএসইতে ৩৪ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।
ব্লক মার্কেট : রোববার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ব্লক মার্কেটে ২৩টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। কোম্পানিগুলোর সাড়ে ১০ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানা গেছে, কোম্পানিগুলোর ২২ লাখ ৯৬ হাজার ৯৩৮টি শেয়ার ৪৮ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ১০ কোটি ৬৭ লাখ ১৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।
কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ৩ কোটি ৫০ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে ফাইন ফুডসের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১ কোটি ৩৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার পিপলস ইন্স্যুরেন্সের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৮৮ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে ফু-ওয়াং ফুডের।
এ ছাড়া স্কয়ার ফার্মার ৪৩ লাখ ৬০ হাজার টাকার, এসকে ট্রিমসের ৪৯ লাখ ৮৪ হাজার টাকার, এসইএমএল লেকচার ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট ফান্ডের ৬ লাখ ৬৬ হাজার টাকার, সি পার্লের ২৮ লাখ ৭৫ হাজার টাকার, সামিট এলায়েন্স পোর্টের ২৫ লাখ ৮০ হাজার টাকার, আরএসআরএম স্টিলের ১৫ লাখ ৫০ হাজার টাকার, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের ২৫ লাখ ৯৯ হাজার টাকার, প্যারামাউন্ট ইন্স্যুরেন্সের ১১ লাখ ৭৯ হাজার টাকার, ওরিয়ন ফার্মার ১৯ লাখ ৩৬ হাজার টাকার, নর্দার্ণ ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ১০ হাজার টাকার, নিটল ইন্স্যুরেন্সের ৮ লাখ ১৬ হাজার টাকার, এমএল ডাইংয়ের ২১ লাখ ৮০ হাজার টাকার, মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ২৯ লাখ ৪০ হাজার টাকার, গ্রামীণফোনের ২৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকার, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্সের ২৭ লাখ টাকার, ড্যাফোডিল কম্পিউটার্সের ২২ লাখ ৭২ হাজার টাকার, কন্টিনেন্টাল ইন্স্যুরেন্সের ৩৬ লাখ ৯৬ হাজার টাকার, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলের ৬ লাখ ৭৫ হাজার টাকার, বঙ্গজের ২৮ লাখ ৮ হাজার টাকার এবং এডিএন টেলিকমের ৫৩ লাখ ৬৮ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

 


আরো সংবাদ

হ্যাকাররা চুরি করা অর্থ কেন দান করছে ধাওয়ানের অনন্য কীর্তি ছাপিয়ে দুরন্ত পাঞ্জাব রোনালদোহীন জুভেন্টাসের জয়ের নায়ক মোরাতা জয়ের নায়ক রাশফোর্ড, প্যারিসে ম্যানইউর কাছে হারল পিএসজি মেসির রেকর্ডের রাতে পিকের লাল কার্ড; তারপরও গোল উৎসব বার্সার একতরফা নির্বাচনী ধারা বন্ধে ফের তৎপর বিএনপি ভিসামুক্ত ভ্রমণের চুক্তি করল আমিরাত ও ইসরাইল মাদক সেবনের টাকা না দেয়ায় বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে হত্যা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বাংলাদেশ সম্পাদক ফোরামের শ্রদ্ধা দ্বিতীয় স্ত্রীকে ঘরে আনার প্রতিবাদ করায় প্রথম স্ত্রীর মুখে সিগারেটের ছ্যাঁকা সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়নে অঙ্গসংগঠন হিসেবে কাজ করছে ইসি : মির্জা ফখরুল

সকল