২৩ অক্টোবর ২০২০

প্রতিবন্ধী শিশুসহ ৬ জন নিহত

-

পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিবন্ধী শিশুসহ ছয়জন নিহত হয়েছেন।
গাজীপুর সংবাদদাতা জানান, গাজীপুরে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রতিবন্ধী শিশুসহ দু’জন নিহত ও অপর দুইজন আহত হয়েছেন। নিহতরা হলেনÑ ময়মনসিংহের নান্দাইল থানার জালুয়া বাটি সাবার এলাকার ইউনুস মিয়ার প্রতিবন্ধী ছেলে তুহিন মিয়া (১১) এবং ময়মনসিংহের ত্রিশাল থানার ঠাকুর নালা এলাকার মতিন মোল্লার ছেলে শিবলী সাদিক (৩৮)। শিবলী সাদিক প্রাণ আরএফএল কারখানায় চাকরি করতেন।
জিএমপির কাশিমপুর থানার এসআই কামরুজ্জামান ও স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় সবজি ব্যবসায়ী ইউনুস মিয়া পরিববারসহ গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কাশিমপুর হাজীপাড়া এলাকার সেন্টু রূদ্রের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। গতকাল রোববার দুপুরে সড়ক মেরামত কাজে নিয়োজিত বালুবোঝাই একটি ট্রাক কাশিমপুর বাজার রোডের হাজীপাড়া এলাকায় ইউনুস মিয়ার প্রতিবন্ধী ছেলে তুহিনকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুটি নিহত হয়। এলাকাবাসী ট্রাকটিকে আটক করে। তবে ট্রাকের চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার ও ট্রাকটি জব্দ করে।
এ দিকে কালীগঞ্জ থানার ওসি এ কে এম মিজানুল হক জানান, প্রাণ আরএফএল কারখানার কর্মী শিবলী সাদিক রোববার চোখের ডাক্তার দেখিয়ে সিএনজিচালিত অটোরিকশায় ঘোড়াশাল যাচ্ছিলেন। পথে ওভারটেক করার সময় পেছন থেকে আসা একটি প্রাইভেটকারের সাথে অটোরিকশার মৃদু ধাক্কা লাগে। এতে ক্ষুব্ধ অটোরিকশার চালক বেপরোয়া গতিতে প্রাইভেটকারের পিছু নেয়। একপর্যায়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সিএনজি অটোরিকশাটি শিমুলিয়া এলাকায় টঙ্গী-নরসিংদী সড়কের নলছাটা ব্রিজের পশ্চিমে সড়কের পাশে উল্টে যায়। এতে মাথা ও চোখের বাম পাশে আঘাত পেয়ে অটোরিকশারোহী শিবলী সাদিক ঘটনাস্থলেই নিহত ও অপর দুইজন আহত হয়।
সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, সীতাকুণ্ডে সড়ক দুর্ঘটনায় হাইওয়ের পুলিশের এক কর্মকর্তা নিহত ও অপর এক সদস্য আহত হয়েছেন। নিহতের নাম মো: মাহবুবুর রহমান (৪৩)। তিনি বারোআউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের ফাঁড়ির সাব ইন্সপেক্টর (এসআই) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গতকাল রোববার সকাল ৭টায় বাঁশবাড়ীয়া আর আর জুট মিলস নামক এলাকায় একটি ট্রাক পেছন দিক থেকে চাপা দিলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত মো: মাহবুবুর রহমান দক্ষিণ কুমিল্লা জেলার ডুমুরিয়া এলাকার তফাজ্বল হোসেনের পুত্র।
চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) সংবাদদাতা জানান, চিরিরবন্দরে দশমাইল-সৈয়দপুর মহাসড়কে গতকাল ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মোটরসাইকেল আরোহী ললিত চন্দ্র রায় (৪৫) নামে এক ব্যক্তি ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছে। নিহত ললিত চন্দ্র রায় উপজেলার ফতেজংপুর ইউনিয়নের বড় হাশিমপুর গ্রামের কচুয়ারপাড়ের অধিকারীপাড়ার মৃত রঘুনাথ বর্মণের ছেলে।
আমতলী (বরগুনা) সংবাদদাতা জানান, বরগুনার আমতলী উপজেলার পূর্ব চিলা গ্রামের পল্লী চিকিৎসক মো: মিজানুর রহমান সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে রোববার ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।
জানা গেছে, উপজেলার পূর্বচিলা গ্রামের পল্লী চিকিৎসক মো: মিজানুর রহমান বৃহস্পতিবার রাতে মোটরসাইকেলে কুয়াকাটা যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে নবীনপুর নামক স্থানে ঢাকাগামী গোল্ডেন লাইন পরিবহনের বাসের (ঢাকা মেট্রো-ব-১৪-৮৬৭৬) সাথে সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেলটি দুমড়ে-মুড়চে যায়। দুর্ঘটনায় সাইকেলের আরোহী পল্লী চিকিৎসক মিজানুর রহমান তালুকদার (৪২) ও তার বন্ধু জিয়াউর রহমান (৪৩) গুরুতর আহত হন। আহত দু’জনকে স্বজনরা উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে নিয়ে যান।
পটিয়া-চন্দনাইশ (চট্টগ্রাম) সংবাদদাতা জানান, পটিয়া থেকে চন্দনাইশে বাড়ি ফেরার পেথে সড়ক দুর্ঘটনায় আবুল কালাম আজাদ (৬০) নামে এক মাদরাসাশিক্ষক নিহত হয়েছেন। গতকাল সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় পটিয়া শ্রীমাই ব্রিজের পাশে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আবুল তালাম চন্দনাইশ উপজেলার সাতবাড়িয়ার মরহুম এলাহী বক্সের ছেলে ও পটিয়া আমিরুল আউলিয়া মাদরাসার শিক্ষক ছিলেন। পটিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক মো: বোরহান উদ্দিন জানান সন্ধ্যায় সিএনজি অটোরিকশায় বাড়ি যাওয়ার সময় অপর একটি গাড়ির সাথে ধাক্কা লেগে গুরুতর আহত হলে তাকে পটিয়া হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন বলে নিশ্চিত করেন।

 


আরো সংবাদ

পাকিস্তানে ‘গৃহযুদ্ধের’ ভুয়া খবর নিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমে মাতামাতি ঢাকা-১৮ থেকে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলন শুরু : জাহাঙ্গীর শুধু কথা বলার কারণে সংগ্রাম সম্পাদক ও সাংবাদিককে গ্রেফতার করা হয়েছে : ডা: জাফরুল্লাহ দেশে করোনায় আরো ১৪ জনের মৃত্যু খালেদা জিয়াই হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রকৃত বন্ধু : খোরশেদ করোনায় স্থগিত সিএএফ চ্যাম্পিয়ন্স লীগের সেমি-ফাইনাল নিম্নচাপটি আজ সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ উপকূল অতিক্রম করতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পত্তিতে মহামারীর কামড়!‌ ধনী হয়ে উঠল চীন ও ভারত :‌ রিপোর্ট রাঙ্গাবালীতে স্পিডবোট ডুবির ঘটনায় এখনো নিখোঁজ ৫ ভারত নোংরা : ট্রাম্প বৈরী আবহাওয়ায় সেন্টমার্টিনে আটকা পড়েছেন চার শতাধিক পর্যটক

সকল