২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

ঈদের আগে বড় উত্থান পুঁজিবাজারে

সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের ৩ পরিচালককে জরিমানা
-

ঈদুল আজহার আগের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবারে দেশের শেয়ারবাজারে বড় উত্থান হয়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচকের বড় উত্থান হয়েছে। সেই সাথে ডিএসইতে বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। এর মাধ্যমে চলতি সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসেই ঊর্ধ্বমুখী থাকল শেয়ারবাজার।
মহামারী করোনার প্রকোপে ভুগতে থাকা শেয়ারবাজারে বেশ কিছু দিন ধরেই ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। ঈদের আগের শেষ সপ্তাহে এ ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা সব থেকে বেশি দেখা গেছে। ঈদের আগে শেয়ারবাজারে এমন টানা উত্থান হওয়ায় বিনিয়োগকারীরাও খুশি। বিনিয়োগকারীরা বলছেন, নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নতুন চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল ইসলামের নেতৃত্বাধীন কমিশন শেয়ারবাজারে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বেশ কিছু ইতিবাচক পদক্ষেপ নিয়েছে। যার প্রভাব দেখা যাচ্ছে শেয়ারবাজারে।
বাজার পর্যালোচনায় দেখা যায়, ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৪৩ পয়েন্ট বেড়ে চার হাজার ২১৪ পয়েন্টে উঠেছে। এর মধ্যে টানা পাঁচ দিনের উত্থানে সূচকটি ১৩৪ পয়েন্ট বাড়ল।
এ দিকে প্রধান সূচকের পাশাপাশি বড় উত্থান হয়েছে অপর দুই সূচকের। এর মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ১৮ পয়েন্ট বেড়ে এক হাজার ৪২০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ ১১ পয়েন্ট বেড়ে ৯৭৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এ দিন ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৬২ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৫৮টির। আর ১২৮টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। এর মাধ্যমে তিন মাসেরও বেশি সময় পর যে কয়টি প্রতিষ্ঠানের দাম অপরিবর্তিত রয়েছে তার থেকে বেশি সংখ্যক প্রতিষ্ঠানের দাম বাড়ল।
শেয়ারবাজারের ভয়াবহ ধসের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৯ মার্চ প্রতিটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের ফ্লোর প্রাইস (সর্বনিম্ন দাম) নির্ধারণ করে নতুন সার্কিট ব্রেকার চালু করা হয়। এতে দরপতন ঠেকানো গেলেও বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার লেনদেন এক প্রকার বন্ধ হয়ে যায়। ফলে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশির ভাগ প্রতিষ্ঠানের দাম অপরিবর্তিত থাকে। এতে দেখা দেয় লেনদেন খরা। ডিএসইর লেনদেন ৫০ কোটি টাকার ঘরে নেমে আসে। অবশ্য গত কয়েক দিন ধরে লেনদেন বাড়তে থাকায় বৃহস্পতিবার ডিএসইর লেনদেন পাঁচ শ’ কোটি টাকার ঘর স্পর্শ করেছে। দিনভর বাজারে লেনদেন হয়েছে ৫৮০ কোটি ৯০ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৩৯৯ কোটি ৫২ লাখ টাকা। এ হিসাবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন বেড়েছে ১৮১ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। বড় অঙ্কের লেনদেনের দিনে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো ফার্মার শেয়ার। কোম্পানিটির ২৮ কোটি ১১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্সের ২০ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ১৪ কোটি ৮৩ লাখ টাকার লেনদেনের মাধ্যমে পরের স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবলস।
এ ছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছেÑ গ্রামীণফোন, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্স, সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স, বিকন ফার্মাসিউটিক্যালস, নাহি অ্যালুমিনিয়াম এবং লিন্ডে বিডি।
অপর দিকে, চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৮২ পয়েন্ট। লেনদেন হয়েছে ১১ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ২৩৪ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৯৮টির, কমেছে ৪২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৯৪টির।
সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের ৩ পরিচালককে ১৪ কোটি টাকা জরিমানা
সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইল লিমিটেডের পরিচালকরা বিনিয়োগকারীদের না জানিয়ে শেয়ার বেশি দামে বিক্রি করে কোটি কোটি টাকা মুনাফা করায় কোম্পানির ৩ পরিচালককে ১৪ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) তাদের নিয়মিত কমিশন সভায় এই জরিমানা সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে গতকাল বৃহস্পতিবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা জানিয়েছে, বস্ত্র খাতের এই কোম্পানির তিন পরিচালক কোম্পানির খারাপ অবস্থা আগে থেকেই জানতেন। তারা জানতেন যে কোম্পানির কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাবে। সে তথ্য তারা গোপন করে বিনিয়োগকারীদের বুঝতে না দিয়ে তাদের শেয়ার সাধারণ বিনিয়োগাকারীদের কাছে বিক্রি করে দেন।
‘এই বিক্রি ঘোষণা দিয়ে করার কথা থাকলেও সেই আইন ভেঙেছেন তারা। এই পরিচালকরা শেয়ার বিক্রি করে দেয়ার পরপরই ঘোষণা দিয়ে কোম্পানির কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়া হয়।’
কোম্পানিটির কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যাওয়ায় শেয়ারের দাম কমে যায়। ১২ টাকার শেয়ার নেমে আসে ২ টাকায়, ফলে মূলধন হারায় অনেক বিনিয়োগকারী। বিএসইসি বলছে, এভাবে তারা পরিকল্পিতভাবে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের ঠকিয়ে নিজেরা লাভবান হন। সিঅ্যান্ডএ টেক্সটাইলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রোখসানা মোর্শেদকে ৮ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়েছে।


আরো সংবাদ