২৯ মে ২০২০

টাংগুয়ার হাওরে উজাড় হচ্ছে নলখাগড়া, হিজলকরছ গাছ

টাংগুয়ার হাওরে উজাড় হচ্ছে নলখাগড়া, হিজলকরছ গাছ -

সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার রামসার সাইট, মাদার ফিশারিজ খ্যাত মৎস্য ও পাখিদের প্রজননে অভয়ারণ্য,সারি সারি হিজলকরছ শোভিত টাংগুয়ার হাওরে অবৈধভাবে উজাড় হচ্ছে নলখাগড়া, হিজলকরছ গাছসহ হাওরে পাখি, মাছ ও জলজ প্রাণী। এসব রায় টাংগুয়ার হাওরে প্রায় চারটি আনসার ক্যাম্প (মুজরাই, গোলাবাড়ি, রামসিংহপুর, রংসী) থাকলেও বিশাল অভয়াশ্রমের সঠিক রক্ষণাবেক্ষণ করছেন না দায়িত্বশীলরা বলে অভিযোগ উঠেছে।
টাংগুয়ার হাওর তদারকির জন্য বরাবরই একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থাকলেও গত চার মাস যাবৎ হাওরে ম্যাজিস্ট্রেটের পদশূন্য। ফলে হাওর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বশীল না থাকা ও আনসার বাহিনীর দায়িত্বহীনতার কারণে এক দিকে হাওরে চলছে মৎস্য, পাখি, পোনামাছ নিধন। অপর দিকে বনবৃক্ষ উজারকরণের মতো ভয়াবহ নৃশংসতার ঘটনা ঘটেছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, টাংগুয়ার হাওরের প্রকৃতিক সৌন্দর্য এক সময় লাখো মানুষকে আকৃষ্ট করলেও এখন দিন দিন মানবসৃষ্ট নৃশংসতার কবলে পড়ে প্রাকৃতিক ভারসাম্য নষ্ট হওয়াসহ জীববৈচিত্র্য হারাচ্ছে নিরাপদ আশ্রয়স্থল। এ ছাড়াও হাওরে প্রতি বছর উজান থেকে আসা হাজার হাজার গরুর বিচরণ করায় হাওরে নতুন করে কোনো জলজ উদ্ভিদ জন্মাতে পারছে না। আর হাওরের পাশের বিভিন্ন গ্রাম থেকে বনবৃক্ষখেকো কিছু অসাধু লোকজন দিনে অবাধে হাওরের প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষায় মূল্যবান হিজলকরছ ও অন্যান্য বনজ বৃক্ষ জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করতে সময়ে-অসময়ে কেটে নিয়ে যাচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ না করায় ও এখনো হাওরে পানি প্রবেশ না করার কারণে এখন হাওরের বনাঞ্চল কেটে নিয়ে নিজেরা জ্বালানি হিসেবে ব্যবহার করছে এবং বিভিন্ন বাজারে বিক্রিও করছে।
সাবজল আহমেদ, নিরব হাসানসহ সচেতন হাওরবাসী জানান, বিকল্প জ্বালানি হিসেবে গোবরের চট ব্যবহার করে অন্যকোনোভাবে জ্বালানির চাহিদা মেটাতে পারত কিন্তু তা না করে টাংগুয়ার হাওরে অবাধে বনাঞ্চল ধ্বংস করে দিচ্ছে হাওর পাড়ের কিছু বাসিন্দারা। হাওরের সুরক্ষার স্বার্থে প্রশাসনের সহযোগিতায় সমন্বিত পরিকল্পনা করে হাওর পাড়ের মানুষের জনজীবন ও পরিবেশ বিপর্যয় রোধকল্পে জীববৈচিত্র্য সুরক্ষাসহ উন্নয়নের আওতায় আনতে সুষ্ঠু পরিকল্পনা খুবই প্রয়োজন।
এ ব্যাপারে পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাসমির রেজা বলেন, টাংগুয়ার হাওরের এই বন বৃক্ষ নিধনের ব্যাপারে আমি অবগত না। যারা এই কাজটি করছে তারা অন্যায় করছে। হাওরের জীববৈচিত্র্য রক্ষায় প্রশাসনের কঠোর নজরদারি প্রয়োজন।
টাংগুয়ার হাওর রক্ষণাবেক্ষণে দায়িত্বে থাকা কমিউনিস্ট গার্ডের সভাপতি মনির মিয়া জানান, টাংগুয়ার হাওর তদারকির জন্য বরাবরই একজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থাকলেও গত চার মাস যাবৎ হাওরে ম্যাজিস্ট্রেটের পদশূন্য। যার ফলে আমি হাতেগোনা চার-পাঁচ জন সদস্য নিয়ে পুরো হাওর তদারকি করতে হিমশিম খাচ্ছি। আর হাওরে বন ধ্বংসের বিষয়টি আমি গুরুত্বসহকারে দেখছি।
তাহিরপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা বিজেন ব্যানার্জি জানান, টাংগুয়ার হাওর রায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারি রয়েছে। এরপরও যারা টাংগুয়ার হাওরের ক্ষতি করার কাজে লিপ্ত রয়েছে নলখাগড়া, গাছ কেটে নিচ্ছে এই বিষয়ে গুরুত্বসহকারে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কোনো অন্যায় করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।


আরো সংবাদ

লকডাউনের মূল উদ্দেশ্য সফল হয়েছে কিনা সরকারকে ব্যাখ্যা দিতে হবে : আ স ম রব তালিকায় সই না করেও বরখাস্ত! সিরাজদিখানে অস্থায়ী বাসিন্দাদের ‘বাইতে রেদোয়ান’র খাদ্য সামগ্রী বিতরণ এবার ৫২টি ডিম দিয়েছে জুলিয়েট দেশের সব সঙ্কটে শহীদ জিয়ার নেতৃত্ব অবিস্মরণীয় : মির্জা ফখরুল ঝালকাঠিতে নারীকে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা, বসতঘর ভাংচুর দুই সন্তানের পিতা প্রেমিকের লাশ উদ্ধার, আটক বিবাহিতা প্রেমিকা দেশের কয়েক’টি অঞ্চলে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে পুলিশের টিকটক ভিডিও দেখে ছেলে খুঁজে পেল তার নিখোঁজ বাবাকে চীনের সঙ্গে সীমান্ত উত্তেজনায় মন-মেজাজ ভালো নেই মোদির : ট্রাম্প পাকিস্তান ক্রিকেটে নতুন দায়িত্বে সাকলায়েন

সকল

পাকিস্তান, নেপাল সীমান্তেও অতিরিক্ত সৈন্য পাঠাচ্ছে ভারত (৯৭২৯)ভারতে গেলেই গ্রেফতার! নোবেলের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ত্রিপুরায় (৯০৩৮)হামলা হতে পারে চীনে, সেনাবাহিনীকে ব্যাপক যুদ্ধপ্রস্তুতির নির্দেশ (৭১২৪)আমার বন্দী কবুতরটি ছেড়ে দিন, মোদী কাছে এক পাকিস্তানির আবেদন (৫৮৬৯)এবার লিবিয়ায় যুদ্ধবিমান ‘পাঠালো’ রাশিয়া (৫৭৮৪)রাতে নৌকার ছাদে জানাজা পড়ে লাশ ফেলা হতো সাগরে : খোদেজা বেগমের দুঃসাহসিক সমুদ্রযাত্রা (৫৬১৪)ভারতীয় ড্রোন ভূপাতিত করল পাকিস্তান (৫৫৮২)এশিয়ায় ভারতকে পেছনে ফেলে শীর্ষে তুরস্ক (৫০৪২)‘আপনার স্ত্রী দেশদ্রোহী, অনুষ্কাকে তালাক দিন' (৪৯৪২)দেশে এক দিনে করোনায় আক্রান্ত ২০০০ ছাড়ালো, মৃত্যু ১৫ (৪৫৫৫)