০৭ জুলাই ২০২০
প্রাইভেট কারে বাড়ি যাওয়া যাবে

ঘরে থাকুন, উদযাপন অন্য কোনো ঈদে : র্যাব ডিজি

-

২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে তুলে নেয়া হলো মানুষের চলাফেরায় বিধিনেষেধ। এরই মধ্যে গতকাল রাজধানীর প্রবেশপথ থেকে তুলে নেয়া হয়েছে পুলিশি পাহারা। এর ফলে ব্যক্তিগত পরিবহনে যে কেউ ঈদ করতে বাড়ি যেতে পারবেন। তবে চলবে না গণপরিবহন। এ দিকে চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা শিথিল করায় আপাতত স্থগিত হয়েছে পুলিশের মুভমেন্ট পাশের প্রয়োগ। তবে এই মুভমেন্ট পাসের খবর জানেন না মাঠে কর্মরত পুলিশ কর্মকর্তারা। এ দিকে মুভমেন্ট পাস সিদ্ধান্তের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পাল্টে গেল রাজধানীর চিত্র। প্রবেশমুখ থেকে উঠিয়ে নেয়া হয়েছে পুলিশি চেকপোস্ট। নতুন ঘোষণা অনুযায়ী গণপরিবহন না চললেও ঈদে বাড়ি যাওয়া যাবে ব্যক্তিগত পরিবহনে। র্যাবের নবনিযুক্ত মহাপরিচলক গতকাল এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে জানান, ঈদে গণপরিবহন বন্ধ থাকলেও ব্যক্তিগত গাড়িতে ঢাকার বাইরে যাওয়া যাবে। তিনি বলেন, ব্যক্তিগত গাড়িতে সাধারণত পরিবারের মানুষজনই ভ্রমণ করে থাকেন। তাই সরকার মানুষের সুবিধায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গতকাল শুক্রবার সকালে আসন্ন ঈদুল ফিতর ও করোনা পরিস্থিতি নিয়ে অনলাইন ব্রিফিংয়ে র্যাব মহাপরিচালক এসব কথা বলেন।
এ দিকে ব্যক্তিগত পরিবহন ছাড়াও বাড়ি যাচ্ছেন অনেকে। গণপরিবহন না থাকায় ভোগান্তির কথাও জানিয়েছেন তারা। যাওয়া আসার সিদ্ধান্ত শিথিল হলেও সার্বিক নিরাপত্তায় থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
ব্রিফিংয়ে ঈদের দিন সবাইকে ঘরে থেকে ঈদ পালন করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এবার একেবারেই ভিন্ন এক প্রেক্ষাপটে সারা দেশে আমরা পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে যাচ্ছি যখন প্রায় প্রতিটি জেলা করোনা আক্রান্ত। তার মধ্যে ঘূর্ণিঝড় আমফানের আঘাত। দেশবাসীকে অনুরোধ করব, ঈদের দিনে কেউ ঘোরাফেরার জন্য বাইরে বের হবেন না। আপনারা ঘরে থাকুন, আপনাদের জন্য আমরা আছি বাইরে। একই সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাত নিশ্চিতে সারা দেশে র্যাবের নজরদারি থাকবে বলেও জানান র্যাব ডিজি। যারা ঈদ ছুটি শেষে ঢাকায় আসবেন, তাদের একই সময় না এসে ভিন্ন ভিন্ন সময় ঢাকায় প্রবেশের অনুরোধ জানান র্যাব মহাপরিচালক।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে র্যাব মহাপরিচালক মামুন বলেন, এবার ঈদের দিনে বিনোদনের নামে ঘোরাঘুরি বা কোনো বিনোদন কেন্দ্রে দর্শনীয় স্থানে জমায়েত করা যাবে না। অনুরোধ করব, আপনারা ঘরেই থাকবেন। বিনোদন কেন্দ্র বা দর্শনীয় স্থানগুলোতে র্যাবের নজরদারি থাকবে। জমজমাট ঈদ উদযাপন না হয় অন্য কোনো ঈদে করা যাবে।


আরো সংবাদ