২৫ মে ২০২০

রায়পুরায় আ’লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ১০

-

নরসিংদীর রায়পুরার দুর্গম চরাঞ্চলে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে সংঘর্ষের সময় টেঁটাবিদ্ধ হয়ে স্কুলছাত্রী সোনিয়া নিহত ও ১০ জন আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে রায়পুরা উপজেলার চানপুর ইউনিয়নে কালিকাপুর গ্রামে। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে গত শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় কালিকাপুর গ্রামে এ সংঘর্ষ হয়। এ সময় ছয়টি বাড়ি ভাঙচুর করা হয়। নিহত সোনিয়া কালিকাপুর গ্রামের জালাল মিয়ার মেয়ে ও সদাগরকান্দি উচ্চবিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী।
মারাত্মক আহত অবস্থায় প্রথমে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। পরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার রাত ৮টায় সেখানে সে মারা যায়। এ সংঘর্ষে আহত হয় কালিকাপুর গ্রামের মৃত আব্দুল হাসিমের ছেলে শবুর মিয়া (৫০), জালাল মিয়া (৪০), মৃত তাহের মিয়ার স্ত্রী রুবিনা খাতুন (৬০), ছেলে হেলাল মিয়া (৩২), অন্তঃসত্ত্বা পুত্রবধূ মুক্ত আক্তার ও শান্ত মিয়ার স্ত্রী আনু (৩৩), সৈয়দ জামানের ছেলে জাকির মিয়া (৩৮), জিতু মোল্লার ছেলে ফরিদ মিয়া (৬০), হযরত আলীর ছেলে মুগল হোসেন (৩৮), ইনু মিয়ার ছেলে মাছুম (২৫) ও বাছেদ (৩২) নামে ১০ জন আহত হন। আহতদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরবের বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে।
এ ঘটনায় পুলিশ কালিকাপুর গ্রামের অহিদ মিয়ার ছেলে আব্দুস সাত্তার (৩২) ও আবু সামাদের ছেলে সবুজ (২৪) আটক করেছে। রায়পুরা থানার উপ-পরিদর্শক দেব দুলাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, চানপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদ বাবুল মিয়া ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির মিয়ার মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। তার জের ধরে এ সংঘর্ষ হয়। শুক্রবার রাতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
পরে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং আওয়ামী লীগ নেতা বাবুলের দুই সমর্থক সাত্তার ও সবুজকে আটক করে।


আরো সংবাদ





maltepe evden eve nakliyat knight online indir hatay web tasarım ko cuce Friv gebze evden eve nakliyat buy Instagram likes www.catunited.com buy Instagram likes cheap Adiyaman tutunu