১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস আজ

-

বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আজ মঙ্গলবার সারা দেশে পালিত হবে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস। এ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছেÑ ক্রোড়পত্র প্রকাশ, আলোচনা সভা, র্যালি ও সড়ক সচেতনতা কার্যক্রম।
জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মো: আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী প্রদান করেছেন।
‘জীবনের আগে জীবিকা নয়, সড়ক দুর্ঘটনা আর নয়’-এ প্রতিপাদ্য নিয়ে তৃতীয়বারের মতো দিবসটি পালিত হতে যাচ্ছে। আজ সকাল সাড়ে ৭টায় জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজা থেকে দিবস উপলক্ষে একটি র্যালি বের হবে। সকাল ১০টায় ফার্মগেটস্থ কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের আলোচনা সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।
এ ছাড়া বিকেল ৪টায় রাজধানীর বিভিন্ন বাস টার্মিনালসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সড়ক নিরাপত্তাসংক্রান্ত ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হবে। এর পাশাপাশি পরিবহন মালিক, চালক, যাত্রী ও পথচারীদের সচেতন করার লক্ষ্যে লিফলেট, পোস্টার ও স্টিকার বিতরণ করা হবে। সব জেলা ও উপজেলায় শোভাযাত্রা,আলোচনা সভা ও সড়ক নিরাপত্তা সংক্রান্ত ভিডিও চিত্র প্রদর্শনের কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। এ ছাড়া গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বিটিভিসহ বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ে আলোচনা ও বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।
দিবসটি উপলক্ষে বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ বলেছেন, সরকার টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী একবিংশ শতাব্দীর দ্বিতীয় দশকে সড়ক দুর্ঘটনা ৫০ শতাংশ কমিয়ে আনার জন্য অঙ্গীকারবদ্ধ।
আগামীকাল ২২ অক্টোবর ‘জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস ২০১৯’ উপলক্ষে আজ এক বাণীতে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন দিবসটি উদযাপনের আয়োজন নিরাপদ সড়ক ব্যবহারে জনগণের মাঝে ব্যাপক সচেতনতা সৃষ্টি করতে সহায়ক হবে। তিনি সড়ককে দুর্ঘটনামুক্ত করতে সংশ্লিষ্ট সবার সমন্বিত প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।
পৃথক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সড়ক দুর্ঘটনা রোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি ট্রাফিক আইন মেনে চলার সংস্কৃতি গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমি আশা করি, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা দেশের সড়কগুলোকে নিরাপদ হিসেবে গড়ে তুলে সড়ক দুর্ঘটনা কাক্সিক্ষতপর্যায়ে নামিয়ে আনতে সক্ষম হব।’


আরো সংবাদ