২৬ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

মওলানা ভাসানীর মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

-

মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী গতকাল বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে।।
১৯৭৬ সালের এই দিনে ঢাকার তৎকালীন পিজি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। পরে টাঙ্গাইলের সন্তোষে তাকে দাফন করা হয়।
রাজধানী ঢাকাসহ টাঙ্গাইলের সন্তোষে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে এই জননেতার মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়। এ উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল সন্তোষে তার মাজার জেয়ারত ও আলোচনা সভা।
এ দিকে গতকাল ঢাকায় মওলানা ভাসানীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভাসানী স্মৃতি সংসদ রাজধানীর নয়াপল্টনে ভাসানী ভবনে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।
স্মৃতি সংসদের সভাপতি জিয়াউল হক মিলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাবেক ছাত্রনেতা নজমুল হক নান্নু, স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য কাজী মুনিরুল হুদা, সহসভাপতি মনসুর আলী চুন্নু ও ন্যান্সি রহমান প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
টাঙ্গাইল সংবাদদাতা জানান, টাঙ্গাইলে নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী গতকাল পালিত হয়েছে। মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে ভাসানীর মাজারে ভিসি অধ্যাপক ড. মো: আলাউদ্দিনের নেতৃত্বে শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্রছাত্রীরা পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল ও বিভাগ, মওলানা ভাসানী রিসার্চ সেন্টার, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন, কর্মচারী সমিতি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, মাভাবিপ্রবি ছাত্রলীগ, ভাসানী পরিষদ ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকেও পৃথকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। তারপর একে একে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, টাঙ্গাইল প্রেস ক্লাব, ভাসানী ফাউন্ডেশন, ভাসানীর পরিবারবর্গ, ন্যাপ ভাসানী, খোদাই খেদমতগারসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে মাজারে পুষ্পস্তবক অর্পণ ও তার রূহের মাগফিরাত কামনা করা হয়।

 


আরো সংবাদ


premium cement

সকল