১৯ মে ২০২২, ০৫ জৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩
`

চুয়াডাঙ্গার নবাগত ডিসি ও সিভিল সার্জন করোনায় আক্রান্ত

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান ও জেলার সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাৎ হাসান - ছবি : সংগৃহীত

চুয়াডাঙ্গায় সদ্য যোগদানকৃত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান ও জেলা সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাৎ হাসান করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে তাদের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। রোববার (১৬ জানুয়ারি) রাতে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া যায়।

চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাৎ হাসান বলেন, ‘দুপুরে করোনা পরীক্ষার জন্য চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক ও আমি নিজে নমুনা দিয়েছিলাম। বিকেলে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে করোনা ফলাফল পজিটিভ এসেছে। বর্তমানে আমি নিজ বাড়িতে হোম আইসোলেশনে আছি।’

চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খানের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের করোনা পরীক্ষা কেন্দ্র সূত্রে জানা যায়, রোববার দুপুর ১২টায় উপসর্গ থাকায় চুয়াডাঙ্গার নবাগত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান ও জেলার সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাৎ হাসান করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন। পরে বিকেলে র‌্যাপিড অ্যান্টিজেন টেস্টে জেলা প্রশাসক ও জেলা সিভিল সার্জনের নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়। এই ফলাফল সম্পর্কে আরো বেশি নিশ্চিত হতে দুটি নমুনাই আরটি পিসিআর আরো দুবার টেস্ট করা হয়। আরটি পিসিআর টেস্টেও দুজনের নমুনার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপর দুজনেরই নমুনা আরো নিশ্চিত হতে কুষ্টিয়া পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়েছে।

তবে ডিসি বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন বলে জেলা প্রশাসনের নেজারত ডেপুটি কালেক্টর (এনডিসি) জাকির হোসেন নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, চুয়াডাঙ্গার নবাগত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আমিনুল ইসলাম খান গত ১৩ জানুয়ারি যোগদান করেন এবং জেলা সিভিল সার্জন ডা: সাজ্জাৎ হাসান গত ১০ জানুয়ারি চুয়াডাঙ্গায় যোগদান করেন।


আরো সংবাদ


premium cement