১৮ অক্টোবর ২০২১
`

দ্বিতীয় দিনের মতো বেনাপোল থেকে সব ধরণের পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ


১৫ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে তিন দিনের কর্মবিরতির আজ বুধবার দ্বিতীয় দিনে বেনাপোল থেকে
সব ধরণের পণ্যবাহী ট্রাক চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে বেনাপেল বন্দর এলাকায় পণ্যজটের সৃষ্টি হয়েছে, যা পরবর্তীতে রূপ নিয়েছে যানজটের। তবে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম স্বাভাবিক আছে।

মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত এ কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ডভ্যান, প্রাইমমুভার পরিবহন মালিক অ্যাসোসিয়েশন। তারই সাথে একজোট হয়ে ঘোষণা করে কর্মবিরতি পালন করছেন যশোর জেলা ট্রাক মালিক সমিতি।

বেনাপোল ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির সভাপতি এ কে এম আতিকুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক আজিম উদ্দীন গাজী জানান, এ কর্মবিরতিকে সমর্থন জানিয়ে বেনাপোল বন্দর এলাকায় লিফলেট বিতরণ ও মাইকিং করে পণ্যবাহী ট্রাক চলাচলে কমবিরতি পালন করা হচ্ছে। গতকাল কোনো পণ্যবাহী ট্রাক বেনাপোল বন্দর থেকে পণ্য লোড করেনি বা বেনাপোল ছেড়ে যায়নি। আজ বুধবারও কর্মবিরতি পালন করা হচ্ছে। কর্মবিরতি পালন করায় বন্দর থেকে কোনো ট্রাক পণ্য লোড করবে না বা বেনাপোল থেকে কোনো ট্রাক ছেড়ে যাবে না বলে জানান বেনাপোল ট্রান্সপোট অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক আজিম উদ্দিন গাজী।

তিনি আরো জানান, মালিক সমিতির দেয়া ১৫ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে এ আন্দেলন করছেন বেনাপোল ট্রাক ও ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতি।

অ্যাসোসিয়েশনের ১৫ দাবির মধ্যে রয়েছে, মোটরযান মালিকদের ওপর আরোপিত অগ্রিম আয়কর (এআইটি) এর ওপর চাপিয়ে দেয়া বর্ধিত আয়কর অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে। যেসব চালক ভারী মোটরযান চালাচ্ছে তাদের সবাইকে সহজ শর্তে এবং সরকারি ফি’র বিনিময়ে অবিলম্বে ভারী ড্রাইভার লাইসেন্স প্রদান করতে হবে। ড্রাইভিং লাইসেন্সের নবায়ন ক্ষেত্রে পুনরায় হয়রানিমূলক ফিটনেস ও পরীক্ষা পদ্ধতি বাতিল করতে হবে।

এ ছড়াও পণ্য পরিবহন খাতের ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান প্রাইমমুভার ট্রেলার পরিস্থিতি সরকার নিবন্ধিত শ্রমিক ইউনিয়নগুলো গঠনতন্ত্রসম্মত কল্যাণ তহবিল সংগ্রহের ওপর কোনো অজুহাতে বিধিনিষেধ আরোপ করা চলবে না। চট্রগ্রাম প্রাইমমুভার ট্রেইলার শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিস্ট্রার নম্বর ২০৮৮ কৃত চট্রগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ সমীপে পেশ করা প্রস্তাব বা সুপারিশগুলো অবিলম্বে বাস্তবায়ন করতে হবে বলে দাবি তাদের।

বেনাপোল সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, ট্রাক মালিক
সমিতির ডাকা তিন দিনের কর্মবিরতিতে বেনাপোল বন্দর থেকে কোনো পণ্য লোড হচ্ছে না। পণ্য
লোড না হওয়ার কারণে বন্দর এলাকায় সৃষ্টি হয়েছে পণ্যজটের। পণ্যজটের কারণে আমদানি-রফতানি কায্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। একদিকে রফতানি পণ্যবাহী ট্রাক জায়গা না থাকায় রাস্তার উপর দাঁড়িয়ে রয়েছে অন্যদিকে আমদাণি পণ্য ঢুকছে। সব মিলে বেনাপোলে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। সাধারণ মানুষের চলাচলে ভাগান্তি বাড়ছে।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক মামুন তরফদার জানান, ট্রাক মালিক সমিতির ডাকা কর্মবিরতির কারণে মঙ্গলবার থেকে কোনো ট্রাক বন্দর থেকে পণ্য লোড করছেন না। তবে বেনাপোল পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম স্বাভাবিক গতিতে চলছে। বন্দর থেকে পণ্যলোড না হওয়ার কারণে বন্দরে জায়গা সঙ্কট দেখা দিয়েছে এবং পণ্যজটের সৃষ্টি হচ্ছে। আন্দোলন শেষ হলে পণ্যজট কেটে যাবে।

দেখুন:


আরো সংবাদ


মেয়ের চিকিৎসায় ১০ দিন ধরে ঢাকার হাসপাতালে থেকেও মন্দির ভাঙার আসামি (১২২৬৩)‘বাতিল হলো ঢাকা-চট্টগ্রাম এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্প’ (১১৮৪৮)প্রধানমন্ত্রী মোদি কি আগামী নির্বাচনে হেরে যাচ্ছেন বলে এখনই টের পেয়েছেন (৯৪৪৭)কাশ্মিরে নতুন করে উত্তেজনা ভারতের তালেবানভীতি থেকে? কেন সেই ভীতি? (৯৩৫৭)কাশ্মিরে এক অভিযানে সর্বোচ্চ সংখ্যক ভারতীয় সেনা নিহত (৮০০৬)৭২-এর সংবিধানে ফিরে যেতেই হবে : তথ্য প্রতিমন্ত্রী (৬১৯৩)সঙ্কটের পথে রাজনীতি (৫৯৭৪)গ্রাহকদের উদ্দেশে কারাগার থেকে যা বললেন ইভ্যালির রাসেল (৪৮৫৯)কিছু ‘বিভ্রান্তিকর খবরের’ পর বাংলাদেশের পদক্ষেপের প্রশংসা করেছে ভারত (৪৮২৫)পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর সরকারি ছুটি পুনর্নির্ধারণ (৪৭৮৬)