০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮ অগ্রহায়ন ১৪২৮, ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিজরি
`

মুলা চাষে অতি লাভ, তৃপ্তির হাসি কৃষকের মুখে


যশোরের চৌগাছায় আধুনিক পদ্ধতিতে হাইব্রিড মুলা চাষে আগ্রহ বাড়ছে। মাত্র ৩৫ থেকে ৪০ দিনে বিঘাপ্রতি লাভ হচ্ছে ৪০ হাজার টাকা। তাই কৃষকদের মুখে ফুটে উঠেছে সুখের হাসি। উপজেলার পাতিবিলা, হাজরাখানা, নারায়নপুর, পেটভরা ও লস্কারপুর মাঠে গিয়ে দেখা যায়, দিগন্তজুড়ে শতশত বিঘা জমিতে শুধুই মুলার আবাদ।

কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ বছর আধুনিক পদ্ধিতিতে উপজেলা ও পৌর এলাকায় ২৩২ হেক্টর জমিতে হাইব্রিড ৭ স্টার, হুয়াইট গোল্ড, পায়রা ৪০ ও আরলী ৩৫ সহ বিভিন্ন জাতের মুলা চাষ করেছেন কৃষকরা। তবে লস্কারপুর গ্রামের মাঠে সাধারণ মুলা চাষের চেয়ে মাঠটির ব্যতিক্রম হলো এ মাঠের সব কৃষকই বেড আকারে মুলা চাষ করেছেন। এতে বর্ষার পানি দুই বেডের মাঝখান দিয়ে রাখা ড্রেন দিয়ে নিস্কাশন হচ্ছে। এতে করে পানি না জমায় মুলার কোনো ক্ষতি হয় না।

জামালতা গ্রামের মুলা চাষী কৃষক হবিবর রহমান বলেন, এ বছর তিন বিঘা (৩৩ শতাংশে বিঘা) জমিতে ছয়টি খণ্ডে হাইব্রিড মুলা চাষ করেছি। এক বিঘা জমি থেকে ৩৫ মণ মুলা বিক্রি করেছি ৩৫ হাজার টাকায়। ক্ষেতে যে মুলা রয়েছে তাতে আরো ১০ মণের বেশি বিক্রি করা যাবে।

কথা হয় মুলা চাষি মতিয়ার রহমান, খেদের আলী, সুজা উদ্দিন ও রফি উদ্দীনের সাথে। তারা জানান, হাইব্রিড মুলা চাষে লাভ বেশি। এজন্য দেশি জাত ছেড়ে হাইব্রিড মুলা চাষ করেছি। মাত্র ৩৫ থেকে ৪০ দিনে এক বিঘা জমির মুলা বিক্রি করে লাভ হচ্ছে ৪০ হাজার টাকা। তাই কৃষকদের মুখে ফুটে উঠেছে সুখের হাসি।

পেটভরা গ্রামের মুলা চাষী আলা উদ্দীন, সামাউল ইসলাম বলেন, এ বছর বিঘাপ্রতি প্রায় পঞ্চাশ মণ করে মুলা হয়েছে। কিছু ক্ষেতে চেয়েও বেশি হয়েছে। জমি চাষ থেকে মুলা তুলে বিক্রি করা পর্যন্ত বিঘা প্রতি ৭/৮ হাজার টাকা খরচ হচ্ছে। বর্তমান বাজারে ৫০ মণ মুলার পাইকারি মূল্য ৫০ হাজার টাকা। ফলে এক বিঘা জমিতে মুলা চাষ করে ৩৫ থেকে ৪০ দিনে ৪০ হাজার টাকা লাভ হচ্ছে।

সোমবার চৌগাছায় মুলা কিনতে আসা পাইকারী ব্যাপারি খুলনার সিরাজুল ইসলাম, মিল্টন হোসেন ও আমির আলী বলেন, এ বছর আগাম হাইব্রিড জাতের মুলার ফলন অন্য বছরের চাইতে ভালো হয়েছে। মুকামে টান থাকায় দামও ভালো।

কথা বলতে বলতে তারা শ্রমিকদের সাথে নিজেরাই মুলা ট্রাকে উঠাচ্ছিলেন। বলতে থাকেন, আমরা এক হাজার টাকা মণ দরে কিনেছি, আমরা আড়তে বিক্রি করবো। সেখান থেকে খুচরা বিক্রেতারা কিনে বিক্রি করবেন। তিনি জানান, বাজারে খুচরা ৩৫/৪০ টাকা কেজি দরে মুলা বিক্রি হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি অফিসার সমরেন বিশ্বাস বলেন, উপজেলায় হাইব্রিড চায়না, চাষা কৃষাণসহ বিভিন্ন জাতের মুলা চাষ করেছেন কৃষকরা। আবহাওয়া ভালো থাকায় মুলার ফলন ও ভালো দাম পেয়ে কৃষকরা বেজায় খুশি।



আরো সংবাদ


করোনাভাইরাসের বাহানায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করবেন না : জাগপা বিনামূল্যে ঠোঁটকাটা ও তালুকাটা অপারেশন ক্যাম্প ৪২ যাত্রী নিয়ে সোয়া ঘণ্টা আকাশে : পরে চট্টগ্রামে অবতরণ অজ্ঞান পার্টির কবলে পড়ে হাসপাতালে দুই বাস যাত্রী রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোজাম্মেল আর নেই সৌদি ও মিসরের সাথে সুসম্পর্ক চায় তুরস্ক শোক সংবাদ সিলেবাস কমানোর দাবিতে আশুলিয়ায় শিক্ষার্থীদের অবরোধ, বিক্ষোভ মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কিল ল্যাবের উদ্বোধন নামের ভুলে ফাঁসির রায় পুনর্বিবেচনার দাবিতে ঢাকা বরিশাল মহাসড়ক অবরোধ সেচ ব্যবস্থার টেকসই উন্নয়নে সরকার কাজ করছে : কৃষিমন্ত্রী

সকল

রিসোর্টে নিয়ে তরুণীকে ধর্ষণ করলেন টিকটকার (১০৫৯৯)ভয়াবহ বিস্ফোরণে কাঁপল বাড়ি, ছিন্নভিন্ন ৩ জনের দেহ (৭৫৯০)তুরস্কের অর্থনৈতিক সঙ্কট, বাংলাদেশে শঙ্কা (৭৫৫৯)'কোনো রকমের পূর্বশর্ত ছাড়াই এনপিটিতে যুক্ত হতে হবে ইসরাইলকে' (৭৫১৭)ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’, চলতি সপ্তাহেই ঝড়-বৃষ্টির পূর্বাভাস (৬৪৪৪)সামরিক হামলার ভীতিই ইরানকে পারমাণবিক কার্যক্রম থেকে বিরত রাখবে : ইসরাইল (৫৮৮৩)দেশ ছেড়ে পালাতে চেয়েছিলেন কাটাখালীর মেয়র আব্বাস (৫৩৮২)টানা ৬ষ্ঠবারের মতো নির্বাচিত চেয়ারম্যান ফজু (৫০৩৭)হাইকোর্টের দ্বারস্থ সেই তুহিনারা, হিজাব পরায় বসতে পারবে না এসআই পরীক্ষায়ও! (৪৫৪০)করোনা শেষ ওমিক্রনেই ! (৩৬০৯)