২০ এপ্রিল ২০২১
`

চকলেট ও বাদাম কিনে দেয়ার প্রলোভনে ধর্ষণ, কিশোর গ্রেফতার

চকলেট ও বাদাম কিনে দেয়ার প্রলোভনে ধর্ষণ, কিশোর গ্রেফতার -

খুলনার ডুমুরিয়ায় পাঁচ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলার পর রনি সরদার (১৫) নামে এক কিশোরকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার রাতে উপজেলার ধামালিয়া ইউনিয়নের বরুনা গ্রামে ওই ধর্ষণের ঘটনার পর শনিবার মামলা ও গ্রেফতার কিশোরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। অপর দিকে, ভিক্টিম শিশুকে পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গ্রেফতারকৃত রনি ওই গ্রামের খিজির সরদারের ছেলে ও বরুনা পিডিসি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্র।

খবর পেয়ে চেঁচুড়ি ক্যাম্প পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পশ্চিমপাড়া তিন রাস্তার মোড় থেকে রাত সাড়ে ৮টার দিকে রনিকে আটক করে। ঘটনার পর রাতেই ডুমুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুর রহমান ঘটনাস্থলে যান।

এদিকে, শনিবার সকালে শিশুটির বাবা দিবারুল সরদার থানায় মামলা করেছেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় বরুনা গ্রামের শিশুটির মা রান্না করছিলেন। এ সময় পূর্ব পরিচিত পাশের বাড়ির কিশোর রনি বাড়িতে আসেন। ওই সময় শিশুকে চকলেট ও বাদাম কিনে দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে রান্না ঘরের পেছনে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এ সময় রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটির চিৎকারে মা ঘটনাস্থলে গিয়ে শিশুকে উদ্ধার করেন, রনি সাথে সাথে পালিয়ে যান।

মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই রফিকুল ইসলাম বলেন, অভিযোগের সত্যতা পেয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা হয়েছে। ঘটনাটি যেহেতু কিশোর অপরাধ তাই উপজেলা সমাজসেবা অফিসার ও জেলা শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের প্রবেশন অফিসারকে অবহিত করা হয়েছে।

ডুমুরিয়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুর রহমান বলেন, ডুমুরিয়া থানায় মামলা হয়েছে। ভিকটিম শিশুকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আর গ্রেফতার রনিকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।



আরো সংবাদ


সকল