১৭ জানুয়ারি ২০২১
`

স্ত্রীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিল স্বামী

স্ত্রীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন দিল স্বামী - নয়া দিগন্ত

যশোরের অভয়নগরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে স্ত্রীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে ভুক্তভোগীর স্বামী। বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার চাকই-মরিচা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূর নাম হিরা বেগম (৩৩)। তিনি চকাই মরিচা গ্রামের বিল্লাল সরদারের স্ত্রী।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোরে কথাকাটাকাটির জের ধরে হিরা বেগমের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে পালিয়ে যান স্বামী বিল্লাল। এ সময় ওই গৃহবধূর চিৎকারে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়েছে।

খুলনা মেডিক্যালে মুমূর্ষু অবস্থায় হিরা বেগম জানান, তার পাষণ্ড স্বামী বিল্লাল সরদার সামান্য কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে তার গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে বিলের দিকে দৌঁড়ে পালিয়ে যান।

তিনি কাঁদতে কাঁদতে আরো বলেন, ‘আমি ওই পাষণ্ড স্বামীর বিচার দাবি চাই।’

গৃহবধূর হিরা বেগমের মা মজিদা বেগম জানান, ‘চাকই গরুহাট খোলা গ্রামের বিল্লাল সরদার আমার মেয়েকে অমানুসিকভাবে তার গায়ে আগুন দিয়েছে। আমরা এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

এ ব্যাপারে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. টুম্পা কুন্ডু বলেন, হিরা বেগমের বুক, পিঠ ও দুই হাতের সিংহভাগ ঝলসে গেছে। তার প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. তাজুল ইসলাম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে ভিকটিম পরিবারের কেউ মুখ খুলতে চায়নি। এখনো পর্যন্ত থানায় এ ঘটনার কোনো লিখিত অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।



আরো সংবাদ