২৭ অক্টোবর ২০২০

বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী নিহত, সীমান্তে উত্তেজনা


চুয়াডাঙ্গায় ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে এক বাংলাদেশী যুবক নিহত হয়েছেন। নিহত যুবকের নাম অমেদুল হোসেন (২৮)। রোববার (১৮ অক্টোবর) ভোর ৪টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত অমেদুল হোসেন ঠাকুরপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে। এ ঘটনার পর ওই সীমান্তে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

নিহতের পরিবার ও স্থানীয়রা জানান, জেলার দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর গ্রামের অমেদুল হোসেনসহ ৫-৬ জন বাংলাদেশী গরু ব্যবসায়ী রোববার ভোর ৪টার দিকে ঠাকুরপুর সীমান্তের কাছে যান। ভোর ৪টার দিকে তারা সীমান্তের জিরো পয়েন্টের কাছাকাছি গেলে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের একটি টহল দল তাদের ধাওয়া করে। এ সময় অন্য সহযোগীরা পালিয়ে আসলেও বিএসএফের গুলিতে নিহত হন অমেদুল ইসলাম। এরপর তার লাশ সীমান্তের ৮৯ নম্বর পিলারের ভারতের অভ্যন্তরে ফেলে রাখে। বর্তমানে তার লাশ ভারতের একশ গজ অভ্যন্তরে হুদাপাড়া সীমান্তে পড়ে আছে বলে জানা গেছে।

চুয়াডাঙ্গা-৬ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ খালেকুজ্জান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহতের লাশ ফেরত চেয়ে এবং এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বিএসএফের কাছে চিঠি দেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।


আরো সংবাদ