১৪ জুলাই ২০২০

খুলনায় বাস চলাচল শুরু, ভাড়া ও স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে অভিযোগ

খুলনায় বাস চলাচল শুরু, ভাড়া ও স্বাস্থ্যবিধি নিয়ে অভিযোগ - ছবি : নয়া দিগন্ত

খুলনার অভ্যন্তরীণ ও আন্তঃজেলা সড়কগুলোতে গণপরিবহন চলাচল শুরু হয়েছে। দুই মাসের ও বেশি সময়ের পর করোনাভাইরাসের সংক্রমণের শংকা নিয়েই মানুষ সোমবার সকাল ৬টা থেকে বিভিন্ন গন্তব্যের বাসে চাপতে থাকেন।

বাস চালু হলেও সাধারণ যাত্রীদের সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে। আবার নিজেরাও সমস্যার কারণ হচ্ছেন। সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আসন প্রতি ৬০ শতাংশ ভাড়া বেশি নেয়ার দাবি করলেও অভিযোগ করেন ভাড়া দ্বিগুণ নেয়া হচ্ছে। যানবাহনে সরকারি নির্দেশনা মোটামুটি মেনে যাত্রীদের উঠানামা করতে দেখা যায়। তবে কাউন্টারগুলোর সামনে খুব কম যাত্রীকেই শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে দেখা যায়। দীর্ঘদিন পর দেখা হওয়ায় অনেক যাত্রী ও বাস শ্রমিককে পরস্পরের সঙ্গে করমর্দন ও কোলাকুলি করতেও দেখা যায়। আর স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে প্রশাসনের কোনো নজরদারি দেখা যায়নি।

সোমবার সকালে খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনালে গিয়ে দেখা যায়, অনেক যাত্রী ঢাকাসহ বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়ার জন্য সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনালে এসেছেন। টিকিট কাউন্টারগুলো থেকে টিকিট কেটে যাত্রীরা বাসে ওঠার সময় তাদের মুখে মাস্ক থাকা এবং হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও পায়ে জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়। সকালে যাত্রীর সংখ্যা কম ছিল। তবে বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যাত্রীর সংখ্যা বাড়তে থাকে।

এদিকে, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরিবহন শ্রমিকরা আসন প্রতি ৬০ শতাংশ ভাড়া বেশি নেয়ার দাবি করলেও যাত্রীদের অভিযোগ তাদের কাছ থেকে দ্বিগুণ ভাড়া নেয়া হচ্ছে। খুলনা-পাইকগাছা রুটে একেকজন যাত্রীর বাস ভাড়া ৯০ টাকা। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী ৬০ শতাংশ বৃদ্ধিতে ভাড়া হওয়ার কথা ১৫০ টাকা। সেখানে নেয়া হচ্ছে ১৮০ টাকা। এছাড়া খুলনা থেকে যশোরের ভাড়া ৯০ টাকার জায়গায় নেয়া হচ্ছে ১৮০ টাকা। একইভাবে খুলনা-ফরিদপুর ও কুষ্টিয়াসহ অন্যান্য রুটেও দ্বিগুণ ভাড়া নিতে দেখা যায়।

পাইকগাছাগামী একজন যাত্রী জানান, তিনি করোনার আগে পাইকগাছায় যেতেন ৯০ টাকা দিয়ে। আজ পাইকগাছার যাওয়ার জন্য টিকিট কিনতে হয়েছে ১৮০ টাকা দিয়ে। তার অভিযোগ ১৫০ টাকা দিলেও তাকে কাউন্টার থেকে টিকিট দেয়া হয়নি। একই ধরনের অভিযোগ নড়াইল-কালনা রুটের যাত্রীদের। তবে ঢাকার যাত্রীদের অভিযোগ তেমন পাওয়া যায়নি। ঢাকাগামী যাত্রীরা জানান, ১২০০ টাকার টিকিটের দাম ১৮০০ টাকা করে নেয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে মোটামুটি ঠিকই আছে।

খুলনা মোটরশ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন বিপ্লব বলেন, সরকারের নির্দেশনা মেনেই খুলনার সোনাডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে ১৮টি রুটে গণপরিবহন চলাচল শুরু হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধির ক্ষেত্রে প্রতিটি বাসের শ্রমিকদের হ্যান্ডগ্লাভস ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার এবং যাত্রীদের হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করার বিষয়ে বলা হয়েছে। যাত্রীদের মুখে মাস্ক ছাড়া টিকিট দেয়া হচ্ছে না। তবে ভাড়া বেশি নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেলে সেই গাড়ির চালক-হেলপার ও গাড়ির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরো সংবাদ