০৩ জুন ২০২০

৩৯ ঘন্টা পর বিদ্যুতের দেখা মিললো কুষ্টিয়ায়

৩৯ ঘন্টা পর বিদ্যুতের দেখা মিললো কুষ্টিয়ায় - সংগৃহীত

প্রায় ৩৯ ঘন্টা পর বিদ্যুতের দেখা পেয়েছে কুষ্টিয়ার মানুষ। শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে শহরের কিছু এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ দিলেও তা স্বল্প সময়ের জন্য ছিল। পুরো জেলা বিদ্যুৎ সংযোগ স্বাভাবিক হতে আরো কয়েকদিন সময় লাগবে বলে জানা গেছে।

বুধবার সন্ধ্যার পর থেকে আমফানের ঝড়ো হাওয়া বইতে থাকে। রাত ১০টার পর থেকে এরতীব্রতা বেড়ে যায়। এ সময় শহরতলী বটতৈল এলাকায় অবস্থিত জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রীডের উপকেন্দ্রে আগুন লেগে যায়। ঝড়ের মুহুর্তে এই অগ্নিকাণ্ডে পুরো এলাকা আলোকিত হয়ে উঠলে এলাকার মানুষ আরো বেশি আতংকিত হয়ে পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের বেশকটি ইউনিটের চেষ্ঠায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু তার আগেই দুটি গুরুত্বপূর্ণ ট্র্যান্সমিশন একেবারে পুড়ে যায়। ফলে রাত ১০টা থেকে কুষ্টিয়াসহ তিনটি জেলা বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে। বৃহস্পতিবার খুলনা থেকে নতুন ট্যান্সমিশন এনে বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠায় পুনঃসংযোগ দিয়ে সাময়িকভাবে বেশ কয়েকটি স্থানে সংযোগ দেয়া হয়।

শুক্রবার দুপুরে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়। এদিকে জেলার অধিকাংশ এলাকা এখনো বিদ্যুৎহীন রয়েছে ফলে মানুষ বাসাবাড়িতে পানি তুলতে না পারায় খাবার পানি ও ব্যবহারের পানির মারাত্মক সংকট দেখা দিয়েছে। এদিকে ভাবসাগরমে মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এছাড়া ফ্রিজে রাখা কাচা গোস্ত, দুধ, মাছসহ অন্যান্য খাবার নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

এদিকে আমফানের ফলে জেলার বিভিন্ন এলাকায় লিচু, আম, কলাবাগান, পানেরবরজ, জমির ধান ও সবজির ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এক টানা চার ঘন্টা ঝড় এবং বৃষ্টিতে অনেক গাছ উপড়ে পড়েছে। শহরের
ডিসি কোর্ট এলাকার এবং শহরের অনেক স্থানে সড়কের উপর গাছ উপড়ে পড়েছে। এদিকে ঝড়ের পর থেকে মোবাইলের নেটওয়ার্ক সমস্যার সৃষ্টি হয়।


আরো সংবাদ