২৯ মার্চ ২০২০

নিরাপত্তা সামগ্রীর দাবিতে খুমেক হাসপাতালে শিক্ষানবীস চিকিৎসকদের কর্মবিরতি

-

প্রয়োজনীয় পারসোনাল প্রটেকটিভ ইক্যুইপমেন্ট (পিপিই) পাওয়ার দাবিতে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক) হাসপাতালের শিক্ষানবীস চিকিৎসকরা কর্মবিরতি শুরু করেছেন। তারা রোববার দুপুর ২টা থেকে হাসপাতালে রোগী দেখা বন্ধ করে দেন।

হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডা. হাসান শাহরিয়ার কর্মবিরতির এ খবর জানান। হাসপাতালটিতে দেড় শতাধিক ইন্টার্ন ডাক্তার রয়েছেন।

ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডা: শাহরিয়ার বলেন, করোনাভাইরাস নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে যেমন উদ্বেগ বেড়েছে, চিকিৎসকদের মনেও রয়েছে একই রকম উদ্বেগ। কারণ রোগীদের চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত চিকিৎসকরাই রয়েছেন অরক্ষিত। গত কয়েকদিন ধরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে আমরা পিপিই দাবি করলেও ব্যবস্থা হয়নি। আবার বাজারে এসব সরঞ্জামের সংকট থাকায় টাকা দিয়েও কেনা সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি আরো বলেন, সম্প্রতি হাসপাতালে দায়িত্ব পালনরত দু’জন ইন্টার্ন চিকিৎসক ভাইরাসজনিত রোগে আক্রান্ত হন। এতে তাদের মধ্যে ভয় দেখা দিয়েছে। ভাইরাসজনিত রোগে সংক্রমিত হওয়ার ভয়ে প্রয়োজনীয় পিপিই ছাড়া কোনো ইন্টার্নী ওয়ার্ডগুলোতে চিকিৎসা দিতে যাবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এদিকে, শিক্ষানবীস চিকিৎসকদের কর্মবিরতির কারণে হাসপাতালে রোগীরা চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

এ ব্যাপারে খুমেক হাসপাতালের পরিচালক ডা. এটি এম মঞ্জুর মোর্শেদ বলেন, ‘আমি ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি তুলে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছি। পিপিই ছাড়া সর্দি-জ্বরের রোগীদের তাদের কাছে পাঠানো হবে না বলেও আশ্বস্ত করেছি। তারপরও তারা কর্মবিরতি পালন করছেন। আশা করি দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হবে।


আরো সংবাদ