০২ এপ্রিল ২০২০

নকলের দায়ে ইবির ২২ শিক্ষার্থীর শাস্তি

পরীক্ষায় নকলের দায়ে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ২২ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তি দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। রোববার পরীক্ষা শৃঙ্খলা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

প্রশাসন ভবনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় ভিসি অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারীর সভাপতিত্বে প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমান, ট্রেজারার অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আব্দুল লতিফ, ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আবুল কালাম আজাদ লাভলুসহ সকল অনুষদের ডিনরা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র মতে, পরীক্ষায় অসদুপায় অবলম্বনের দায়ে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী শিহাব আহমেদ তুহিনকে দুই বছরের জন্য, আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের আতিকুর রহমান, সাইফুল ইসলাম ও ইইই বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের আবু তালেবকে এক বছরের জন্য বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়।

এছাড়াও ৬ শিক্ষার্থীকে এক সেমিস্টারের জন্য বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়। তারা হলেন, বায়োমেডিক্যল এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের আমিনুর রহমান রাব্বি, ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের তানজির আলম, জুলিয়াত ইসলাম, আইন বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের তাহসিন বিন আল হাসান বাপ্পী, ব্যাবস্থাপনা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের মাহবুবুল ইসলাম ও সৌরভ আল আমিন।

একই সাথে ১২ শিক্ষার্থীর একটি করে কোর্সের পরীক্ষা বাতিলের সুপারিশ করা হয়। তারা হলেন, আরবি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের মাহফুজ হোসাইন, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের নুর মোহাম্মদ, আবুল কাশেম, ইমন হোসাইন, রাকিবুল হাসান, হাসিনা খাতুন, সুমাইয়া খাতুন, শিবলী আল সাদিক ও সাকিব হোসাইন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের মল্লিক সোহেল রানা, ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের সুভন দত্ত এবং ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের সাকিব হোসাইন।

এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক বলেন, পরীক্ষা শৃঙ্খলা কমিটির সভায় ২২ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে। আগামী সিন্ডিকেট সভায় এটি চুড়ান্ত করা হবে।


আরো সংবাদ