০১ এপ্রিল ২০২০

অপচয়কারীকে আল্লাহ অপছন্দ করেন

-


আল্লাহ তায়ালা কুরআনুল কারিমে ইরশাদ করেন, ‘খাও, পান করো কিন্তু অপচয় করো না। নিশ্চয়ই আল্লাহ তায়ালা অপচয়কারীকে পছন্দ করেন না।’ (সূরা আরাফ : ৩১)
ইবনে আব্বাস রা: বলেন, আল্লাহ তায়ালা পানাহারকে হালাল সাব্যস্ত করেছেন, যে পর্যন্ত না তার মধ্যে অপব্যয়, অহঙ্কার ও আত্মম্ভরিতা না হয়।
হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আমর রা: থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসূলুল্লাহ সা: ইরশাদ করেন, ‘মানুষের গুনাহগার ও পাপী হওয়ার জন্য এতটুকুই যথেষ্ট যে, সে তার খাদ্যদ্রব্য নষ্ট করছে অথবা যাদের ভরণপোষণের দায়িত্ব তার ওপর, সে তাদের অবজ্ঞা করছে। সুনানে আবু দাউদ ১৬৯২
কোনো কোনো মনীষী খাবার খাওয়ার পর খাবারের প্রত্যেকটা উচ্ছিষ্ট অংশ আলাদা করতেন এবং যেটা যার জন্য উপযোগী সেটা তাকে দিতেন। যেমন কুকুরের জন্য হাড়, বিড়ালের জন্য কাঁটা, ছোট ছোট খাদ্যকণা পিপড়াদের দিতেন। এভাবে তারা প্রতিটি খাদ্যকণার সম্মান, যথার্থ ব্যবহার ও মূল্যায়ন করতেন।
একবার হজরত মাওলানা আশরাফ আলী থানভী রহ: অসুস্থ হলে তাকে এক গ্লাস দুধ পেশ করা হলো। তিনি পান করার পর সামান্য কিছু দুধ রয়ে গেলে তা শিয়রের কাছে রেখে শুয়ে পড়েন। পরে ঘুম থেকে ওঠে গ্লাস দেখতে না পেয়ে খাদেমকে জিজ্ঞেস করলেন, অবশিষ্ট দুধটুকু কী করা হয়েছে? খাদেম বলল, হজরত! দুধ খুব সামান্য ছিল তাই ফেলে দিয়েছি।
এতে তিনি ুব্ধ ও মর্মাহত হয়ে বললেন, তুমি আল্লাহর নিয়ামতের চরম অবজ্ঞা করেছ। তুমি নিজেই পান করে নিতে অথবা কোনো বিড়ালকে দিয়ে দিতে। এতে আল্লাহর কোনো মাখলুকের উপকার হতো। এরপর তিনি একটি নীতিগত কথা বললেন যে, যেসব জিনিস দ্বারা মানুষ অধিক পরিমাণে উপকৃত হয় তার সামান্য পরিমাণেরও মূল্যায়ন ও সম্মান করা আমাদের দায়িত্ব ও কর্তব্য। ফাতওয়া জামিয়া মা’কিল ইবনে ইয়াসার রা: থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন যে, একদা তিনি সকালের খাবার খাচ্ছিলেন। হঠাৎ তার একটি গ্রাস নিচে পড়ে গেল। তিনি তা তুলে নিয়ে তার ময়লা দূর করে আহার করেন।
এতে অনারব কৃষকরা চোখ টিপাটিপি করতে লাগল। বলা হলো, আল্লাহ নেতাকে কল্যাণের সাথে রাখুন। নিচে পতিত খাবার তুলে নেয়ায় এসব কৃষক আপনার প্রতি চোখ টিপাটিপি করছে। তিনি বলেন, এসব অনারবের কারণে আমি রাসূলুল্লাহ সা:-এর কাছ থেকে শ্রুত কথা ত্যাগ করতে প্রস্তুত নই।
আমাদের মধ্যে কারো খাবারের গ্রাস পড়ে গেলে তাকে নির্দেশ দেয়া হতো যে, সে যেন তা তুলে নিয়ে তার ময়লা দূর করে খেয়ে নেয় এবং শয়তানের জন্য ফেলে না রাখে। (সুনানে ইবনে মাজাহ)
লেখক : নিবন্ধকার


আরো সংবাদ

মানবিক বিবেচনায় সাঈদীর মুক্তি চান মিরসরাই পীর ঝালকাঠিতে জ্বর-ডায়রিয়ায় শিশুর মৃত্যু, ৬ পরিবার কোয়ারেন্টাইনে কর্মহীন বিএনপির ঘরে ঘরেও খাদ্য সামগ্রী পৌঁছিয়ে দিন : এমপি মোহন মৃত ব্যক্তির দেহে ৪ ঘন্টা পর্যন্ত করোনাভাইরাস থাকতে পারে নিজেদের চিকিৎসার সব অর্থ বিলিয়ে দিলেন দম্পতি ইতালিতে আতঙ্কের এক মাস ব্রিটেনে আটকা পড়া বাংলাদেশীদের হাই কমিশনের সাথে যোগাযোগ করার পরামর্শ কারফিউ অমান্য করে চুল কাটাতে চাওয়ায় আটক সৌদি নাগরিক মুসলিমদেরকে দোষারোপের জন্য দিল্লির মসজিদকে ব্যবহার করা হচ্ছে : ক্রুদ্ধ ওমর আবদুল্লাহ আবেগে কেঁদে ফেললেন আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স কোভিড -১৯ আক্রান্ত নারীর যমজ সন্তান : নাম রাখা হলো করোনা ও ভাইরাস

সকল