০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯, ৫ রবিউল আওয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

গাজা সঙ্ঘাত প্রশ্নে জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক


গাজার বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে জাতিসঙ্ঘ নিরাপত্তা পরিষদ সোমবার জরুরি বৈঠক করেছে। এদিকে তিন দিনের ব্যাপক সঙ্ঘাতের পর ইসলামি জিহাদের যোদ্ধা এবং ইসরাইলের মধ্যে দুর্বল অস্ত্রবিরতি চুক্তি সত্ত্বেও এ সংস্থার অনেক সদস্য দেশ সেখানে সঙ্ঘাতের ব্যাপারে তাদের উদ্বেগের কথা তুলে ধরেছে। খবর এএফপি’র।

বৈঠকের শুরুতে ভিডিও বার্তার মাধ্যমে দেয়া বক্তব্যে জাতিসঙ্ঘ মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক দূত টর উইনেসল্যান্ড সতর্ক করে বলেন, ফের যুদ্ধ শুরু হলে পরিণতি হবে ‘ভয়াবহ’।

তিনি সতর্ক করে বলেন, ‘এ অস্ত্রবিরতি ভঙ্গুর।’

রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত ভসিলি নেবানজিয়া জোর দিয়ে বলেন, সেখানে আবারো সঙ্ঘাত ছড়িয়ে পড়ায় নিরাপত্তা পরিষদ গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। আর এই সঙ্ঘাত পুরোদমে সামরিক লড়াই ফের শুরুর ক্ষেত্রে ইন্ধন যোগাতে পারে। সেখানে আবার যুদ্ধ বেধে গেলে গাজা মানবিক পরিস্থিতির আরো অবনতি ঘটবে। সেখানের মানবিক পরিস্থিতির ইতোমধ্যে অনেক অবনতি ঘটেছে।

ইসরাইলি সামরিক বাহিনী জানায়, তারা শুক্রবার থেকে গাজায় ইসলামি জিহাদের বিভিন্ন অবস্থান লক্ষ্য করে ব্যাপক বিমান ও কামানের গোলা বর্ষণ করেছে। এর প্রতিশোধ নিতে ইসলামি যোদ্ধারা সহস্রাধিক রকেট হামলা চালায়।

গত বছর ১১ দিনের যুদ্ধের পর এ সহিংসতা ছিল গাজার সবচেয়ে ভয়াবহ যুদ্ধ। মিশরের মধ্যস্থতায় রোববার রাতে একটি অস্ত্রবিরতিতে পৌঁছানোর পর লড়াইয়ের সাময়িক অবসান ঘটে।

গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, এ সঙ্ঘাতে গাজা উপত্যকায় ১৫ শিশুসহ ৪৪ জন নিহত ও ৩৬০ জন আহত হন। নিউইয়র্কে জাতিসঙ্ঘ সদর দফতরে নিরাপত্তা পরিষদের রুদ্বদ্ধার আলোচনা অনুষ্ঠিত হলেও কোনো বিবৃতির আশা করা যাচ্ছে না।

বেশ কয়েকটি কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের পর উন্মুক্ত বিতর্ক অনুষ্ঠিত হতে পারে।


আরো সংবাদ


premium cement