১৩ আগস্ট ২০২২
`

ইউক্রেনে লাখ লাখ মানুষ তীব্র সঙ্কটে : জাতিসঙ্ঘ

ইউক্রেনে লাখ লাখ মানুষ তীব্র সঙ্কটে : জাতিসঙ্ঘ - ফাইল ছবি

জাতিসঙ্ঘের সংস্থাগুলো বলছে, রাশিয়ার আক্রমণের পর চার মাসেরও বেশি সময় ধরে ইউক্রেনের লাখ লাখ মানুষ খাদ্য, পানি, আশ্রয় ও অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের চরম সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে।

রাশিয়ার আক্রমণের আলোকে ইউক্রেনীয়দের সহায়তা প্রদানের চেষ্টা করে যাচ্ছে জাতিসঙ্ঘের সংস্থাগুলো। কিন্তু তারা বলছে, রুশ বিমানহামলা ও গোলাবর্ষণের ফলে হওয়া ধ্বংসযজ্ঞ এবং নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কা থাকায় কিছু কিছু এলাকায় সরবরাহ পৌঁছনো কষ্টসাধ্য হয়ে উঠছে।

সংস্থাগুলো জানিয়েছে, খেরসন এবং মারিউপোলে প্রবেশ করা এবং ত্রাণ সরবরাহ প্রদান করা সম্ভব নয়। রুশ বিমানহামলায় ওই দুই শহর ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে।

ইউক্রেনে জাতিসঙ্ঘের মানবতা বিষয়ক সমন্বয়ক, ওসনাত লুবরানি কিয়েভ থেকে জানান, আনুমানিক ১০ হাজার বেসামরিক মানুষ হতাহত হয়েছেন। তিনি আরো বলেন, এই অনুমান হয়ত প্রকৃত সংখ্যার অংশবিশেষ মাত্র। তিনি জানান ইউক্রেনে প্রায় ১ কোটি ৬০ লাখ মানুষের মানবিক সহায়তা ও নিরাপত্তা প্রয়োজন।

লুবরানি বলেন, জাতিসঙ্ঘসহ অন্যান্য বেসরকারি ত্রাণ সংস্থাগুলো ইউক্রেনের প্রতিটি অঞ্চলে এ পর্যন্ত প্রায় ৯০ লাখ মানুষকে সহায়তা প্রদান করেছে। তিনি আরো জানান, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের জন্য প্রায় ২০ লাখ মানুষকে নগদ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

ইউক্রেনের সঙ্কটের প্রভাব সারা বিশ্বেই পড়েছে। ইউক্রেনের কৃষ্ণ সাগর সংলগ্ন বন্দরগুলোকে রুশ জাহাজগুলো অবরুদ্ধ করে রেখেছে। এর মাধ্যমে ইউক্রেন থেকে গম ও অন্যান্য শস্য মধ্যপ্রাচ্য, উত্তর আফ্রিকা ও এশিয়ার কিছু এলাকায় রফতানি করতে বাধা প্রদান করা হচ্ছে।

জাতিসঙ্ঘ সতর্ক করে দিয়েছে যে এর ফলে একটি বৈশ্বিক খাদ্য সঙ্কট তৈরি হচ্ছে।

জাতিসঙ্ঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির সহকারী জরুরি সমন্বয়ক, কেট নিউটন বলছেন, কৃষ্ণ সাগরের বন্দরগুলো ছাড়া ইউক্রেনের যতটা প্রয়োজন তার কাছাকাছি মাত্রায়ও রফতানি করা সম্ভব না।


আরো সংবাদ


premium cement