১২ আগস্ট ২০২২
`

শিশুর খাবারে সচেতন হোন

শিশুর খাবারে সচেতন হোন -


শিশু চিকিৎসককে খাবারের ব্যাপারে মায়ের হাজারো প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়। এই উত্তরগুলো হতে হয় পাঠ্যবই সমর্থিত, বৈজ্ঞানিক এবং নিজের দেশের আচারের সাথে প্রাসঙ্গিক। ইদানীং চোখ-কান খোলা রাখলে এমন কিছু সমস্যার দেখা পাবেন যার উত্তর আধুনিক সভ্য দেশে রচিত কোনো বইয়ে নেই। সমস্যাগুলো একান্তই বাংলাদেশীয়।
১. শিশুকে কোন ফল দেয়া যাবে : আঙুর, মাল্টা, নাশপাতি এসব বিদেশী ফলে প্রচুর ভিটামিন রয়েছে। খেতেও সুস্বাদু। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে পচনরোধক হিসেবে কী মাত্রায় প্রিজারভেটিভ দেয়া হয়েছে, আড়তে নিষিদ্ধ ফরমালিন দেয়া হয়েছে কি না, তা কি আমি জানি? এমনকি দেশী লিচু, আম পাড়ার কতণ আগে কীটনাশক দেয়া হয়েছে সে নিয়ম কি চাষিরা মানেন? আমরা দেখি, এসব ফল খেয়ে হাঁপানি বেড়ে যাচ্ছে, পেটে ব্যথা হচ্ছে, বমি হচ্ছে, রুচি নষ্ট হচ্ছে। সমাধান কি জানা আছে আমাদের?
২. বাবুকে কি কলিজা, ডিম দিতে হবে : অবশ্যই দেয়া উচিত। এগুলোকে প্রচুর ভিটামিন, লৌহ এবং অন্যান্য পুষ্টি কণিকা ভরপুর থাকে। তবে আমাদের খামারিরা ভয়ঙ্কর মাত্রায় এন্টিবায়োটিক, দূষণে ভরা তিকর ফিড দিয়ে গরু, মুরগি মোটাতাজা করেন, আর এই বিপজ্জনক পদার্থগুলো জমে পশুপাখির কলিজা, বৃক্ক, ডিমে। খেয়াল করে দেখবেন, ইদানীং শিশুদের যকৃত, বৃক্কের অসুখ বেড়ে যাচ্ছে, ওরা মুটিয়ে যাচ্ছে, অল্প বয়সে ডায়াবেটিস হচ্ছে, এন্টিবায়োটিক কার্যকারিতা হারিয়ে ফেলছে। ওরা তাহলে খাবেটা কি?
৩. পোলাওর চাল দিয়ে ঝাউ, খিচুড়ি দেবো : ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, দেশে অনেক পোলাওর চাল ধবধবে, সাদা করার জন্য তিকর কেমিক্যাল স্প্রে করা হয়। বুকের দুধের শিশুকে বাড়তি খাবার শুরু করতে গিয়ে মায়েরা দেখছেন, হজমে সমস্যা হচ্ছে, বমি, পাতলা পায়খানা হচ্ছে। চাল নিয়ে এমন ভয়ানক চালবাজি চলতে দেয়া উচিত নয়।
৪. গরুর দুধে কতটুকু পানি মেশানো উচিত : আমাদের এই ভারতীয় উপমহাদেশ ছাড়া পৃথিবীর অন্য কোথাও দুধে পানি মেশানো হয় কি না জানা নেই। বিশেষজ্ঞদের মতে, এক বছর বয়স হলে পানি, চিনি না মিশিয়ে গরুর দুধ শুরু করতে পারেন।
লেখাটি মোটেই আপনার মন খারাপের জন্য নয়, বরং সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে লেখা। আমাদের ব্যক্তিগত এবং সামাজিকভাবে স্থানীয় উৎপাদিত, ভেজালমুক্ত, টাটকা খাদ্যদ্রব্য সংগ্রহে মনোযোগ দিতে হবে। পশুপাখির খামারে উন্নতমানের ফিড এবং সহনীয় মাত্রার এন্টিবায়োটিক নিশ্চিত করতে হবে। বিদেশী খাবার, প্যাকেটজাত দ্রব্য, সিরিয়াল প্রভৃতি এড়িয়ে চলতে হবে। বিশুদ্ধ খাবার আল্লাহ তায়ালার বিশাল নিয়ামত। আমরা যেন ‘বিশুদ্ধ’কে বিষে পরিণত না করি।
লেখক : শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ, আইসিএমএইচ, মাতুয়াইল, ঢাকা।

 


আরো সংবাদ


premium cement
সমুদ্র বন্দরসমূহে আজও ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত টেস্টেও শীর্ষে উঠার সুযোগ আছে বাবরের আওয়ামী লীগ চাপে পড়ে নিজেদের সভ্য দেখাচ্ছে : মির্জা ফখরুল ভারতীয় ঘাঁটিতে ফরাসি যুদ্ধবিমান, মহড়া শুরু প্রশান্ত মহাসাগরে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপি দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করতে চায় : ওবায়দুল কাদের বরগুনায় পুলিশি বাধায় বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল পণ্ড নবাবগঞ্জে পুকুর থেকে ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার আড়াই মাসের মিষ্টি কুমড় চাষে লাভ হলো ৩৫ লাখ টাকা জাবির ভিসি প্যানেল নির্বাচন আজ, অংশ নিচ্ছে আ’লীগের ৩ গ্রুপ ড্রোন উড়ানো কেন নিষিদ্ধ করতে বাধ্য হলো সংযুক্ত আরব আমিরাত

সকল