০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ১০ রজব ১৪৪৪
ads
`

আর্জেন্টিনা কি পারবে অপ্রতিরোধ্য ডাচদের রুখতে?

আর্জেন্টিনা কি পারবে অপ্রতিরোধ্য ডাচদের রুখতে? - ছবি : সংগৃহীত

কাতারের লুসাইল স্টেডিয়ামে আজ কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় হাই ভোল্টেজ ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের মুখোমুখি হবে আর্জেন্টিনা। খেলা মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় রাত ১টায়।

এখন পর্যন্ত ৯ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে এই দুই দল। যেখানে একটুখানি এগিয়ে আছে নেদারল্যান্ডস। নেদারল্যান্ডসের ৪ জয়ের বিপরীতে আর্জেন্টিনার জয় মাত্র ৩ ম্যাচে। বাকি দুই ম্যাচের ফলাফল ড্র। বিশ্বকাপেও ৫ বার দেখা হয়েছে দুই দলের। যেখানে দুটিতে জিতেছে ডাচরা, একটিতে আর্জেন্টিনা। ড্র হয়েছে বাকি দুটি। মোট ৯ বারের দেখায় নেদারল্যান্ডস হেরেছে মাত্র ১ বার। ফলে পরিসংখ্যানে পিছিয়েই আছে আর্জেন্টিনা।

টানা ৩৬ ম্যাচ অপরাজিত থেকে এবারের আসরের অন্যতম ফেভারিট হিসেবে বিশ্বকাপে এসেছিল আর্জেন্টিনা। সৌদি আরবের বিপক্ষে হেরে এবারের বিশ্বকাপ শুরু করলেও, বাকি দুই ম্যাচে জিতেই রাউন্ড অফ সিক্সটিনে জায়গা করে নেয় দলটি। প্রি কোয়ার্টার ফাইনালে ২-১ গোলে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে কোয়ার্টারে জায়গা করে নেয় তারা।

আজকের ম্যাচটিও নিঃসন্দেহে হতে চলেছে আর্জেন্টাইনদের জন্য কঠিন একটি ম্যাচ। ম্যাচের আগে চোট হানা দিয়েছে আর্জেন্টাইন শিবিরে। মিডফিল্ডার রদ্রিগো ডি পলের হ্যামস্ট্রিং ইনজুরি দলটির কোচ লিওনেল স্কলানিকে বেশ ভাবাচ্ছে। কিন্তু এখনো পুরোপুরি সেরে ওঠেননি তিনি। রদ্রিগো সুস্থ হয়ে না উঠলে তার জায়গায় খেলবেন ম্যাক অ্যালিস্টার। এছাড়া বিশ্বকাপ শুরুর আগেই গোড়ালিতে চোট পেয়েছেন লাউতারো মার্টিনেজ। প্রতি ম্যাচেই ব্যথার ইনজেকশন নিচ্ছেন তিনি। রাউন্ড অফ সিক্সটিনের ম্যাচেও তাকে শুরুর একাদশে রাখেননি কোচ। আজকের ম্যাচেও শুরুর একাদশে এই দুজনের নাম নাও দেখা যেতে পারে।

বিপরীতে শেষ ১৫ ম্যাচে অপরাজিত থেকে বিশ্বকাপে এসেছে নেদারল্যান্ডস। চলতি বিশ্বকাপেও এখনো হারের মুখ দেখেনি দলটি। ফলে শেষ ১৯ ম্যাচ ধরে দলটি অপরাজিত। বিশ্বকাপে এখনো হারেনি- এমন চারটি দলের মাঝে নেদারল্যান্ডস তারমধ্যে একটি। বাকি চারটি দল ছিল ইংল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া, মরক্কো। শেষ ষোলতে যুক্তরাষ্ট্রকে ৩-১ গোলে হারিয়ে কোয়ার্টার নিশ্চিত করে ডাচরা।

২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে ইউরোপের বাছাইপর্বে আটকে গিয়েছিল নেদারল্যান্ডস, ফলে তারা অংশ নিতে পারেনি সেবারের আসরে। ২০১৪ বিশ্বকাপে তৃতীয় হয়েছিল ডাচরা। ২০১০ সালে শিরোপার খুব কাছে গিয়েও স্বপ্ন ভাঙে, স্পেনের কাছে হেরে রানার্স আপ হয় দলটি।

ইতিহাসের প্রথম বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের মিশনে এবারের আসরের জন্য বেশ ভারসাম্যপূর্ণ দল সাজিয়েছেন নেদারল্যান্ডস কোচ লুই ভ্যান হাল। ভার্জিল ভ্যান ডাইক, ম্যাথিয়াস ডি লিখট, জুরিয়েন টিম্বার ও নাথান অ্যাকেদের নিয়ে গড়া ডিফেন্স এবার নেদারল্যান্ডসের সবচেয়ে শক্তিশালী জায়গা। এছাড়া আক্রমণ ভাগের কোডি গাকপো এবং মেম্ফিস ডিপাইও ভালো ছন্দে আছেন।

২০১৪ সালের বিশ্বকাপে শেষবার মুখোমুখি হয়েছিল নেদারল্যান্ডস- আর্জেন্টিনা। সেমিফাইনালের সেই লড়াই ১২০ মিনিট পেরিয়ে শেষ পর্যন্ত গড়ায় টাইব্রেকারে। সেই ম্যাচে সার্জিও রোমেরোর নৈপুণ্যে ৪-২ ব্যবধানে জিতে ফাইনালে পৌঁছেছিল আর্জেন্টিনা। ২০১৪ সালের আগে, ২০০৬ সালে দেখা হয়েছিল দুই দলের। গ্রুপ পর্বের সেই ম্যাচও গোলশূন্য ড্র হয়। তাই অনেক বিশেষজ্ঞরা ধারণা করছেন আজকের ম্যাচেও খেলা গড়াতে পারে টাইব্রেকারে। তবে নির্ধারিত সময়ে খেলা শেষ করেই সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করাটাই মূল লক্ষ্য থাকবে দুই দলের।


আরো সংবাদ


premium cement