০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ন ১৪২৯, ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরি
`

আবারো হারল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা

আবারো হারল বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা - ছবি : সংগৃহীত

কোপেনহেগেনের পারকেন স্টেডিয়ামে রোববার রাতে উয়েফা নেশন্স লিগে ‘এ’ লিগের এক নম্বর গ্রুপের শেষ রাউন্ডে ডেনমার্কের কাছে ০-২ গোলে হেরেছে ফ্রান্স। ডেনিশদের হয়ে গোল দুটি করেন কাসপের ডলবার্গ ও আন্দ্রেয়াস ওলসেন।

তবে হেরেও অন্য ম্যাচের ফল পক্ষে আসায় নেশন্স লিগের প্রথম স্তরে টিকে গেছে গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স।

চোটের কারণে নিয়মিতদের অনেককে হারানো ফ্রান্স প্রথমার্ধে ছয় মিনিটের ব্যবধানে হজম করে দুই গোল। ব্যবধান ঘোচাতে মরিয়া হয়ে আক্রমণ করে গেল তারা। সুযোগও মিলল। কিন্তু প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক কাসপের স্মাইকেলের দেয়াল ভাঙতে পারলেন না কিলিয়ান এমবাপ্পেরা।

আসরে ডেনমার্কের বিপক্ষে দুবারের দেখায়ই হারল ফ্রান্স। গত জুনে ঘরের মাঠে ডেনমার্কের কাছে ২-১ গোলের হারে শুরু হয়েছিল ফ্রান্সের অভিযান এবং এই ডেনিশদের কাছেই এবার ২-০ গোলে হেরে উয়েফা নেশন্স লিগের অভিযান শেষ হলো তাদের। দুই মাস পর আবারো দেখা হবে দুই দলের, কাতার বিশ্বকাপে।

ফ্রান্স শুরুটা করে আত্মবিশ্বাসী। অষ্টম মিনিটে এমবাপ্পের শট ফিরিয়ে দেন ডেনিশ গোলরক্ষক স্মাইকেল। ১৪তম মিনিটে অঁতোয়ান গ্রিজমানের প্রচেষ্টাও ফিরিয়ে গোল হজম করা থেকে ডেনিশদেরকে রক্ষা করেন তিনি।

২০তম মিনিটে প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ পায় ডেনমার্ক। ক্রিস্তিয়ান এরিকসেনের পাসে ওলসেনের শট দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন ফ্রান্সের গোলরক্ষক আলফুঁস আরিওলা।

পাল্টা আক্রমণ থেকে ৩৩তম মিনিটে প্রথম এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। বাঁ প্রান্ত থেকে মিকেল ডামসগার্ডের পাসে ডি-বক্সে ছুটে গিয়ে স্লাইডে ফ্রান্সের জালে বল পাঠান কাসপের ডলবার্গ। ১-০ গোলে এগিয়ে যায় ডেনিশরা।

সেই ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ৩৯তম মিনিটে আরেকটি গোল হজম করে ফ্রান্স। কর্নার ঠিকমতো ক্লিয়ার করতে পারেনি ফ্রান্স, থমাস ডিলানির পাস থেকে বল পেয়ে ডি-বক্সের মাথা থেকে জোরাল শটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন আন্দ্রেয়াস ওলসেন। ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা।

দ্বিতীয়ার্ধের সপ্তম মিনিটে সুযোগ আসে গ্রিজমানের সামনে। তার নিচু শট ফিরিয়ে দেন স্মাইকেল।

৬৭তম মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ পান এমবাপ্পে। নিজেদের অর্ধ থেকে দারুণ থ্রু বল বাড়ান গ্রিজমান। বল ধরে এগিয়ে যান পিএসজি তারকা, সামনে একমাত্র বাধা ছিল গোরক্ষক। এগিয়ে এসে তার শট পা দিয়ে ফেরান স্মাইকেল। পরক্ষণে এমবাপ্পের আরেকটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দেন তিনি।

বাকি সময়ে আর উল্লেখযোগ্য সুযোগ তৈরি করতে পারেননি গ্রিজমান-এমবাপ্পেরা। ডেনিশরা ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

তবে জিতেও এক পয়েন্টের জন্য সেমির টিকিট পেল না ডেনিশরা। 'এ' লিগের এক নম্বর গ্রুপে ৬ ম্যাচে ৪ জয় ও এক ড্রয়ে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ক্রোয়েশিয়া। ৪ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে ডেনমার্ক।

ভুলে যাওয়ার মতো একটা নেশন্স লিগ পার করেছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ও নেশন্স লিগের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। স্রেফ একটি জয় ও দুই ড্রয়ে ফ্রান্সের পয়েন্ট ৫। একটি করে জয় ও ড্রয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে অস্ট্রিয়া।


আরো সংবাদ


premium cement