২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সফর ১৪৪৪ হিজরি
`

লজ্জার হার রোনালদোদের

লজ্জার হার রোনালদোদের - ছবি : সংগৃহীত

এ কেমন ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড! মরশুমের শুরুতেই একেবারে ল্যাজেগোবরে হতে হচ্ছে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোদের! চলতি মরুশুমের শুরুটা প্রিমিয়র লিগের প্রথম ম্যাচে হার দিয়েই করতে হয়েছিল ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডকে। ঠিক তার পরের ম্যাচেও ভয়াবহ লজ্জার সম্মুখীন হতে হলো তাদের।

ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের ইতিহাসে ৮৫ বছর আগেকার দুঃস্বপ্ন ফিরিয়ে আনল ব্রেন্টফোর্ড। তারা বরং নজির গড়ে জয় ছিনিয়ে নিলো। মাত্র ২৫ মিনিটেই এ দিন ব্রেন্টফোর্ড ৪-০ গোলে এগিয়ে গিয়েছিল। শেষ পর্যন্ত ওই ব্যবধানেই তারা ম্যাচ জেতে। যা তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ব্যবধানে জয়ের নজির। গত মরশুমে চেলসির বিরুদ্ধে ৪-১ গোলে জয় এর আগে তাদের ইতিহাসে রেকর্ড ছিল।

ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের গোলরক্ষক ডেভিড ডি' গেয়া অমার্জনীয় ভুল, রক্ষণের দুর্বলতার সুযোগগুলো কাজে লাগিয়ে ইউনাইটেডকে নিয়ে ছেলেখেলা করল ব্রেন্টফোর্ড। প্রতিপক্ষের মাঠে শনিবার প্রিমিয়র লিগের ম্যাচটি ০-৪ গোলে হারল রোনাল্ডোরা। সবগুলো গোলই হয়েছে প্রথমার্ধে। মরশুমের প্রথম দুই ম্যাচেই হারের মুখ দেখল ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডে। প্রথম ম্যাচে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ব্রাইটন অ‍্যান্ড হোভ অ‍্যালবিয়নের বিপক্ষে তারা হেরেছিল ২-১ গোলে।

ম্যান ইউনাইটেডের বিভীষিকাময় এই হারে ফিরল ৮৫ বছর আগের দুঃস্বপ্ন। দুই মরশুম মিলিয়ে লিগে এই নিয়ে টানা ৭টি অ্যাওয়ে ম্যাচ হারল তারা। ৮৫ বছরের বেশি সময় পর লিগে সাত বা তার বেশি ম্যাচে এমন অভিজ্ঞতা হলো ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের সমর্থকদের। ১৯৩৬ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে টানা ১০টি অ্যাওয়ে ম্যাচ হেরেছিল তারা। যা এখন পর্যন্ত তাদের লজ্জার নজির। ব্রেন্টফোর্ড ১৯৩৭ সালের পর এই প্রথম প্রিমিয়র লিগে ফের ম্যান ইউনাইটেডকে হারাল। ১৯৩৬-৩৭ মরশুমে দু'বারের সাক্ষাতেই জিতেছিল তারা।

১০ মিনিটে রোনাল্ডো বলের নিয়ন্ত্রণ হারালে বল পান ব্রেন্টফোর্ডের মাথিয়াস জেনসেন। তার পাস ধরে ডি-বক্সের বাইরে থেকে নেয়া জস ডি'সিলভার শট বাঁ দিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে বল ধরতে যান ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের কিপার। কিন্তু তিনি মিস করেন। ফলে বাজে গোল হজম করে শুরুতেই পিছিয়ে পড়ে ম্যান ইউনাইটেড। ১৮ মিনিটে ফের ভুল করেন ডি' গেয়া। এ বার ম্যাথিয়াস জেনসেনের নিচু শটে বোকা বনে যান তিনি। ২-০ পিছিয়ে পড়ে ম্যান ইউনাইটেড। ৩০ মিনিটে হয় তৃতীয় গোল। যার দায় ম্যান ইউনাইটেডের রক্ষণের। হেড করেন ব্রেন্টফোর্ডের বেন মি।

৩৫ মিনিটে স্কোরলাইন হয় ৪-০। এবার পাল্টা-আক্রমণে গোল করে আয়োজকরা। বাঁ পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রায়ান এমবিউমো। স্কোরলাইন দাঁড়ায় ৪-০। শেষ পর্যন্ত এই স্কোরলাইনেই শেষ হয় খেলা। তৃতীয় দল হিসেবে প্রিমিয়র লিগের ম্যাচে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে প্রথমার্ধে চার গোল করল ব্রেন্টফোর্ড। ২০২০ সালের অক্টোবরে টটেনহ্যাম হটস্পার এবং পরের বছরের অক্টোবরে লিভারপুল এমন কাজ করেছিল।
সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস


আরো সংবাদ


premium cement