০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ৪ জিলহজ ১৪৪৩
`

ক্লপের চোখ এখন ইস্তানবুলে

ক্লপের চোখ এখন ইস্তানবুলে - ছবি : সংগৃহীত

বল দখল থেকে শুরু করে আক্রমণ। সব দিক থেকেই এগিয়ে ছিল লিভারপুল। কিন্তু গোলের খেলা ফুটবল, এই কাজটিই করতে পারেনি অল রেডরা।

উল্টো ১-০ গোলের জয় দিয়ে ইউরোপ সেরার তকমা আরো মজবুত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ।

রুদ্ধশ্বাস ফাইনালে এমনভাবে হেরে স্বভাবতই হতাশ লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ। তবে বাস্তবতা মেনে নিচ্ছেন তিনি। তার চোখ সামনের বছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল। যা অনুষ্ঠিত হবে ইস্তানবুলে। ভক্তদের আগাম টিকিট বুকিং দেয়ারও আমন্ত্রণ জানান তিনি।

ম্যাচের রেজাল্ট নিয়ে ক্লপ বলেন, ‘এই ফল অস্বাভাবিক কিছু নয়। ফুটবলে এটা খুব স্বাভাবিক ফল। আমরা অনেক সুযোগ পেয়েছিলাম এবং লক্ষ্যে শটও রেখেছিলাম, কিন্তু সবচেয়ে নির্ণায়ক পরিসংখ্যানটি (গোল) মাদ্রিদের পক্ষে। তারা একটা গোল করেছে এবং আমরা করতে পারিনি-বিশ্ব ফুটবলে এটাই সহজতম ব্যাখ্যা। (আমাদের জন্য) এটা কঠিন, কিন্তু অবশ্যই এই ফলকে আমাদের সম্মান জানাতে হবে।’

নিজেদের খেলায় অনেক ইতিবাচক দিক খুঁজে পেলেও ক্লপ স্বীকার করে নিলেন, তাদের প্রচেষ্টা যথেষ্ট ছিল না।

তিনি বলেন, ‘আমরা ভেতরে এবং দ্বিতীয়ার্ধে রিয়ালের ফরমেশনের আশপাশে আরো বেশি খেলতে চেয়েছিলাম। সমস্যা হচ্ছে, প্রতিপক্ষ যখন রিয়াল এবং তারা নিচে নেমে খেলে, তখন তাদের পাল্টা আক্রমণের হুমকি থাকে তীব্র। আমাদের খেলায় ভালো অনেক কিছু ছিল, কিন্তু এটা যথেষ্ট ছিল না। এই ফল আমাদের মেনে নিতে হবে।’

তারপরও দারুণ মৌসুম কাটানোয় শিষ্যদের নিয়ে গর্ব করছেন ক্লপ।

তিনি বলেন, ‘ড্রেসিং রুমে আমি দলকে বলেছি, ওদেরকে নিয়ে এখনই গর্ব অনুভব করছি। অসাধারণ এক মৌসুম কেটেছে ছেলেদের। যে দুটি প্রতিযোগিতায় আমরা জিততে পারিনি, সেগুলো পারিনি ন্যুনতম ব্যবধানে। ছেলেরা ক্রমে বুঝতে পারবে কতটা স্পেশাল ছিল এই মৌসুম এবং তারা কী করেছে মৌসুমজুড়ে।’

আগামী মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল হবে ইস্তানবুলে। ক্লপের দৃষ্টি সেখানেই, ‘অবশ্যই অন্যদের চেয়ে একটু বেশিই চেষ্টা করতে হবে আমাদের, তবে সমস্যা নেই। পরেরটি (ফাইনাল) কোথায় যেন? ইস্তানবুল। হোটেল বুক করে রাখুন!’


আরো সংবাদ


premium cement