০৩ আগস্ট ২০২১
`

ইউরোর আলোয় বুড়োরা

ইউরোর আলোয় বুড়োরা -

এক বছর পেছালোও সময়ের স্রোত ধারায় আবারো কড়া নাড়ছে উয়েফা ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপ ২০২০। মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে গত বছর অনুষ্ঠিত হয়নি আসরটি। এজন্য ১৬তম আসর এক বছর পিছিয়ে দিয়েছিল উয়েফা। এক বছর পেছালোও নাম কিন্তু পরিবর্তন হয়নি। ইউরো ২০২০-ই থাকলো।

ইউরোপের ২৪টি দল নিয়ে ১১টি ভেনুতে অনুষ্ঠিত বসতে যাচ্ছে এবারের আসর। আগামী ১১ জুন তুরস্ক ও ইতালি মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে উঠবে মাঠের পর্দা। ১১ জুলাই ফাইনাল ম্যাচ দিয়ে শেষ হবে আসর। গত আসরের চ্যাম্পিয়ন দলটি ছিল পর্তুগাল।

ইউরোপের দেশগুলো ইতোমধ্যে দল গুছাতে শুরু করেছে। শীর্ষ লিগগুলোর মৌসুম অনেকটা শেষ হওয়াতে, পারফরম্যান্স দেখে দল গুছাতে একটু সহজই হবে কোচদের। তবে সম্প্রতি ফর্ম অনুযায়ী ইউরোতে তরুণদের চেয়েও দ্যুতি ছড়াতে পারেন বুড়োরা। শীর্ষ লিগগুলোর অধিকাংশ টপ গোল স্কোরারই ৩০ বছরের বেশি বয়সীরা। এজন্য স্পটলাইট থাকবে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, রবের্ত লেভানদোস্কি, করিম বেনজেমা, সিরো ইমোবিলদের উপরেই।

এই তালিকায় যোগ হতে পারতেন বয়স্ক তারকা ইব্রাহিমোভিচও। ইউরোতে খেলার জন্য অবসর ভেঙে পাঁচ বছর পর ফিরেছিলেন জাতীয় দলে। কিন্তু ইনজুরি সবকিছু এলোমেলো করে দিয়েছে সুডিশ তারকার। ছয় সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হচ্ছে তাকে। এসি মিলানের হয়ে গত দুই মৌসুম দারুণ ছন্দে ছিলেন সুইডেনের এই ফরোয়ার্ড।

খেলোয়াড়দের ফর্ম বিবেচনায় অন্যদলগুলোর চেয়ে ভালো অবস্থানে রয়েছে বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ফ্রান্স। এমবাপ্পে-গ্রিজম্যান-পগবারাতো রয়েছেনই। দেশটির হয়ে নজরকাড়তে পারেন করিম বেনজেমা। ৩৩ বছর বয়সী ফরাসি স্ট্রাইকার স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে কাটিয়েছেন দুর্দান্ত মৌসুম। সব লিগ মিলিয়ে করেছেন ২৯ গোল। ৬ বছর পর আবারো জাতীয় দলে ডাক পাচ্ছেন বেনজেমা। এমনটাই ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছেন ফ্রান্সের কোচ দিদিয়ের দেশম। জাতীয় দলের জার্সিতে শেষ ২০১৫ সালে খেলেছেন রিয়াল তারকা। ডিফেন্স-মিড-অ্যাটাকিং সব মিলিয়ে দারুণ ব্যালেন্স টিম তার।

গতবার পর্তুগালকে একাই টেনেছেন রোনালদো। এই মৌসুমে জুভেন্টাসের হয়ে করেছেন ৩৬ গোল। রোনালদো এবারো থাকছেন সামনে। ইতালিয়ান ফরোয়ার্ড সিরো ইমোবিল, সিরি-আ লিগে লাৎসিওর হয়ে এ মৌসুমে করেছেন ২৫ গোল। গত মৌসুমে ইতালির গোল্ডেন সু উঠেছিল তার হাতে। হয়েছিলেন সিরি-আর সর্বোচ্চ গোলদাতা। রবের্ত লেভানদোস্কি, গতবার হয়েছেন বর্ষসেরা ফুটবলার। এবারো আছেন সে দৌড়ে। এই মৌসুমে বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে করেছেন ৪৭ গোল। বুন্দেসলিগায় এক মৌসুমে ৪০ গোল করে, ভেঙেছেন গার্ড মুলারের ৪৯ বছর আগের রেকর্ডও।



আরো সংবাদ