১৪ এপ্রিল ২০২১
`

উল্ফসকে উড়িয়ে দিয়ে সর্বোচ্চ জয়ের রেকর্ড স্পর্শ করলো ম্যান সিটি

উল্ফসকে উড়িয়ে দিয়ে সর্বোচ্চ জয়ের রেকর্ড স্পর্শ করলো ম্যান সিটি -

প্রিমিয়ার লিগে মঙ্গলবার উল্ফসকে ৪-১ গোলে বিধ্বস্ত করে টানা ২৮ ম্যাচে জয়ের ধারা ধরে রেখেছে ম্যানচেস্টার সিটি। এর মাধ্যমে টানা সর্বোচ্চ ম্যাচ জয়ের ক্লাবের অতীত রেকর্ডও স্পর্শ করেছে এবারের দলটি। এই জয়ে একইসাথে প্রিমিয়ার লিগ টেবিলে ১৫ পয়েন্টের ব্যবধানে এগিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে পেপ গার্দিওলার দল।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে কাল ম্যাচের ১৫ মিনিটে লিনডার ডেনডোনকারের আত্মঘাতি গোলে এগিয়ে গিয়েছিল সিটিজেনরা। কিন্তু ৬১ মিনিটে কন কোডির গোলে উল্ফস সমতা ফেরালে সিটিজেন শিবিরে অস্বস্তি দেখা দেয়। যদিও গাব্রিয়েল জেসুস ও রিয়াদ মাহারেজের গোলে শেষ পর্যন্ত লিগ টপারদের তিন পয়েন্ট নিশ্চিত হয়।

এর আগে সব ধরনের প্রতিযোগিতায় ২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত ২৮ ম্যাচে অপরাজিত ছিল সিটি। গত চার বছরে তৃতীয় লিগ শিরোপা জয়ে এবারো তাদেরকেই সুস্পষ্ট ফেবারিট হিসেবেই মানা হচ্ছে। প্রিমিয়ার লিগে এটি তাদের টানা ১৫তম জয়। গত ১৯টি প্রিমিয়ার লিগ ম্যাচে কোনটিতেই সিটি কখনই পিছিয়ে পড়েনি। ১৯৯৮-৯৯ মৌসুমে আর্সেনাল এই রেকর্ড দেখিয়েছিল।

দুর্দান্ত এই দলটির প্রশংসা করতে ভুলেননি গার্দিওলা। কিন্তু পরের ম্যাচে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ও লিগ টেবিলে সবচেয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ম্যাচের আগে দলকে ধারাবাহিকতা ধরে রাখার আহ্বান জানিয়েছেন সিটি বস। কাল ম্যাচ শেষে গার্দিলা বলেছেন, ‘১-১’এ সমতা থাকার পর আমরা বেশ অস্বস্তিতে ছিলাম। কিন্তু শেষের দিকে বেশ কিছু সুযোগ তৈরী করেছি এবং সেগুলো কাজেও লাগিয়েছি। এখন আমাদের সামনে মূল চ্যালেঞ্জ ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল, শিরোপাটা এখনো তাদের কাছেই আছে। এই মুহূর্তে তাদেরকে হঠানোর জন্য আমরাই সেরা পজিশনে আছি। আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করবো, কিন্তু তারা চ্যাম্পিয়ন, এটা আমাদের মনে রাখতে হবে। এখনো ৩৩ পয়েন্টের খেলা বাকি আছে।’

ম্যাচের শুরু থেকেই স্বাগতিকরা প্রভাব বিস্তার করে খেলতে শুরু করে। তাদের শক্তিশালী পজিশনের বিপরীতে উল্ফস বল ধরতে ব্যর্থ হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ১৫ মিনিটে ডেনডোনকার নিজেদের জালে বল জড়ালে এগিয়ে যায় সিটিজেনরা। অমারিক লাপোর্তের একটি গোল অফসাইডের কারণে বাতিল হয়ে যায়। বার্নার্ডো সিলভার হেড দারুণ দক্ষতায় রুখে দেন রুই প্যাট্রিসিও। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে কেভিন ডি ব্রুইনার শট আবারো প্যাট্রিসিও রুখে দিলে ব্যবধান দ্বিগুণ করতে পারেনি সিটি। কিন্তু হুয়াও মুটিনহোর ফ্রি-কিক থেকে কোডির হেডে উল্ফস হঠাৎ করেই ৬১ মিনিটে সমতায় ফিরে। শেষ ১০ মিনিটে সিটি নিজেদের ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে মরিয়া হয়ে উঠে। ৮০ মিনিটে কাইল ওয়াকারের ক্রস থেকে খুব কাছে থেকে বল জালে জড়ান জেসুস। ৯০ মিনিটে মাহারেজের গোলে সিটির জয় নিশ্চিত হয়। কিন্তু ইনজুরি টাইমে জেসুসের দ্বিতীয় গোলে জয়ের ব্যবধান বেড়েছে।

সিটির এই জয়ের ধারা ইউরোপের শীর্ষ পাঁচটি লিগের মধ্যে কোনো একটি দলের জন্য সর্বোচ্চ। এর আগে ২০২০ সালে বায়ার্ন মিউনিখ বুন্দেসলিগায় টানা ২৩টি ম্যাচ ও ২০১৪ সালে লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদ টানা ২২টি লিগ ম্যাচে জয়ী হয়েছিল।
সূত্র : বাসস



আরো সংবাদ


গোবিন্দগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের ৩ জনসহ নিহত ৪ অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে অনৈতিক কাজের অভিযোগে কালিয়াকৈরে যুবক আটক দুর্নীতির অভিযোগে ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ ক্রিকেটার হিথ স্ট্রিক ব্যাপক বিক্ষোভের পর পাকিস্তানে ‘নিষিদ্ধ’ হচ্ছে উগ্র ডানপন্থী দল টিএলপি এবার হেফাজতের সহকারী মহাসচিব গ্রেফতার ওয়াশিংটন-তেহরান আলোচনায় পরমাণু কেন্দ্রে নাশকতার ঘটনার কালো ছায়া যুক্তরাষ্ট্রকে চীন : প্লিজ আগুন নিয়ে খেলবেন না স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে নামাজ আদায়ের সুযোগ দিতে জামায়াত আমিরের আহ্বান রমজানের প্রথম দিন যেভাবে কাটলো খালেদা জিয়ার করোনা সংক্রমণের নতুন রেকর্ড, তবু লকডাউনে যাবে না ভারত নোয়াখালীতে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে স্বামী কারাগারে

সকল