০৫ ডিসেম্বর ২০২০

ধ্রুপদি লড়াই যখন দর্শকবিহীন


ধ্রুপদি ফুটবলের লড়াই। স্প্যানিশ ভাষায় যা বলা হয়ে থাকে এল ক্লাসিকো (ইংরেজিতে ‘দি ক্লাসিক’)। যে ম্যাচে আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণই থাকে না, থাকে শিল্পির অনুপম ছোয়াও। দুই দলের ফুটবলারদের পায়ের জাদু সবুজ গালিচায় একে দেয় তুলির আচর। তখন ঐ ফুটবল ম্যাচের সৌন্দর্যের মাত্রা বৃদ্ধি পায় অনেকাংশে। সাধারণ একটি ফুটবল ম্যাচ হয়ে ওঠে ইতিহাসের অংশ।

স্প্যানিশ দুই জায়ান্ট বার্সেলোনা আর রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি অবস্থান ঠিক তেমনি। এই দুই দলের লড়াই মানেই টানটান উত্তেজনা, রোমাঞ্চ, রুদ্ধশ্বাসে ভরপুর। যে ম্যাচ অবলোকন করার জন্য প্রতি মৌসুমেই উন্মুখ হয়ে থাকে বিশ্বের কোটি কোটি ফুটবল ভক্ত। রাত জেগে উপভোগ করে দুই বিশ্ব সেরা ক্লাবের শৈল্পিক ফুটবল লড়াই।

চলতি মৌসুমে ঠিক তেমনই রোমাঞ্চ ছড়িযে প্রথম এল ক্লাসিকোতে শনিবার রাতে মুখোমুখি হচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনা। স্প্যানিশ লা লিগায় কাঁপন ধরানো এই ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত রাত ৮টায়। দেখা যাবে ফেসবুক ও অ্যাপে।

এবারের এল ক্লাসিকোর রোমাঞ্চ অনেকটাই কম। যার মূল কারণ করোনা ভাইরাস। ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দর্শকবিহীন মাঠে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এল ক্লাসিকো। আর কয়েক মৌসুম ধরে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো না থাকায় খণ্ড লড়াইয়ে মেসি-রোনালদোর উত্তাপ পাওয়া যাচ্ছে না।

তারপর এল ক্লাসিকোর গ্রহণযোগ্যতা গোটা বিশ্বেই। এশিয়া মহাদেশের ভক্তদের কথা চিন্তা করে তো এবার এল ক্লাসিকো স্পেন সময় দুপুরে গড়ালো। বাংলাদেশ সময় রাত ৮টা। অথচ আগের সব এল ক্লাসিকো গুলো সবাই উপভোগ করতে মধ্য রাতে।

১৯০২ সাল থেকে যেকোনো প্রতিযোগিতামূলক টুর্নামেন্টে নিয়মিতভাবেই লড়াই করে আসছে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। তবে এ দুই দলের লড়াইয়ে জনপ্রিয়তা পায় মূলত ৫০-এর দশক থেকে। ২০০৯ সালের পর মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ এল ক্লাসিকোকে দেয় বাড়তি মাত্রা। সেটাও দুই মৌসুম ধরে নেই।

এখন পর্যন্ত সব মিলিয়ে এল ক্লাসিকোতে ২৭৭ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বার্সা ও রিয়াল। তবে জয়ের পাল্লা কিছুটা ভারী বার্সার দিকেই। কাতালানদের ১১৫ জয়ের বিপক্ষে মাদ্রিদের দলটি জিতেছে ১০০ ম্যাচে। বাকি ৬২ ম্যাচ হয়েছে ড্র। শুধু লা লিগায় দু’দল মুখোমুখি হয়েছে ১৮০ বার, তার মধ্যে লস ব্লাঙ্কোসরা জিতেছে ৭৩ ম্যাচ, মেসিদের জয় ৭২ ম্যাচ, বাকি ৩৫টি ম্যাচ ড্র হয়েছে।

এল ক্লাসিকোর আগে এবার অনেকটাই বিবর্ণ রিয়াল মাদ্রিদ। লিগে কাদিজের বিরুদ্ধে হারের পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচেও শাখতার ডোনেৎস্কের সঙ্গে হেরেছে জিদানরা। বার্সেলোনা লিগে গেতাফের কাছে হারলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ফেরেনৎসভারোসার বিরুদ্ধে ৫-১ গোলে জয় আত্মবিশ্বাসী করে তুলছে রোনাল্ড কোমান শিবিরকে।

খেলা হবে ন্যু ক্যাম্পে। বাড়তি সুবিধা বার্সার। তবে জিদানের পরিসংখ্যান প্রেরণা যোগাচ্ছে রিয়ালকে। জিদানের নেতৃত্বে ন্যু ক্যাম্পে বার্সার সঙ্গে শেষ পাঁচ ম্যাচে একটিতেও হারেনি তারা, দুই জয়, তিন ড্র। কাদিজের বিরুদ্ধে চোট পাওয়া সার্জিও রামোসকে যেকোনো মূল্যে খেলাতে পারেন জিদান। রিয়াল অধিনায়ক ফিট হয়ে খেলতে পারলে তা রিয়ালের জন্য বড় পাওয়া।


আরো সংবাদ