০৯ আগস্ট ২০২০

দশ বছরেও সমান জনপ্রিয় ‘ওয়াকা ওয়াকা’

দশ বছরেও সমান জনপ্রিয় ‘ওয়াকা ওয়াকা’ - সংগৃহিত
24tkt

এক দশক পেরিয়ে গিয়েছে। এখনও বিশ্বের জনপ্রিয়তম গানগুলির প্রথম সারিতে নিজের জায়গা ধরে রেখেছে পপ গায়িকা শাকিরার ‘ওয়াকা ওয়াকা’। কিন্তু ফুটবল বিশ্বকাপের থিম সঙে কী এমন ম্যাজিক ছিল, দশক পেরিয়ে গেলেও যাতে আচ্ছন্ন হয়ে রয়েছেন বিশ্ববাসী? ২০১০ সালের বিশ্বকাপ ফুটবলের আসর বসেছিল দক্ষিণ আফ্রিকায়। গ্রেটেস্ট শো অন দ্য আর্থ হিসাবে পরিচিত টুর্নামেন্ট আয়োজনের দায়িত্ব সেবারই প্রথম পেয়েছিল আফ্রিকার কোনও। ২০১০ সালের বিশ্বকাপ মাতিয়ে দিয়েছিল স্পেন। জাভি-ইনিয়েস্তা-পুওলদের টিকিটাকা ফুটবল ঝড় তুলেছিল বিশ্বে। কিন্তু সবকিছু ছাপিয়ে ২০১০ বিশ্বকাপের থিম সিং জায়গা করেছিল কোটি কোটি মানুষের মনে।

কেমন ছিল ‘ওয়াকা ওয়াকা’র জনপ্রিয়তা? ওই বছর বিশ্বের ১৫টি দেশে সবচেয়ে বেশিবার দেখা ভিডিওর তালিকায় প্রথম স্থানে ছিল শাকিরা ৩মিনিট ২২ সেকেন্ডের ওই গানটি। এখনও পর্যন্ত ইউটিউবে ওয়াকা ওয়াকা-র মোট ভিউ ২৫০ কোটি! এমনকি ফিফার নিজস্ব ওয়েবসাইটে আপলোড করা সর্বকালের সমস্ত ভিডিওর মধ্যে জনপ্রিয়তার নিরিখে এটি রয়েছে ২৮ নম্বরে। মনে রাখা জরুরী, ফিফার আপলোড করা অধিকাংশ ভিডিও-ই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কিছু ম্যাচের ফুটেজ। তার অনেকগুলিকেই পিছনে ফেলে দিয়েছে এই গান। ফুটবল বিশ্বকাপের ৯০ বছরের ইতিহাসে তো বটেই, খেলার ইতিহাসে এমন জনপ্রিয় গান আর তৈরি হয়নি।

২০১০ সালের বিশ্বকাপ শুরু হয়েছিল ১০ জুন, শেষ হয়েছিল ১১ জুলাই। আগামীকাল, শুক্রবার তার এক দশক পূর্ণ হবে। বিশ্বকাপের উদ্বোধনী এবং সমাপ্তি অনুষ্ঠান ঘিরে বিশ্বজুড়েই প্রবল উৎসাহ থাকে। এক দশক আগে আফ্রিকায় ওই দুই অনুষ্ঠানেই এই গানটি গেয়েছিলেন শাকিরা।

বিপুল জনপ্রিয়তার পাশাপাশি বিতর্কও তৈরি হয়েছে কলম্বিয়ান তারকার এই গানটিকে কেন্দ্র করে। কেন আফ্রিকার কোনও শিল্পীকে দিয়ে থিম সং গাওয়ানো হল না, সেই নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অনেকে। কিন্তু শেষপর্যন্ত জনপ্রিয়তার ঢেউতে ভেসে গিয়েছিল সবকিছুই। সূত্র: ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস


আরো সংবাদ