১৭ জানুয়ারি ২০২১
`

করোনায় আক্রান্ত হয়ে ডাক্তারের আত্মহত্যা


করোনাভাইরাস সংক্রমণে আক্রান্ত বিশ্বের লাখ-লাখ মানুষ। সংক্রমণ থেকে বাঁচতে চিকিৎসা নিচ্ছেন সবাই। কেউ মারা যাচ্ছেন, কেউ সুস্থ হয়ে উঠছেন। আবার কেউ বাঁচার জন্য লড়ছেন। কিন্তু করোনাতে আক্রান্ত হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের দল রেইমসের ৬০ বছর বয়সী চিকিৎসক বার্নার্ড গনজালেজ।

কিছুদিন আগে স্ত্রীসহ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন গনজালেজ। আক্রান্ত হবার পর হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু হাল ছেড়ে দিলেন গনজালেজ। একটি চিরকুট লিখে আত্মহত্যা করলেন কিংবদন্তিতুল্য এ চিকিৎসক।

এ খবর নিশ্চিত করেছেন রেইমসের মেয়র আর্নড রবিনেট। বার্নার্ডের মৃত্যুতে শোক জানিয়ে রবিনেট বলেন, ‘তিনি আমাদের ক্লাবের চিকিৎসক ছিলেন। দারুণ পেশাদার একজন তিনি। যে কারণে সবাই তাকে ভালবাসে, সম্মান করে। তার পরিবারের জন্য আমার গভীর সমবেদনা। তিনি কোভিড-১৯ আক্রান্ত ছিলেন। আমি জানি তিনি একটা সুইসাইড নোট লিখেছেন। আমি সেটা পড়িনি।’

ফ্রেঞ্চ ক্লাব রেইমসের হয়ে প্রায় ২৩ বছর কাজ করেছেন বার্নার্ড। ক্লাবের দুর্দিন থাকা অবস্থাতেও বিনামূল্যেই স্বাস্থ্যসেবা দিয়েছেন তিনি। শুধু ক্লাব নয়, শহরের যে কারও চিকিৎসেবায় এড়িয়ে যেতেন গনজালেজ।

গনজালেজের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে রেইমসের ক্লাবের প্রেসিডেন্ট পিয়েরে কাইলট বলেন, ‘আমার কোন ভাষা নেই। এই খবরে আমি ভারাক্রান্ত। তিনি রেইমসের একজন ব্যক্তিত্ব ছিলেন, ক্লাবের অন্যতম সেরা পেশাদার ছিলেন। ক্লাবের সাথে ২০ বছরের বেশি সময় কাজ করেছেন তিনি। নিজের কাজের ক্ষেত্রে পেশাদারিত্বে কখনও ছাড় দেননি। পুরোপুরি নিঃস্বার্থভাবে কাজ করেছেন। ক্লাবের খারাপ সময়ে বিনামূল্যে সেবা দিয়েছেন। তার মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত।’ সূত্র : বাসস



আরো সংবাদ