২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৯ আশ্বিন ১৪৩০, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫ হিজরি
`
বিভিন্ন মহানগরে বিএনপির পদযাত্রায় বক্তারা

আওয়ামী লীগ যত জুলুম করবে বিএনপি তত শক্তিশালী হবে

-


দেশের বিভাগীয় শহরের বিএনপির সমাবেশ ও পদযাত্রায় বক্তারা বলেছেন, বিএনপি নেতা বলেন, আওয়ামী লীগের কোনো রাজনৈতিক অস্তিত্ব নেই। এরা একটি রেজিম তৈরি করেছে। বাংলাদেশের জনগণ তার ভোটাধিকার, মানবাধিকার, অর্থনীতি, নিরাপত্তা, বাক-স্বাধীনতা, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ফিরে পাওয়ার আন্দোলনে নেমেছে। এ আন্দোলন বিএনপির একার নয়, বাংলাদেশের সবার আন্দোলন। পুরো বিশ্ব আজ বাংলাদেশের দিকে তাকিয়ে আছে। বাংলাদেশের নিরপেক্ষ নির্বাচনের দিকে তাকিয়ে আছে। এ জন্য এ সরকারকে বিদেশী রাষ্ট্রগুলো, মানবাধিকার সংগঠনগুলো জাতিসংঘ বিশ্ব বিবেক এ দেশকে নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যত জুলুম করবে, বিএনপি তত শক্তিশালী হবে। এখন বাধা দিলে ছবি তুলে রাখবেন।
বক্তারা আরো বলেন, বিশ্বের ১০৭টি দেশের অংশগ্রহণে বিশ^ গণতন্ত্র সম্মেলনে বাংলাদেশকে দাওয়াত দেয়া হয়নি। কারণ বিশ^ মনে করে বাংলাদেশে গণতন্ত্র নেই। তিন তিনটা স্যাংশনের মাধ্যমে ওদের গালে চপোটাঘাত দিয়েছে। এরপরও তাদের লজ্জা হয় না। এরা এখন নির্লজ্জ হয়ে গেছে।

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, বিদ্যুতের লোডশেডিং, সর্বগ্রাসী দুর্নীতি, উচ্চ আদালতের নির্দেশনাকে অধীনস্থ আদালত ও সরকারের অবজ্ঞা, মিথ্যা ও গায়েবি মামলায় নির্বিচারে গ্রেফতার, সরকারের পদত্যাগ এবং নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা দাবিতে রাজধানীর বাইরে বিভাগীয় শহরে আয়োজিত সমাবেশ ও পদযাত্রায় বক্তারা এসব কথা বলেন।
বক্তারা আরো বলেন, বাংলাদেশের চরম দুর্নীতির মাধ্যমে লাখ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করে দেশের অর্থনীতিকে পঙ্গু করে দিয়েছে। এটা এখন বিশ্বের নানা দেশে আলোচিত হচ্ছে। যে কারণে আইএমএফের কাছে যেতে হচ্ছে, বিশ্ব ব্যাংকের কাছে যেতে হচ্ছে। দেশের মানুষ এখন দু’বেলা খেতে পারছে না। গ্যাস ও বিদ্যুতের উচ্চ মূল্য কার পকেটে যাচ্ছে, ব্যাংক লুটপাট করে ব্যাংক খালি করে দিয়েছে। এসব টাকা সব আওয়ামী সিন্ডিকেটের পকেটে যাচ্ছে।

পদযাত্রার মাধ্যমে আগামীতে ঢাকা ঘেরাও করা হবে
গাজীপুর প্রতিনিধি জানান, উচ্চ আদালতের নির্দেশনাকে অধীনস্থ আদালত ও সরকারের অবজ্ঞা, গায়েবী মামলায় নির্বিচারে গ্রেফতার, মিথ্যা মামলা ও পুলিশি হয়রানী, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, বিদ্যুতের লোডশেডিং, আওয়ামী সরকারের সর্বগ্রাসী দুর্নীতির প্রতিবাদে এবং ১০ দফা দাবি বাস্তবায়নে গাজীপুর মহানগর বিএনপির পদযাত্রা রোববার অনুষ্ঠিত হয়েছে। পদযাত্রা শেষে জেলা বিএনপি কার্যালয়ের সামনের সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. মাজহারুল আলম বলেন, গাজীপুর মহানগরসহ সারা বাংলাদেশের যে পদযাত্রা শুরু হয়েছে, এভাবে সারাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ঢাকা ঘেরাও করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা, দেশ নায়ক তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনা ও নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের দাবি আদায় করা হবে।
পদযাত্রায় বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ডা. মাজহারুল আলম ছাড়াও মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব শওকত হোসেন সরকার, যুগ্ম আহবায়ক রাকীব উদ্দিন সরকার পাপ্পু, মেহেদী হাসান এলিস, আঃ সালাম শামীম, সুরুজ আহাম্মদসহ দলীয় নেতাকর্মীরা অংশ নেন। পদযাত্রাটি শহরের ডাহুকের মোড় থেকে শুরু হয়ে দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি বাস্তবায়ন ছাড়া কোনো বিকল্প নেই
রাজশাহী ব্যুরো জানায়, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক মেয়র মিজানুর রহমান মিনু বলেছেন, বর্তমান অবৈধ আওয়ামী লীগ সরকার দেশ পরিচালনায় সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। দেশের অবস্থা ভয়ানক, সামনে দুর্ভিক্ষ হাতছানি দিচ্ছে। এ অবস্থা থেকে উত্তোরণে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনসহ ১০ দফা দাবি বাস্তবায়ন ছাড়া আর কোনো বিকল্প নেই। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তিসহ ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে গতকাল রোববার দুপুরে নগরীর ভুবন মোহন পার্কে রাজশাহী মহানগর বিএনপি আয়োজিত পদযাত্রাপূর্ব এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও রাজশাহী জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম মার্শাল, রাজশাহী মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মামুনুর রশিদ, যুগ্ম আহ্বায়ক শফিকুল ইসলাম সাফিক, দেলোয়ার হোসেন, ওয়ালিউল হক রানা, বজলুল হক মন্টু, জেলা বিএনপির সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ মহসিন, সদস্য ও সাবেক এমপি জাহান পান্নাসহ অন্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এরশাদ আলী ঈশা।

খুলনা ব্যুরো জানায়, খুলনায় গতকাল রোববার বিকেলে ১০ দফা দাবিতে দলীয় কার্যালয়ে সামনে মহানগর ও জেলা বিএনপির উদ্যোগে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে পদযাত্রা কমসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী। পদযাত্রা পূর্বসমাবেশে তিনি বলেন, বর্তমান শেখ হাসিনা সরকার রাষ্ট্রযন্ত্রকে কুক্ষিগত করে বাকশালী পন্থায় দেশ পরিচালনা করছে। আপাদমস্তক দুর্নীতিবাজ সরকারকে আর এ দেশের মানুষ ক্ষমতায় দেখতে চায় না। সারা দেশে আন্দোলনের যে ঢেউ উঠেছে- সে ঢেউয়ে সরকার ভেসে যাবে। অচিরেই শেখ হাসিনার পতন হবে। তিনি পুলিশ প্রশাসনকে হুঁশিয়ারি উচ্চরণ করে বলেন আপনারা জনগণের পক্ষে কাজ করুন। বিএনপি জনগণের পক্ষে কথা বলছে, দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের কথা বলছি, জনগণের ভোটাধিকারের কথা বলছে। আপনারা যদি গণদাবির বিপক্ষে অবস্থান করেন তাহলে ভবিষতে চরম মূল্য দিতে হবে।
মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শফিকুল আলম মনার সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব শফিকুল আলমের পরিচালনায় পদযাত্রা কর্মসূচিতে প্রধান বক্তা ছিলেন জাতীয় নির্বাহী কমিটির তথ্যবিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল। কর্মসূচিতে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আমীর এজাজ খান। আরো বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মনিরুল হাসান বাপ্পি, খান জুলফিকার আলী, স ম আব্দুর রহমান, সাইফুর রহমান মিন্টু, বেগম রেহেনা ঈসা প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের পরাজয় সুনিশ্চিত
ময়মনসিংহ অফিস জানায়, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, আওয়ামী লীগ রাজনৈতিকভাবে সম্পূর্ণ পরাজিত হয়ে গেছে। আওয়ামী মার্কা কিছু পুলিশ, প্রশাসনের কিছু কর্মকর্তা, দুর্নীতিবাজ কিছু ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ আওয়ামী লীগকে চালায় বলেই দলটি ধ্বংস হয়ে গেছে। বিএনপি এখন রাজনৈতিভাবে দেশের সবচেয়ে শক্তিশালী দল। আওয়ামী লীগের পরাজয় এখন সুনিশ্চিত।
১০ দফা দাবিতে ময়মনসিংহে আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে রোববার বিকেলে ময়মনসিংহ মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপি আয়োজিত পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট মাঠে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শুরুর আগে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে ব্যানার, ফেস্টুন সহকারে বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা জনসভায় যোগদান করেন।
মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক এ কে এম শফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক আবু ওয়াহাব আকন্দ, মোতাহার হোসেন তালুকদার ও আলমগীর মাহমুদ আলমের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, সহসাংগঠনিক সম্পাদক ওয়ারেস আলী মামুন ও শরিফুল আলম, ময়মনসিংহ দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ডা: মাহবুবুর রহমান লিটন, উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক এনায়েত উল্লাহ কালাম প্রমুখ।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু বলেছেন, বাংলাদেশে কোনো গণতান্ত্রিক সরকার নেই, আছে এক দলীয় সরকার। এ সরকার ক্ষমতায় এসে বিগত ১৪ বছর বিএনপির নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা, হামলা, নির্যাতন, নিপীড়ন চালিয়েছে। প্রতিনিয়ত মিথ্যা মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে। বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাগারে বন্দী করে রেখেছে। সাজানো মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দিয়েছে। তিনি গতকাল রোববার বিকেলে চট্টগ্রামের বাকলিয়া এক্সেস রোডে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও ১০ দফা দাবি বাস্তবায়নে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উদ্যোগে কেন্দ্র ঘোষিত পদযাত্রা কর্মসূচিপূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা: শাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহাবুবের রহমান শামীম। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রমবিষয়ক সম্পাদক এ এম নাজিমুদ্দিন, মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাসেম বক্কর, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য ব্যারিস্টার মীর হেলাল উদ্দিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান। ইয়াছিন চৌধুরী লিটন ও কামরুল ইসলামের যৌথ পরিচালনায় আরো বক্তব্য রাখেন মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, অ্যাডভোকেট আবদুস সাত্তার, সৈয়দ আজম উদ্দীন, এস এম সাইফুল আলম, এস কে খোদা তোতন, নাজিমুর রহমান, শফিকুর রহমান স্বপন, কাজী বেলাল উদ্দিন, শাহ আলম, ইসকান্দর মির্জা, আবদুল মান্নান প্রমুখ।

আওয়ামী লীগ অবৈধভাবে ক্ষমতা আঁকড়ে আছে
বরিশাল ব্যুরো জানায়, আওয়ামী লীগ সরকার যদি এতই উন্নয়ন করে থাকে তাহলে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে ভয় কিসের? জনসমর্থন থাকলে জনগণকে বিশ্বাস করে নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা ছাড়ুন। তত্ত্ববাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনে প্রমাণ হবে কি উন্নয়ন করেছেন? আওয়ামী লীগ জানে মানুষ তাদের ত্যাগ করেছে। এ জন্য অবৈধভাবে ক্ষমতা আঁকড়ে আছে। নিরপেক্ষ সরকারের হাতে ক্ষমতা ছাড়তে ভয় পায়। গতকাল রোববার বরিশাল বিএনপি আয়োজিত পদযাত্রা পূর্ববর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে এসব কথা বলেন বিএনপি নেতারা।

 

 


আরো সংবাদ



premium cement

সকল